ফেসবুক বা গুগলে চাকরি চান ? জেনে নিন ১০টি অদ্ভুত প্রশ্নের উত্তর

1
261

ইন্টারভিউয়ে অদ্ভুত সব প্রশ্ন করার জন্যে রীতিমতো বিখ্যাত হয়ে উঠেছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো। বিশেষ করে গুগল বা ফেসবুকের মতো প্রতিষ্ঠানের ইন্টারভিউয়ে প্রার্থীরা বিদঘুটে সব প্রশ্নের সম্মুখীন হয়েছেন।

প্রতিবছর গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লাস ডোর ফেসবুক, গুগল বা অ্যাপলের মতো টেক জায়ান্টদের ইন্টারভিউয়ের অদ্ভুত সব প্রশ্নের তালিকা তৈরি করে। এয়ারবিএনবি বা ড্রপবক্সের মতো প্রতিষ্ঠানেও এ ধরনের প্রশ্ন করা হয়।

images ফেসবুক বা গুগলে চাকরি চান ? জেনে নিন ১০টি অদ্ভুত প্রশ্নের উত্তর

এখানে দেখে নিন কিছু অদ্ভুত ও বিদঘুটে ১০টি প্রশ্নের তালিকা। এগুলো বিভিন্ন ইন্টারভিউয়ে বহু প্রার্থীকে করা হয়।

১. দিনটি ছিল কর্মক্ষেত্রে আপনার সেরা দিন। বাড়িতে ফিরে ভাবলেন, পৃথিবীর সেরা চাকরিটি পেয়েছেন আপনি। ওই দিনটিতে আপনি কি করবেন?

ফেসবুকের গ্লোবাল হেড অব রিক্রুটিং পদের প্রার্থী বাছাইয়ে প্রশ্নটি করা হয়। এর জবাবের মাধ্যমে বেরিয়ে আসবে শেয়ারিংয়ের শক্তির মাহাত্ম্য। প্রার্থী এই শক্তির প্রয়োগে মানুষের কাছে পৌঁছে দিয়ে তাদের কিভাবে আরো উন্মুক্ত করবেন তাই দেখতে চায় ফেসবুক।

২. ধরুন, ২ পেন্স এর একটি কয়েনের মধ্যে আপনি ডুবে গেলেন। আপনাকে একটি ব্লেন্ডারের মধ্যে ছুড়ে দেওয়া হলো। আপনার আকার কমানো হয়েছে কিন্তু ঘনত্ব আগের মতোই রয়েছে। আগামী ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে ব্লেন্ডারের ব্লেড ঘুরতে শুরু করলো। বাঁচতে কি করবেন?

গুগল একটি পদে চাকরিপ্রার্থীদের এ প্রশ্নটি করে। হেঁয়ালিপূর্ণ এ প্রশ্নের জবাব হবে, লাফ দিতে হবে। যেহেতু ওই কয়েনে আপনার ঘনত্ব একই আছে, কাজেই স্বাভাবিক আকারের একজন মানুষের মতোই শক্তি আছে আপনার। অর্থাৎ, এই শক্তি দিয়ে যথেষ্ট উঁচুতে লাফ দেওয়া সম্ভব। দুই পেন্সের কয়েনের মধ্যে ঢুকিয়ে প্রার্থীকে কেবল ধাঁধায় ফেলে দেওয়া হয়েছে।

৩. একজন মানুষ তার গাড়িটি ঠেলে নিয়ে গেলেন হোটেল পর্যন্ত এবং তার সৌভাগ্য হারিয়ে গেল। সেখানে কি ঘটেছিল?

গুগলের আরেকটি অদ্ভুত প্রশ্ন। এর জবাব একবারে সাধারণ, তিনি মনোপলি খেলছিলেন।

৪. জীবনের সবচেয়ে কাছের বন্ধুর সঙ্গে আলাপ করছেন। তিনি কোন বিষয়টি তুলে ধরবেন যা নিয়ে আপনার কিছু করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন?

প্রশ্নটি অ্যাপলের ইন্টারভিউয়ে করা হয়। এ প্রশ্নের মাধ্যমে যার যার ব্যক্তিগত সমস্যার কথা তুলে ধরতে বলা হয়। তাই এর জবাবে নিজের একটা বদগুণের কথা তুলে ধরাটাই বুদ্ধিমানের কাজ বলে জানায় গ্লাস ডোর।

৫. অদৃশ্য হওয়া বা ওড়া- এ দুটো সুপারপাওয়ার দেওয়া হলে আপনি কোনটি বেছে নেবেন?

