বুকের দুধের প্রোটিন থেকে তৈরি হল নতুন এন্টিবায়োটিক  FavoriteLoadingবুকমার্ক

বুকের দুধ থেকে নতুন এক এন্টিবায়োটিক উদ্ভাবন করেছেন বিজ্ঞানীরা, যা ‘এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী’ হয়ে ওঠা জীবাণুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বড় ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে। যুক্তরাজ্যের টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল ফিজিক্যাল ল্যাবরেটরি ও ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের গবেষকদের উদ্ভাবিত এই এন্টিবায়োটিক কোষীয় রূপান্তরের কারণে সৃষ্ট রক্তশূন্যতার চিকিৎসায়ও সহায়ক হবে।
রয়্যাল সোসাইটি অব কেমিস্ট্রির জার্নালে প্রকাশিত এক নিবন্ধে বলা হয়েছে, মায়ের দুধে থাকা ল্যাকটোফেরিন নামের একটি প্রোটিন নবজাতককে বিভিন্ন জীবাণুর সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেয়। ওই প্রোটিনের মাধ্যমে গবেষকরা একটি ক্যাপসুল তৈরি করেছেন, যা ভাইরাসের মতো কাজ করে। এই ক্যাপসুল নির্দিষ্ট কিছু ব্যাকটেরিয়াকে চিহ্নিত করে সেগুলোকে ধ্বংস করতে পারে অন্য কোষের ক্ষতি না করেই।

54cb245f5f38e_-_antibiotic-alternatives-01-1213-de বুকের দুধের প্রোটিন থেকে তৈরি হল নতুন এন্টিবায়োটিক

গবেষক দলের সদস্য হাসান আল কাশেমকে উদ্ধৃত করে ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস টাইমসের খবরে বলা হয়, ক্যাপসুলের কার্যকারিতা দেখতে তারা অ্যাটমিক মাইক্রোস্কোপসহ বিশেষ একটি প্ল্যাটফরম ব্যবহার করেন। আমাদের লক্ষ্য কেবল ক্যাপসুল ছিল না, ব্যাকটেরিয়ার ঝিল্লি বা পর্দার ওপর এই ক্যাপসুল কী মাত্রায় আক্রমণ করে তাও আমরা দেখতে চেয়েছিলাম। পরীক্ষার ফলাফল হয়েছে দুর্দান্ত। এটি বুলেটের বেগে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার ঝিল্লিতে আক্রমণ শানিয়েছে।
গবেষকরা দেখতে পান, এই প্রোটিন ক্যাপসুল ব্যাকটেরিয়ার জৈব কাঠামোকে এমনভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে, যার ফলে সেটি আর ওষুধ প্রতিরোধী হয়ে উঠতে পারে না। আর এ কারণেই সাধারণ এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে ওঠা ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও ছত্রাক নিরাময়ে গবেষকরা নতুন আশার আলো দেখতে পাচ্ছেন।
প্রচলিত এন্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে ওঠা এ ধরনের ব্যাকটেরিয়াকে বলা হচ্ছে ‘সুপার বাগ’। প্রতিবছর সুপার বাগের সংক্রমণে পৃথিবীতে ৭ লাখ মানুষের মৃত্যু ঘটছে।

এই জাতীয় আরো টিউন

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

two × 5 =