বিক্রি হয়ে যাচ্ছে ইয়াহু  FavoriteLoadingবুকমার্ক

দিন দিন শুধু লোকসান বাড়ছেই ইয়াহুর। কর্মী ছাঁটাই, বিভিন্ন শাখা বন্ধ ও প্রধান নির্বাহী পরিবর্তন করেও কোনো সুফল আসেনি। নানাভাবে চেষ্টা করেও ইয়াহু ইনকরপোরেশনকে লাভজনক করা যাচ্ছে না। তাই শেষ পরিণতি হিসেবে মালিকানা হাতবদল হতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির।

এরই মধ্যে ১০ ক্রেতার সংক্ষিপ্ত তালিকা তৈরি করেছে ইয়াহু। এসব ক্রেতার মধ্যে নিলামে যাঁরা সর্বোচ্চ দাম দেবেন, তাঁরাই হবেন ইয়াহুর মালিক। শুধু ইয়াহু ইনকরপোরেশন নয়, বিক্রি হচ্ছে ইয়াহুর অন্তর্ভুক্ত ভেরিজন কমিউনিকেশন্স ইনকরপোরেশন ও ইন্টারনেট সেবাভিত্তিক ইয়াহুর অন্যান্য সম্পদ। এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

Yahoo+Users+Hacked+Through+Unpatched+Flash+Vulnerabilities বিক্রি হয়ে যাচ্ছে ইয়াহু

নিলামের সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বিনিয়োগকারী সংস্থা যেমন রয়েছে, তেমনি রয়েছে পুঁজিবাজারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। তবে এখন পর্যন্ত এসব প্রতিষ্ঠানের পুরো তালিকা পাওয়া যায়নি।

ইয়াহুর সম্ভাব্য ক্রেতার মধ্যে রয়েছে টিপিজি ক্যাপিটাল এলপি, ওয়াইপি এলএলসি। ইয়াহুতে এখনো ১৫ শতাংশ মালিকানা রয়েছে চীনা ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলিবাবা গ্রুপ হোল্ডিং লিমিটেডের।

তবে নিলামে বিক্রির পর সেই অর্থ কে কীভাবে ভাগ করে নেবে, সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি। ইয়াহু, এর সম্ভাব্য ক্রেতা বা নিলাম প্রতিষ্ঠান কারো পক্ষ থেকেই এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য জানানো হয়নি।

অস্ট্রেলিয়ান গণমাধ্যম এবিসি নিউজ জানিয়েছে, ইয়াহু বিক্রি হওয়ার পর এর বর্তমান প্রধান নির্বাহী মারিসা মেয়ার স্বপদে থাকবেন কি না, তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

মালিকানা হস্তান্তরের এক বছরের মধ্যে যদি তাঁকে সরে যেতে হয়, তাহলে তিনি ৫৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পাবেন। মেয়ারের সঙ্গে ইয়াহুর চুক্তির ভিত্তিতে এই অর্থ পাবেন তিনি। চার বছর ধরে ইয়াহুর প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব পালন করছেন মেয়ার।

এই জাতীয় আরো টিউন

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 + 11 =