নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।

1
273
আসসালামু আলাইকুম ।
কেমন আছেন সবাই?
অনেকদিন পর তাইতো?? হ্যাঁ ভাইয়া বাসায় ব্রডব্যান্ড লাইন না থাকলে যা হয় আর কি :) নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
আজকের টপিক এর হেডিং টা দেখেছেন নিশ্চয় ?
এই টিউন টি আসলে এক ভাইয়ার রিকুয়েস্ট এ লেখা :) নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা । খুব বায়না ধরেছিল অমি যেন নেটওয়ার্ক প্রটোকল নিয়ে বেসিকভাবে কিছু লিখি। আর এদিকে আমাদের সবার পরিচিত শ্রদ্ধেয় “দেলোয়ার আলম” ভাইয়া ইনবক্সে বকাবকি শুরু করে দিয়েছেন যে অমি কেন ফোরামে কোন টপিক লিখছি না , আসলে নিজের দক্ষতা এবং জ্ঞানের পরিধি কিছুটা কম হওয়াতে অনেক কিছুই লেখা হয় না।
কম্পিউটার নেটওয়ার্কিং নিয়ে জ্ঞানের পরিধি খুব স্বল্প থাকা স্বত্তেও আজ সাহস করে দু-চারটে লাইন লিখতে বসেছি তো চলুন শুরু করা যাক কথা না বাড়িয়ে :) নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
***************************************************************নেওয়ার্ক প্রটোকল (NETWORK PROTOCOL)***************************************************************
এক কম্পিউটার থেকে অপর কম্পিউটারে বা এক নেটওয়ার্ক থেকে অপর নেটওয়ার্কে Communication করতে হলে,কতো গুলো সুনির্দিষ্ট নিয়ম-নইটি মেনে চলতে হয়। এই সকল নিয়ম-নীতি কে নেটওয়ার্কিং এর ভাষায় প্রোটোকল (network protocol) বলে।
Network Protocol সমূহ যথা-
*TCP
*IP
*IPX/SPX
*NetBEUI
*HTTP
*FTP ইত্যাদি ।
আমরা আজ শুধু টি,সি,পি/আই,পি (TCP/IP) নিয়ে আলোচনা করব ইনশাল্লাহ :) নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
****************************************************************************টি,সি,পি/আই,পি TCP/IP:*****************************************************************************
TCP- Transmission Control Protocol এবং IP-INternet Protocol মূলত একই ধরনের কাজ করে। TCP/IP , নেটওয়ার্ক ভুক্ত কম্পিউটার সমূহকে বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস যেমন- Remote LOgin,File Transfer,e-mail,Data আদান প্রদান ইত্যাদি সুযোগ সুবিধা প্রদান করে থাকে।
*আই,পি ঠিকানা (IP address):
নেটওয়ার্ক ভুক্ত এক কম্পিউটার থেকে অপর কম্পিউটারে যোগাযোগ করতে হলে,প্রথমে প্রয়োজন কাংখিত কম্পিউটারের একটি ঠিকানা। নেটওয়ার্কের আওতা ভুক্ত সকল কম্পিউটারের একটি করে নির্দিষ্ট ঠিকানা থাকে,আর এই ঠিকানা IP adress বলে। IP address dot (.) দ্বারা চারটি অংশে বিভক্ত।
উদাহরণ হিসেবে বাইনারি ফরমেট এ একটি আই,পি এড্রেসঃ 11000000,10101000.00000000.00000001
কিন্তু এত বড় IP address মনে রাখা বা ব্যাবহার করা কঠিন তাই একে দিসিমেল ফরমেট এ লিখা হয়। যেমন- উপরোক্ত বাইনারি ফরমেটের IP address -টির দিসিমেল হবে,
                                                                        *192.168.0.1
*****IP address এর শ্রেণীবিভাগঃ
নেটওয়ার্কের আকার,গঠন,ও অবস্থান অনুসারে উপযুক্ত ক্লাসের IP address ব্যাবহার করতে হয়।
