আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ব্যাটারি চার্য দিন দিন কমে যাচ্ছে? এখনি ঠিক করে নিন  FavoriteLoadingবুকমার্ক

বেশিরভাগ স্মার্টফোনেই ব্যাটারির চার্যের সমস্যা ফেস করতে হয়। অতি দ্রুত চার্য শেষ হয়ে যায়, যার কারনে ঘন ঘন চার্য দিতে হয়। নতুন ব্যাটারি কিনলেও অনেকসময় দেখা যায় চার্যের ব্যাকআপ অনেক কম দিচ্ছে। ব্যাটারির সমস্যা থেকে পরিত্রান পাওয়ার উপায় জানার জন্য অনেকেই আমাদের ম্যাসেজ দিয়ে থাকে। তাই ব্যাটারির একটা দিকের সমাধান করবো।

সাধারণত ব্যাটারি যে কম্পানির বা যে ধাতু দিয়ে তৈরি হোক না কেন, সব ব্যাটারির ক্ষেত্রে ধ্রুব সত্য হল বানানোর দিন থেকে এর চার্জ ধারণ ক্ষমতা দিনদিন কমতে থাকে, সেটা সামান্য হলেও। কিন্তু মোবাইল সিস্টেম মনে করে এটা কখনই পরিবর্তিত হয়না তাই একই এলগরিদম ব্যবহার করে চার্জের
পরিমাণ দেখায়। এতে মোবাইলের ব্যাটারির চার্জ অনেক তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যায়, আর শেষ না হলেও অ্যান্ড্রয়েড ভুল বুঝে নিজে নিজে মোবাইন বন্ধ করে দেয়। তাই আজকে আমরা ব্যাটারী ক্যালিব্রেশন করে প্যাচ আপ করাবো!

index2 আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ব্যাটারি চার্য দিন দিন কমে যাচ্ছে? এখনি ঠিক করে নিন

ব্যাটারী ক্যালিব্রেশন কি?

সাধারণত ব্যাটারীর চার্জ ১০০% থেকে শেষ করতে করতে ০% এ এনে তারপর একটানা চার্জে দিয়ে ১০০% করাকে ব্যাটারী ক্যালিব্রেশন বলে।

তবে অ্যান্ড্রয়েডের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা সামান্য ভিন্ন। অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেমে ‘Battery Stats’ নামে একটা ফাইল থাকে সেটা ব্যাটারির বর্তমান অবস্থা সহ যাবতীয় তথ্য রাখে। কিন্তু এই ফাইলটা
করাপ্টেড হয়ে গেলে হঠাৎ করে ব্যাটারির চার্জ কমে যায় (যেমনঃ ৫০% থেকে ঠুস করে ২৬% এ) অথবা ০% এ আসার আগেই বন্ধ হয়ে যায়। অথবা ফোনে ৬০% চার্য আছে, ফোন রিবুট দিলেই দেখলেন ১% চার্য। যে উপায়ে এই করাপ্টেড ফাইলের তথ্যগুলো ঠিক করা হয় তাকে ব্যাটারি ক্যালিব্রেশন বলে।

কখন করবেন?

কিছু না হলেও ব্যাটারি তিন মাস পর পর ক্যালিব্রেশন করানো উচিত, এটা ম্যানুফ্যাচারারেরাই বলে।

ননরুটেড ডিভাইস কিভাবে করবেন?

১ স্টেপঃ আপনার ডিভাইস চালু অবস্থাই চার্যারের সাথে কানেক্ট করুন এবং ১০০% চার্জ করে নিন।
১০০% চার্য হওয়ার পরেও ১ঘন্টা চার্যারের সাথে কানেক্ট কারুন।

২ স্টেপঃ ডিভাইস চার্জার থেকে বিচ্ছিন্ন করে সাথে সাথে পাওয়ার অফ বা বন্ধ করুন

৩ স্টেপঃ ডিভাইস বন্ধ অবস্থায় ১ ঘণ্টা চার্জে সংযুক্ত রাখুন।

৪ স্টেপঃ চার্জার যুক্ত অবস্থায় ডিভাইস পাওয়ার অন বা চালু করুন এবং এক ঘণ্টা চার্জে সংযুক্ত রাখুন।

৫ স্টেপঃ ডিভাইস চার্জার থেকে বিচ্ছিন্ন করে সাথে সাথে পাওয়ার অফ বা বন্ধ করুন।

৬ স্টেপঃ ডিভাইস বন্ধ অবস্থায় এক ঘণ্টা চার্জে সংযুক্ত রাখুন।

৭ স্টেপঃ চার্জার খুলে ফেলুন এবং চার্জ ০% না
হওয়া পর্যন্ত ব্যবহার করতে থাকুন।

৮ স্টেপঃ মোবাইল বন্ধ হয়ে গেলে চার্জার কানেক্ট করুন এবং এক টানা চার্জ দিয়ে ১০০% করুন।

৪ স্টেপঃ অন করুন এবং কাজ শেষ! ক্যালিব্রেশন সম্পন্ন হয়ে গেছে।
এখন আপনার ডিভাইস ব্যাটারি সম্পর্কে ভালো ধারনা পাবে।

রুটেড অ্যান্ড্রয়েডের ডিভাইস কিভাবে করবেন?

