৩০ বছরের আগে পুরুষদের যে সকল কাজ করা উচিত

0
217

মানুষের জীবন ক্ষণস্থায়ী। তাই এই অল্প সময়ের মধ্যে পৃথিবীকে যতভাবে পারা যায় জেনে নেওয়া উচিত। জীবনকে উপভোগ করার জন্য সময় অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

৩০ বছর বয়সে পা রাখলে একজন মানুষ জীবনের অর্ধেকটা পথ পেরিয়ে আসে বলা যায়। জীবনের অর্ধেক পেরিয়ে এসে নিজের অর্জনের দিকে ফিরে তাকাতেই হয়। কারণ এই ফিরে তাকানোটাই আপনাকে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সাহস দেবে।

ব্যবসা, প্রযুক্তি, জীবনধারা ও বিনোদন বিষয়ক মার্কিন ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডার জানিয়েছে ৩০ বছর বয়সের মধ্যে ছেলেদের যে ১০টি কাজ অবশ্যই করা উচিত। দেখে নিন কোন কাজগুলো করা হয়েছে আর কোনগুলো বাকি আছে।

images-of-man-and-woman-in-love ৩০ বছরের আগে পুরুষদের যে সকল কাজ করা উচিত

১. নিজের নেটওয়ার্ক তৈরি করুন

৩০ বছর বয়সের মধ্যে আপনি স্কুল,কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পেরিয়ে কর্মজীবনে প্রবেশ করবেন। এই সময়ের মাধ্যমে আপনি অনেক মানুষের সাথে মিশবেন। সবার সাথে আপনার মতের মিল হবে না। তবে এর মধ্যে থেকেই নিজের পছন্দের মানুষগুলোকে নিয়ে নিজের নেটওয়ার্ক গড়ে তুলতে হবে আপনাকে। নিজের পছন্দের মানুষগুলোর সাথে সবসময় যোগাযোগ রাখুন।

২. শখ খুঁজে নিন

এই সময়ের মধ্যে জীবনে অনেক কঠিন সময় পার করে আসতে হবে আপনাকে। এর মাঝেও নিজের মধ্যে থাকা সৌখিন মানুষটাকে হারিয়ে ফেলবেন না। নিজের যা করতে ভালো লাগে সেজন্য আলাদা সময় বের করে রাখুন। নিজের শখগুলোর যত্ন নিন। নিজের ভেতরের সৃষ্টিশীলতাকে হারিয়ে যেতে দেবেন না।

৩. পরিবার, আত্মীয় ও বন্ধুদের উৎসাহ দিন

নিজের পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও বন্ধুদের সবসময় উৎসাহ দিন। কারণ আপনার বিপদের সময় তারাই আপনার পাশে এসে দাঁড়িয়েছিল এবং সবসময় তারাই আপনার পাশে থাকবে। মা-বাবাকে সময় দিন। বন্ধুদের সাথে ঘুরতে যান। প্রিয় মানুষটির সাথে থাকুন। এসব সময় আপনি কখনো আর ফিরিয়ে আনতে পারবেন না।

৪. সঞ্চয় করুন

অল্প উপার্জন করলেও তার মধ্যে থেকে সঞ্চয়ের প্রবণতা তৈরি করুন। আয় বাড়ার সাথে সাথে সঞ্চয়ের পরিমাণও বৃদ্ধি করুন। তরুণ বয়সে অর্থের গুরুত্ব অনেকেই বুঝতে পারে না, যারা পরবর্তী সময়ে নিজেদের এই খামখেয়ালির জন্য বিপদে পড়ে।

৫. বিদেশ থেকে ঘুরে আসুন

৩০ বছর বয়সের মধ্যে অন্তত একটি বাইরের দেশ ঘুরে আসুন। পারলে সেটা বিয়ের আগেই। ঘর-সংসারে জড়িয়ে পড়ার আগে পৃথিবীর অন্য একটি পরিবেশের সাথে পরিচিত হয়ে আসুন। নতুন একটি অভিজ্ঞতা হবে। নিজের মতো ঘুরে বেড়ান কয়েকদিন, সঙ্গে গাইড নেবেন না।

৬. প্রত্যাখ্যানকে সহজভাবে নিন

জীবনে যা চাইবেন সবসময় তা নাও পেতে পারেন। বারবার প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন। কিন্তু এভাবেই নিজেকে গড়ে তুলুন। সাফল্য পেতে হলে প্রত্যাখ্যাত হতে হবে। প্রত্যাখ্যানকে সহজভাবে নিতে শিখুন। আবার চেষ্টা করুন, নতুন কোনো লক্ষ্য নিয়ে এগিয়ে যান। পৃথিবীর সব সফল মানুষই সফল হওয়ার আগে ব্যর্থ হয়েছেন।

৭. স্বাস্থ্যকর অভ্যাস গড়ে তুলুন

‘স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল’- কথাটা মনে রাখবেন। বয়স কম থাকতেই কিছু ভালো অভ্যাস গড়ে তুলুন এবং তা মেনে চলুন। নিয়মিত খেলাধুলা করার চেষ্টা করুন, স্বাস্থ্যকর খাবার খান।

৮. নিজের অপছন্দের কোনো কাজ করুন

হয়তো কোনো জিনিস সম্পর্কে আপনার আগ্রহ নেই, তাই কখনো সেটা চেষ্টা করে দেখেননি। এই বোকামি করবেন না। অন্তত একবার নিজের অপছন্দের বিষয়গুলো চেষ্টা করে দেখুন। আগ্রহ জন্মাতেও পারে। আর ভালো না লাগলে সেটা আর দ্বিতীয়বার চেষ্টা করার দরকার নেই। মঞ্চ নাটক দেখতে যেতে পারেন, ধ্যান করতে পারেন- এমন কিছু করুন যা আগে কখনো করেননি।

৯. রান্নাটা শিখে ফেলুন

এটা খুব কাজে দেবে। একা একা থাকতে হলে তো রান্না শিখে নেওয়ার কোনো বিকল্প নেই। আর নিজে রান্না করাটা শিখলে সামনে অনেক উপকার পাবেন। অন্যের ভরসায় আর না খেয়ে থাকতে হবে না।

১০. একা ভ্রমণ করুন

প্রচুর ভ্রমণ করুন। ছাত্রজীবন থেকেই শুরু করুন। বন্ধুদের সঙ্গে তো ঘুরতে যাবেনই। কখনো কখনো একদম একা ঘুরতে চলে যান। এই অভিজ্ঞতা অমূল্য।

LEAVE A REPLY

4 + ten =