IP address  কে পাঁচ শ্রেণীতে ভাগ করা হয়েছে। যথা-
                        *Class A
                        *Class B
                        *Class C
                        *Class D
                        *Class E
***IP Class সমূহের সীমা (Range Of IP Class):
*Class A              Range 0.0.0.0      to   127.0.0.0    [Subnet mask 225.0.0.0]
*Class B              Range 128.0.0.0  to   191.0.0.0    [Subnet mask 225.255.0.0]
*Class C              Range 192.0.0.0  to   223.0.0.0    [Subnet mask 255.255.255.0]
*Class D              Range 224.0.0.0  to   239.0.0.0    [ Reserve ]
*Class E              Range  240.0.0.0  to  255.0.0.0    [ Reserve ]
***প্রাইভেট  IP Address:
লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কে Non-Routable কিছু IP Address ব্যাবহার করা হয়, যে গুলো ইন্টারনেট দ্বারা Access করা যায় না । প্রাইভেট IP Address গুলো হচ্ছে,
*Class A            Range       10.0.0.0       to   10.255.255.255
*Class B            Range       172.16.0.0   to    172.31.255.255
*Class C            Range       192.168.0.0 to    192.168.255.255
আই,পি-র সুবিধা (Advantage of IP):
*Ethernet cable networking.
*Fiber-optic cable networking.
*Satellite Communication.
*Radio Link.
*এবং অন্যান্য physical media দ্বারা Communication set-up করার জন্য IP ব্যাবহার করা হয়।
*****এবার আসি সকেটস (Socket) কী ?
TCP/IP Network-এ  computer to computer বা অন্যান্য Host এর সাথে Communication করতে হলে প্রথমে প্রয়োজন কাঙ্ক্ষিত কম্পিউটারের IP এবং ঐ কম্পিউটারের Port number ।
Socket হচ্ছে  IP Adress এবং Port Number এর সমন্বয়ে গঠিত।
****Port Number::::
IP হচ্ছে নেটওয়ার্ক ভুক্ত কোন কম্পিউটারের ঠিকানা,ও অপর দিকে Port হচ্ছে ঐ কম্পিউটারের নির্দিষ্ট Application এর ভারচুয়াল ঠিকানা।
উদাহরণ স্বরূপ>>>>
যদি কোন ক্লায়েন্ট পিসি,সারভারের সাথে ফাইল শেয়ারিং করে তবে প্রোটোকল হিসেবে TCP/IP এবং পোর্ট নম্বর 20-21 ব্যাবহার করবে।
অর্থাৎ  File Transfer Protocol এর জন্য  ২০-২১ Port Number নির্দিষ্ট করা  থাকে যা অমি আগেই বলেছি :) নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
***এবার চলুন দেখে আসই গুরুত্বপূর্ণ কিছু পোর্ট নাম্বার এবং এদের প্রয়োগ>>>>>>>>>>>>>>
নিচের চিত্রটি লক্ষ্য করুন………
নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
আজ এ পর্যন্তই রইলো হয়তো  আগামী দিন দেখা হবে নতুন কিছু নিয়ে ।
আপনাদের দোয়া এবং অভাবনীয় সাপোর্ট এ আমার এতদূর আসা এবং অমি ঐ মানুষটার কাছে শ্রদ্ধাভরে কৃতজ্ঞতা জানায় যার অক্লান্ত গাইডেন্সি তে আমার এতদূর আসা।
সে মানুষটির নাম একবার উচ্চারণ না করলেই নয় আমার ভাইঃ “””””””Delwar Alam”””””””” :heart: নেটওয়ার্ক প্রোটোকল কী? নেটওয়ার্ক প্রটোকল এর শ্রেণীবিভাগ এবং বিস্তারিত আলোচনা ।
আল্লাহ হাফেজ।

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