রুটেড ডিভাইসের জন্য ৩টি পদ্ধতি দেয়া হল। সবগুলো প্রসেসের জন্যই নিচের Battery Calibration অ্যাপটি লাগবে।

প্রথম পদ্ধতি

images আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ব্যাটারি চার্য দিন দিন কমে যাচ্ছে? এখনি ঠিক করে নিন

১ স্টেপঃ উপরের লিংক থেকে Battery Calibration অ্যাপ ডাউনলোড করুন

২ স্টেপঃ মোবাইল চার্যারের সাথে কানেক্ট করুন এবং ১০০% চার্জ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

৩ স্টেপঃ অ্যাপটি চালু করে রুট পারমিশন দিন।

images1 আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ব্যাটারি চার্য দিন দিন কমে যাচ্ছে? এখনি ঠিক করে নিন

৪ স্টেপঃ ব্যাটারি চার্য ১০০% হওয়ার সাথে সাথে Battery Calibration বাটনে ক্লিক করুন

৫ স্টেপঃ ডিভাইস চার্যার থেকে বিচ্ছিন্ন করুন।

৪ স্টেপঃ এবার ০% না হওয়া পর্যন্ত একটানা
ব্যবহার করুন।

৫ স্টেপঃ ডিভাইস বন্ধ হয়ে গেলে ১০০% একটানা চার্জ দিন, অন করুন, কাজ শেষ!

দ্বিতীয় পদ্ধতি

আগের পদ্ধতিতে আপনি যদি ভালো ফলাফল না পান তাহলে দ্বিতীয় পদ্ধতি ট্রাই করুন। এই পদ্ধতিতে আপনার ডিভাইসে কার্যকর একটা রিকভারি থাকতে হবে। আপনাকে আগে জানতে হবে

[*] রিকভারি কি?

১ স্টেপঃ ডিভাইস রিকভারি মুডে বুট করে Advanced > wipe battery stats করুন।

২ স্টেপঃ এখন ব্যাটারি সম্পূর্ণ শেষ করে ডিভাইস বন্ধ অবস্থায় ফুল চার্জ দিতে হবে (চার্জ অবস্থায় সংযোগ বিচ্ছিন করা যাবেনা, তাই বিদ্যুৎ সংযোগ
নিশ্চিত করুন)

৩ স্টেপঃ চার্জ ১০০% হলে চার্জার থেকে বিচ্ছিন্ন না করে ডিভাইস চালু করুন এবং উপরের
অ্যাপটি চালু করুন “Battery Calibration” বাটনে ক্লিক করুন।

৪ স্টেপঃ কিছু সময় পরে “battery calibration has been succeeded” বার্তা দেখাবে এবার OK বাটনে ক্লিক করে ডিভাইস থেকে চার্জার। বিচ্ছিন্ন করে অ্যাপটি বন্ধ করে দিন। কাজ শেষ!

তৃতীয় পদ্ধতি

১ স্টেপঃ ES File Explorer বা অন্য কোন
ফাইল ম্যানেজার যা Root directories ব্যাবহার করতে পারে এরকম ফাইল ম্যানেজার চালু করুন।

২ স্টেপঃ “/data/system” ফোল্ডারে গিয়ে “batterystats.bin” ফাইলটি খুঁজে বের করুন।

৩ স্টেপঃ ফাইলটি ডিলিট করে দিন

৪। ডিভাইস রিবুট করে ব্যাটারি সম্পূর্ণ শেষ হওয়া পর্যন্ত ব্যবহার করতে থাকুন।

৫। ডিভাইস বন্ধ হয়ে গেলে বন্ধ অবস্থায় ফুল চার্জ
দিন। চার্জ অবস্থায় সংযোগ বিচ্ছিন করা যাবেনা, তাই বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করুন।

৬ স্টেপঃ চার্জ ১০০% হলে চার্জার থেকে বিচ্ছিন্ন না করে ডিভাইস চালু করুন এবং উপরের অ্যাপটি চালু করুন “Battery Calibration” বাটনে ক্লিক করুন।

৭ স্টেপঃ কিছু সময় পরে “battery calibration has been succeeded” বার্তা দেখাবে এবার OK বাটনে ক্লিক করে ডিভাইস থেকে চার্জার বিচ্ছিন্ন করে অ্যাপটি বন্ধ করে দিন। কাজ শেষ!

সতর্কতাঃ

[*] সবকিছু স্টেপ বাই স্টেপ করবেন। তা না হলে ব্যাটারির ব্যাকআপ আরো ড্যামেজ হয়ে যাবে। [*] ব্যাটারি ড্যামেজ হওয়ার মেইন কারন ফোন চার্যে লাগিয়ে ব্যবহার। তাই ফোন চার্যে লাগিয়ে কখনো ব্যবহার করবেন না। [*] সবসময় একটানা ১০০% চার্য দেয়ার চেষ্টা করবেন। [*] ফোন off করে চার্য দেয়ার চেষ্টা করবেন।

Related posts

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

2 × 2 =