ওয়েব ব্রাউজারের জাদু !  FavoriteLoadingবুকমার্ক

আপনি দিনের বেশিরভাগ সময় ব্যয় করেন ওয়েব ব্রাউজার এর মধ্যে। কিন্তু আপনি এমন পদ্ধতিতে এটি ব্যাবহার করেন যে এটা  অযথা আপনার অনেক সময় খেয়ে ফেলে। আপনি হয়তো জানেনই না এমন কিছু ব্যাবহার আছে যা দিয়ে আপনি আপনার নষ্ট করা মূল্যবান সময়ের অধিকাংশ বাচিয়ে নিতে পারেন। এমন কিছু ট্রিক আজ আপনাদের জন্য শেয়ার করলাম।

ওয়েব ব্রাউজার এর জাদু আপনি যা জানেন নাঃ

browser-bookmarks ওয়েব ব্রাউজারের জাদু !

ফায়ারফক্স ট্যাব গ্রুপঃ

আমার ধারনা মোটামুটি ৯৯% মানুষ এই ফিচার সম্পর্কে অবগত নন। তবে এটি কতটা কাজের ব্যবহার করলেই আপনি বুজতে পারবেন। ধরুন আমি এই পোস্টটা লিখার সময় তথ্য সগ্রহ করার জন্য ৫ টা সাইট ওপেন করলাম। আবার, একটা ওয়ার্ডপ্রেস থিম খোঁজার জন্য আরও ১০ টা সাইট ওপেন করলাম। এখন আমি কিন্তু দুইটা কাজের সাইটগুলোর মধ্যে গুলিয়ে ফেলতে পারি। এমনকি থিম পছন্দ করতে গিয়ে এমন একটা থিম পছন্দ করলাম যেটা আসলে কোন থিম না। এটা একটা সাইট যেটাকে আমি এই পোষ্টের কন্টেন্ট লেখার জন্য ওপেন করেছিলাম। তাহলেই বুজেন। এইজন্য আপনি নির্দিষ্ট কাজের জন্য খোলা ট্যাব গুলো একটা গ্রুপ করে সেই গ্রুপের নাম হিসেবে ঐ কাজটা লিখে দিতে পারেন। তাহলে আবার ৫ ঘণ্টা পর কাজ শুরু করলেও কাজ এলোমেলো হয়ে আপনার সময় নষ্ট হবে না।

এই জন্য ব্রাউজার এ থাকা অবস্থায় ‘tab group ‘ নামের আইকনে ক্লিক করুন অথবা Ctrl + Shift + E চাপুন। আর যদি ট্যাব গ্রুপ আপনার টুলবারে না থাকে তাহলে customize (“Open Menu” on right side then “Customize”) এ গিয়ে প্রথমে tab group এর আইকন টুলবারে দিয়ে দিতে হবে।

 

বহুল ব্যবহৃত কিছু সাইটের জন্য শর্টকাটঃ

এমন কিছু সাইট আছে আপনি যেগুলো প্রতিদিন ব্যবহার করেন। যেমন আপনার ফেইসবুক, গুগল মেইল, টুইটার অথবা পিন্টারেস্ট। এই সাইটগুলোর শর্টকাট রেখে দিতে পারেন টাস্কবারে, তাহলে যেকোনো সময় এটি চট জলদি ওপেন করতে পারবেন। এমন কি একটু বুদ্ধি খাটিয়ে আপনি এগুলো স্টার্টআপে ও দিয়ে দিতে পারেন। যাতে আপনি উইন্ডো তে লগিন হওয়ার সাথে সাথেই এইগুলো ওপেন হয়। তবে আমি মূলত যেই কারনে সাইটের শর্টকাট ব্যবহার করি, আমার কাজের প্রয়োজনে বেশিরভাগ সময় আমার ব্রাউজারে অনেক গুলো ট্যাব খোলা থাকে। এমনকি আমি যখন বাইরে থেকে আসি তখন আমার প্রথম কাজ হয় ব্রাউজার উইন্ডো রিষ্টোর দেওয়া। তো এত ট্যাবের মাঝে আমি সবথেকে প্রয়োজনীয় ট্যাব গুলো হারিয়ে ফেলি যা আমার সবসময় প্রয়োজন। সেই জন্য আমি শর্টকাট করে রাখি যাতে এই ট্যাব গুলোর জন্য নতুন ব্রাউজার বরাদ্দ থাকে।

এখন আসেন কিভাবে আমরা এই কাজটা করতে পারি –

আপনি যদি ক্রোম ব্যবহার করে থাকেন তাহলে আপনি শর্টকাট করতে চাওয়া সাইটের ট্যাবে অবস্থানকালে মেনু ওপেন করে ‘More tools’ এ গিয়ে ‘Create application shortcuts…’ সিলেক্ট করুন। তারপর একটা পপ-আপ আসবে যেখানে আপনি সিলেক্ট করে দিতে পারবেন আপনার শর্টকাট কোথায় হবে – ডেক্সটপে, স্টার্ট মেনুতে নাকি টাস্কবারে।

আর আপনি যদি ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ব্যাবহার করে থাকেন তাহলে আপনাকে যা করতে হবে তা হল – আপনার কাংখিত সাইতে জান এবং ব্রাউজার উইন্ডো ফুল-স্ক্রিন না থাকা অবস্থায় এড্রেস বারের সাথে থাকা সাইটের লোগো টেনে নিয়ে ডেক্সটপ বা টাস্কবারে ছেড়ে দিন। বাস কাজ হয়ে যাবে।

 

