অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের কিছু টিপস  FavoriteLoadingবুকমার্ক

মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যা চিন্তা করলে অর্ধেকের বেশি ব্যবহারকারী অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে। অ্যান্ড্রয়েড ফোন পরিচালনাও অন্য ফোনের চেয়ে সোজা। তবে যে ফোন ব্যবহার করেন না কেন, ফোনের ব্যাটারি চার্জ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। ফোনের ব্যাটারিকে দীর্ঘায়ু করার জন্য আমরা অনেক চেষ্টা করি। ডাউনলোড করি অনেক অ্যাপসও। এসব না করেও শুধু মোবাইলের সেটিংস বদলে দিয়েও স্মার্টফোন ব্যবহার করা যেতে পারে সারাদিন রাত। আসুন, জেনে নেই কৌশলগুলো।

ফোনের আলো নিয়ন্ত্রন করুন

আমাদের অনেকের স্মার্টফোনের ডিসপ্লেতে আমরা সারাদিন একই ধরণের ব্রাইটনেস দিয়ে থাকি। যেখানে পর্যাপ্ত আলো রয়েছে সেখানে কম ব্রাইটনেসেও কাজ করা যায়। তাই সেখানে ব্রাইটনেস কম রাখাই উত্তম। আবার সূর্যের আলোতে কম ব্রাইটনেসে ডিসপ্লে দেখা যায় না। সেক্ষেত্রে ব্রাইটনেস বাড়িয়ে নিলে দেখতে সুবিধা হয়। আবার ঘরের ভেতর চলে আসলে ব্রাইটনেস কমিয়ে নিলে ফোনের ডিসপ্লে এবং ব্যাটারি দুটোই ভালো থাকবে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ৩০ থেকে ৪০ শতাংশতে মোবাইল ব্রাইটনেস রাখা ভালো।

-মোবাইল-ও-ট্যাব1-364x245

অ্যামোলিড স্ক্রিনে নজর রাখুন হোয়াইটনেসে

স্মার্টফোনের জনপ্রিয় ডিসপ্লের মধ্যে অ্যামোলিড স্ক্রিন বেশ এগিয়ে আছে। তবে অ্যামোলিড ডিসপ্লে যেহেতু একটি উজ্জ্বল ডিসপ্লে তাই মোবাইলের ওয়ালপেপার পছন্দের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। কালো রঙের ওয়ালপেপার ব্যবহার করা উত্তম। এতে ব্যাটারি ব্যবহার কম হবে।

 বন্ধ করুন অ্যাপস শর্টকাট

গুগল প্লে স্টোর থেকে নতুন অ্যাপ ডাউনলোড করার সময় শর্টকাট আইকন তৈরি হয় হোমস্ক্রিনে। গুগল প্লে অ্যাপের মেনু থেকে সেটিংসে গিয়ে শর্টকাট বন্ধ করে দিতে পারেন।

প্রয়োজনে ‘সাইলেন্ট মুড’ ব্যবহার করুন

ঘুম বা আরামের সময় ফোনকল, মেসেজ বা অ্যালার্ট সিস্টেম সাইলেন্ট করে রাখুন। অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ মোড নামের একটি মোড আছে, যা সেট করে রাখলে বিরক্তি আসবে না। সেটিংসে গিয়ে সাউন্ডস সেটিংসে এ ফিচার চালু করতে পারেন অথবা সাইলেন্ট মুড ও ব্যবহার করতে পারেন ভলিউম কি ব্যবহার করে।

ফোনে ব্যবহার করুন স্ক্রিন লক

স্মার্টফোনে টাচ স্ক্রিন ডিসপ্লে থাকায় পকেটে থাকলেও অনেক সময় কল চলে যেতে পারে। বার বার পাওয়ার অন অফ বাটন চেপে ফোন লক করলেও ঐ বাটনের জন্য ক্ষতি। তাই স্ক্রিন লক অপশন ব্যবহার করতে পারেন। ফোনে না থাকলেও গুগল প্লে সেন্টারে এ ধরণের অ্যাপস রয়েছে অনেকগুলো। ডাউনলোড করে ব্যবহার করা শুরু করে দিন।

শুভ হোক আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের সাথে পথচলা ।

 

এই জাতীয় আরো টিউন

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × four =