ডিজিটাল যুগের ডিজিটাল মোনালিসা

0
162

এত দিন কেবল রহস্যে ঘেরা স্থির হাসি দিয়ে দর্শকদের অভিভূত করে এসেছেন কালজয়ী শিল্পী লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির মোনালিসা। কিন্ত এখন মোনালিসা দর্শকদের দিকে তাকিয়ে ঠোঁট বাঁকাবেন। ভ্রূকুটিও করবেন।

W6IhQ1zRLKA ডিজিটাল যুগের ডিজিটাল মোনালিসা

ডিজিটাল যুগের এ ডিজিটাল মোনালিসার দিকে তাকিয়ে থাকলে তিনি কখনো মাথা নাড়াবেন, ঠোঁট বাঁকাবেন, আপনাদের দিকে তাকিয়ে ভ্রূকুটি করবেন। আর এত কিছু যখন করবেন, তখন নিঃশ্বাসও নেবেন ডিজিটাল মোনালিসা। তাঁর দিকে সরাসরি দৃষ্টি নিক্ষেপ করলে তিনি রহস্যময় হাসিটা ঠোঁটে ঝুলিয়ে দেবেন। তবে মোনালিসার যদি মনে হয়, আপনি তাঁকে ঠিক পছন্দ করছেন না তখন তিনি মুখ তো ফিরিয়ে নেবেনই। এর ওপর তাঁর চারপাশ ঢেকে দেবেন অন্ধকারে।
চমৎকার এ মোনালিসার কারিগর হলেন ‘লিভিং মোনালিসা’ প্রকল্পের ৪০ জন শিল্পী ও প্রযুক্তিবিদ। ফ্রান্সে এ প্রকল্প ‘লিভিং জোকন্দে’ নামে পরিচিত। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে কম্পিউটারে তাঁরা তৈরি করেছেন ডিজিটাল মোনালিসা। এ ধারণার জন্ম যার মাথায় সেই ফ্লোরঁত আজিওমানোফ জানান, বাণিজ্যিকভাবে নয়, প্রাথমিকভাবে তাঁরা এ প্রকল্পকে শৈল্পিক দৃষ্টিকোণ থেকেই নিয়েছেন। তবে সবার জন্য ডিজিটাল মোনালিসা সুলভ করতেও তাঁরা আগ্রহী। এ জন্য বিভিন্ন আকারের মোনালিসা তৈরি করা হবে। এমনকি লকেটের ভেতরেও মোনালিসাকে নিয়ে ঘুরতে পারবেন আগ্রহীরা। পর্যটকরা মোনালিসাকে সঙ্গে করে নিয়ে যেতে পারবেন স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে। থাকছে স্মার্টফোনেও ডিজিটাল মোনালিসার কান্ড উপভোগ করার ব্যবস্থা।

LEAVE A REPLY

6 + eighteen =