স্মার্টফোনের নেশা থেকে মুক্তির জন্য কিছু কার্যকরী টিপস

0
209

আজকালকার তরুন প্রজন্মের এক বিশাল অংশ স্মার্টফোনের নেশায় এডিক্টেড। এটা নিয়ে হয়ত আপনাদের বিস্তারিত কিছু বলে সময় নষ্ট করার প্রয়োজন নেই। তাই সোজা কথায় চলে যাই, কিভাবে এই নেশা থেকে মুক্তি পেতে পারেন শুধুমাত্র ফোন চার্জিং এর বেপারে নিজের একটা কমিটমেন্ট করে।

আপনি নিজের কাছে একটা কমিটমেন্ট করুন যে আপনার ফোন দিনে এক বারের বেশি চার্জ দিবেননা।

  • ২৪ ঘন্টার সাইকেলে একবারই শুধু চার্জ দিবেন
  • এবং ফোন চার্জে দেওয়া অবস্থায় ফোনে হাত দিবেননা, যদিনা জরুরী কোনো কল এসে পড়ে। অন্য কোনো কাজ করুন ঐ টাইমে। ফোনের কথা ভুলে যান চার্জিং এর টাইমে।
  • যখন চার্জ দিবেন, একবারে ফুল চার্জ দিয়েই নিন।
  • ধরে নিন ফোনে ১০০% চার্জ হবার পর আগামি ২৪ ঘন্টা এলাকায় বিদ্যুৎ আসবেনা, সেই হিসেব করে আগামি ২৪ ঘন্টা ফোন ইউজ করুন। যত যাই হোক, আগামি ২৪ ঘন্টার আগে ফোনে চার্জ দিতে পারবেননা, সেই কমিটমেন্ট করে সেই হিসাব করে ফোন চালান।
  • আর ফোন চার্জ দেওার জন্য দিনে বা রাতের যেকোনো একটা নির্দিষ্ট সময় ফিক্স করে রাখুন, সেই সময়ের আগে আপনি ফোনে চার্জ দিতে পারবেননা। যখন দরকার তখনি চার্জে দিতে পারবেননা ঐ ফিক্সড সময় ছাড়া।
Advertisement

 

এভাবে ফোনে চার্জ দেওয়ার বেপারে আর চার্জ খরচ করার বেপারে একটু কিপ্টামি করলেই আপনি কয়েকদিনের ভেতর বুঝতে পারবেন আপনার স্মার্টফোনের নেশা কমে যাচ্ছে। আর স্মার্টফোনের নেশার সাথেই কিন্তু আপনার সোশাল মিডিয়া, চ্যাটিং এপ্লিকেশন গুলোর ইউজেস নির্ভর করবে। যখন আপনি চার্জ সংরক্ষনের বেপারে নিজের করা কমিটমেন্ট স্ট্রিক্টলি ফলো করতে পারবেন, তখন ওগুলোর ইউজেসও আপনাকে হিসাব করে করতে হবে।

যেহেতু স্মার্টফোন যারা রেগুলার ইউজ করেন, ইন্টারনেট ইউজ করেন, তাদের ১ দিনের বেশি চার্জ থাকার কথা নয়। অন্তত বেশিরভাগ ফোনের বেপারে এটা সত্য। সেদিক দিয়ে এই চার্জিং আর চার্জ ইউজেস এর নিয়ম আপনার ফোন ইউজেসের উপর প্রভাব ফেলবে।

COC পাপিদের বেপারে এই পোস্ট প্রযোজ্য নয়।  

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

seventeen − one =