প্রশ্নটি করে মাইক্রোসফট। একটি পণ্যের প্রধান পদের জন্যে প্রশ্নটি করা হয়। এটা একটা কৌশলী প্রশ্ন। কেউ অদৃশ্য হতে চাওয়ার অর্থ হলো, তিনি লজ্জিত বা কোনোকিছুতে ভীত। নিজেকে দেখাতে চান না। কিন্তু ওড়ার স্বপ্ন মানে তিনি সবার সামনে দৃশ্যমান হতে মোটেও চিন্তিত নন। অর্থাৎ এটা ভালো নেতার গুণ।

৬. ঘুম থেকে উঠে যদি দেখেন ২ হাজার ইমেইল এসেছে। কিন্তু এদের মধ্যে ৩০০টি ইমেইলের জবাব দিতে পারবেন। এ অবস্থায় কিভাবে বেছে নেবেন কোনগুলোর জবাব দেবেন?

ড্রপবক্সের ইন্টারভিউয়ে প্রশ্নটি করা হয়। বসদের পাঠানো ইমেইলগুলো ফিল্টার করার দায়িত্ব নিতে একজনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। তাকেই করা হয়েছে প্রশ্নটি।

৭. একটি বিমান দুর্ঘটনার একমাত্র বেঁচে যাওয়া মানুষটি আপনি হলে কি করবেন?

এয়ারবিএনবি এই প্রশ্নটি করে। বিশ্বস্ত অনুসন্ধানকারী পদে নিয়োগের জন্যে এ প্রশ্ন করা হয়। এর জন্যে সেরা ও মজার একটি উত্তরকে সেরা বলে মনে করে গ্লাস ডোর। জবাবটি হলো, আমি আনন্দিত যে ওইদিন বিমানে একাই ছিলাম আমি। আরেকটি গ্রহণযোগ্য উত্তর হলো, আমি আমার ফোনটি বের করবো এবং আপনাকে কল দিয়ে বলবো ফিরতে দেরি হবে।

৮. নব্বই দশকের কোন জ্যামটি আপনার সবচেয়ে প্রিয়?

স্কয়ারস্পেস নামের প্রতিষ্ঠানে এ প্রশ্ন করা হয়। মিলেনিয়াল প্রার্থীদের বৈশিষ্ট্য বুঝতে এ প্রশ্নটি কার্যকর বলে মনে করে তারা।

৯. জেফ বেজোস (আমেরিকান বিনিয়োগকারী) আপনার অফিসে এসে বললেন, সেরা আইডিয়া নিয়ে কাজ শুরু করতে আপনাকে ১ মিলিয়ন ডলার দেওয়া হবে। আপনার আইডিয়াটা কি?

আমাজন এই প্রশ্নটি করে। প্রার্থীদের সৃষ্টিশীল আইডিয়া বিষয়ে পরীক্ষা নিতেই এ প্রশ্ন করা হয়। এর সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য জবাবটি সম্পর্কে গ্লাস ডোর জানায়, আমি এখন এ বিষয়ে বলতে পারছি না, কারণ একটি ইন্টারভিউয়ে আছি। একবার চাকরিটা পেয়ে গেলেই এ বিষয়ে কথা বলা যাবে।

১০. একটি রো বোটে আছেন, যা পানিতে পূর্ণ একটি বড় ট্যাংকের মধ্যে রয়েছে। এর বোর্ডে একটি নোঙর রাখা আছে। এর শেকলটি ট্যাংকের তলায় যাওয়ার মতো যথেষ্ট দীর্ঘ। নোঙরটি ফেলা হলে ট্যাংকের পানি কি উপচে পড়বে?

সাধারণ জ্ঞানভিত্তিক প্রশ্নটি করা হয় টেসলার ইন্টারভিউয়ে। মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের পদের জন্যে এ প্রশ্ন করে তারা। এর জবাবটি হলো, পানির স্তর হ্রাস পাবে। কারণ নোঙরের ঘনত্ব পানির চেয়ে বেশি।

– See more at: http://www.kalerkantho.com/online/info-tech/2016/04/12/346805#sthash.V0cugHct.dpuf

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

three − two =