পিন ট্যাব অন ব্রাউজার

পিন ট্যাব হচ্ছে সব ভাল ব্রাউজার এর একটা অসাধারন ফিচার। এইটা আমার জন্য অনেক কাজের। টাস্কবার এ যেরকম পিন করলেন ঠিক তেমনি আপনার ব্রাউজার এর মধ্যেও পিন করে রাখতে পারেন আপনার কাঙ্খিত ওয়েবসাইট। মোজিলা ফায়ারফক্স এর ক্ষেত্রে ট্যাববারে থাকা ওয়েবসাইটের ট্যাব এর উপর রাইট ক্লিক করুন এবং ‘pin tab’ এ ক্লিক করুন। ব্যাস কাজ হয়ে যাবে। অন্য সকল ব্রাউজার ও মোটামুটি একই রকম। তাই আর বললাম না।

 

ব্রাউজার সিনক্রনাইজেশন (Synchronization)

এটা বেশিরভাব ব্রাউজার এর লেটেস্ট ভার্সন এর একটা অসাধারন ফিচার। ধরুন মজিলা ফায়ারফক্স এর ক্ষেত্রেই বলি। আপনার হঠাৎ যদি উইন্ডোজ ইন্সটল করার প্রয়োজন হয় কষ্ট করে ফায়ারফক্স এর ব্যাকআপ রাখার দরকার নেই। আপনি যদি ব্রাউজার এ লগ ইন করে রাখেন এবং উইন্ডোজ ইন্সটল দেওয়ার পর আবার লগিন করে সিনক্রনাইজ করেন তাহলে কয়েক ক্লিকেই আপনি আপনার পূর্ববর্তী ফায়ারফক্স এর সকল সাইট কেস, সেভ করা পাস ওয়ার্ড, আপনার ইন্সটল করা সব এড-অন এমন কি ব্রাউজইং হিস্টরি পেয়ে যাবেন। তবে এক্ষেত্রে পূর্ববর্তী সেশন পাওয়ার জন্য আমি অনেক চেষ্টা করেও কোন উপায় পাই নি। যদি কারো জানা থাকে শেয়ার করবেন। তবে ক্রোম এর ক্ষেত্রে কিন্তু পাওয়া যায়। এমনকি আপনি ঘরে যেই কাজ গুলো অসম্পন্ন ফেলে গেছেন অফিসে গিয়ে তা পুনরায় শুরু করতে পারবেন ক্রোম রিষ্টোর করে।

 

কিছু কীবোর্ড শর্টকাট

সবশেষে আপনাদের জন্য শেয়ার করলাম কিছু কীবোর্ড শর্টকাট।

Ctrl + F : যেই ওয়েব পেইজে আছেন সেখানে বিশেষ কোন শব্দ খুজে বের করার জন্য। এটা শুদু ব্রাউজার এর জন্যই না যেকোনো ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

Ctrl + T : নতুন আরেকটি ট্যাব ওপেন করার জন্য।

Ctrl + W : বর্তমান ট্যাব বন্ধ করে দেওয়ার জন্য।

Ctrl + tab : বর্তমান ট্যাব গুলো একটার পর আরেকটাতে যাওয়ার জন্য। ধরুন আপনি এখন ১নং ট্যাব এ আছেন। এটা ব্বহার করলে আপনাকে ২নং ট্যাব এ নিয়ে যাবে তারপর যথাক্রমে ৩, ৪, ৫ এইভাবে ঘুরে আবার ১ নং ট্যাব এ আসবে। আবার আপনি যদি Ctrl + Shift + tab দেন তাহলে আপনাকে উল্টোভাবে নিয়ে যাবে। অর্থাৎ প্রথমে যদি ৫ নং ট্যাব এ থাকেন তাহলে ৪ নং এবং এইরকম যথাক্রমে ৩, ২ এবং ১।

Ctrl + D : সরাসরি ওয়েব ব্রাউজার এর এড্রেস বারে চলে যাওয়ার জন্য।

Ctrl + (+ or – ) : ওয়েব সাইট জুম দেওয়ার জন্য যদি লেখা দেখতে সমস্যা হয় বা লেখা বেশি বড় হয় তাহলে এই দুইটা ব্যবহার করতে পারেন। আবার Ctrl + 0 ছেপে জুল ক্লিয়ার করতে পারবেন।

F11 : ব্রাউজার ফুল স্ক্রিন করার জন্য।

Shift + Tab : ব্রাউজার এবং সাইটের ইন্টারেকশন গুলতে মুভ করার জন্য। এই বিষয়টা বুঝার জন্য করে দেখতে হবে নিজেকেই। এখানে ইন্টারেকশন কোন লিঙ্ক বা ফর্ম এর কোন ফিল্ড হতে পারে। অর্থাৎ যেখানে আপনি ক্লিক করে কিছু করতে পারবেন বা কোন ডাটা ইনপুট করতে পারবেন। এটি ব্রাউজার এর টুলস গুলতেো মুভ করে।

Ctrl + Enter : কোন ওয়েবসাইটের যদি হোমপেইজে জেতে চান তাহলে পুরো লিঙ্ক না লিখে শুধু মুল অংশ লিখে Ctrl + Enter চাপলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে এটির আগে ও পরে যথাক্রমে www. ও .com যুক্ত হয়ে সাইট লোড করবে। এক্ষেত্রে .net সাইত লোড করার জন্য shift + Enter এবং .org যুক্ত সাইট লোড করার জন্য Ctrl + Shift + Enter চাপতে হবে। আপনি যদি Alt + Enter চাপেন তাহলে নতুন একটি ট্যাবে এই কীওয়ার্ড এর সার্চ রেসাল্ট প্রদর্শিত হবে। এইক্ষেত্রে আপনার ডিফল্ট সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করবে।

আজ এই পর্যন্তই। আশা করি বিশয়গুলা আপনাদের কাজে লাগবে।

এই জাতীয় আরো টিউন

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

four × one =