কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে Torrent (টরেন্ট) ফাইল ডাউনলোড করবেন

0
177

টরেন্ট কি: বর্তমানে অনলাইনে ফাইল শেয়ার করার জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হলো Torrent (টরেন্ট)। এটি একটি ফাইল শেয়ারিং প্রটোকল। অন্যান্য ডাউনলোড সিস্টেম থেকে এটি অনেকটাই আলাদা। অন্যান্য ডাউনলোড সিস্টেমে যেমন ড্রপবক্স, মিডিয়াফায়ার, ওয়ানড্রাইভ ইত্যাদিতে আগেই সার্ভারে ফাইল আপলোড করে রাখা হয় পরে ডাউনলোড করার সময় ঐ সার্ভার থেকেই ডাউনলোড হয়। কিন্তু টরেন্ট (Torrent) ডাউনলোডের ক্ষেত্রে ফাইলগুলো এক ইউজারের পিসি থেকে অন্য ইউজারের পিসিতে ট্রান্সফার হয়। মানে আপনি যখন একটি ফাইল ডাউনলোড দেবেন, তখন তা অন্য কারো পিসি থেকে ডাউনলোড হবে এবং আপনার পিসি বা মোবাইলে যতটুকু ডাউনলোড হবে ততটুকুও কারো জন্য আপলোড হতে থাকবে। এভাবে P2P নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ফাইল শেয়ার হতে থাকে।

<iframe width=”420″ height=”315″ src=”https://www.youtube.com/embed/2WPKOZNXJNc” frameborder=”0″ allowfullscreen></iframe>

টরেন্ট (Torrent) ডাউনলোডের ক্ষেত্রে কিছু শব্দ; যেগুলো জানা প্রয়োজন :

Seeds: যে ফাইল আপলোড করে। এক্ষেত্রে Seeders আগে ফাইলটি ডাউনলোড করে এবং অন্যদের ডাউনলোডের জন্য আপলোডও করে।

Peer: যে একই সময়ে ফাইল ডাওনলোড ও আপলোড করে।

Leech: যে ফাইল ডাউনলোড করে এবং ডাউনলোড হয়ে গেলেই ফাইল ডিলিট করে দেয়।

Client: যে সফ্টওয়্যারের মাধ্যমে টরেন্ট (Torrent) ফাইল ডাউনলোড করা হয় তাকেই Client বলে। যেমন: uTorrent, BitTorrent ইত্যাদি

এখন কিভাবে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে টরেন্ট (Torrent) ডাউনলোড করবেন তা জানতে নিচের ভিডিওটি দেখুন

<iframe width=”420″ height=”315″ src=”https://www.youtube.com/embed/2WPKOZNXJNc” frameborder=”0″ allowfullscreen></iframe>

<iframe width=”420″ height=”315″ src=”https://www.youtube.com/embed/2WPKOZNXJNc” frameborder=”0″ allowfullscreen></iframe>

ভিডিওটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন। আর আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক এবং চ্যানেলে সাব্স্ক্রাইব করতে ভুলবেন না।

Facebook Page : www.facebook.com/techtutorbangla

একটি উত্তর ত্যাগ