পে পার ডাউনলোড মাধ্যমে প্রতিদিন আয় করুন ২৫ থেকে ২৫০ ডলার

0
627

প্রাথমিক কথা

বন্ধুরা, আজকে আপনাদের কে এমন একটি অনলাইন আয়ের কথা বলবো যা থেকে খুব সহজেই তেমন কোনো পরিশ্রম ছাড়াই মোটামুটি ভালো টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এখানে তেমন কোনো পরিশ্রম করা লাগবে না। দরকার নেই কোনো বিষয়ে এক্সপার্ট হওয়ার। আপনি যদি ফেসবুকের মতো সাইটে ছবি আপলোড করতে পারেন তাহলেই আপনি এই সাইটের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। কীভাবে?

সতর্কীকরণ!!! অবশ্যই অবশ্যই নিজের আপলোডকৃত ফাইল নিজেই ডাউনলোড করা যাবে না। যতো চালাকিই করুন না কেন আপনার একাউন্ট ব্যান হবেই হবে! সুতরাং সাবধান!!! নিজের কাছে সৎ থাকুন।

আপনি এই সাইটে ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করবেন। তারপর তাদের সাইটে বিভিন্ন ফাইল: যেমন- ছবি, ছোট সফটওয়্যার, ভিডিও ইত্যাদি আপলোড করবেন। আপলোডকৃত ফাইল আবার আপনিই বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দেবেন। এই লিংক থেকে আপনার ফাইলটি কেউ ডাউনলোপ করলে প্রতিবার ডাউনলোডের জন্য আপনি ১ ডলার থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত পাবেন। এই জন্যই অনলাইন আয়ের এই মাধ্যমকে বলা হয় পে পার ডাউনলোড বা পিপিডি।

তো বলুন, এটা কি সহজ কাজ নয়? তারপরও যদি আপনার কাছে কঠিন মনে হয় তাহলে এই লেখা আপনি না পড়াই ভালো। শুধুমাত্র আগ্রহীরাই আসুন নিম্নে এই সাইটের ব্যাপারে জেনে নিই। এই সাইটের নাম শেয়ার ক্যাশ।

শেয়ার ক্যাশ কী?

শেয়ার ক্যাশ হচ্ছে একটি পিপিডি ওয়েবসাইট। অর্থাৎ এখানে যদি আপনি ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করে বিভিন্ন ফাইল আপলোড করার পর তা অন্য কেউ ডাউনলোড করে তাহলে প্রতিবার ডাউনলোডের জন্য আপনি পেমেন্ট পাবেন।

কেন শেয়ার ক্যাশ?

পিপিডি বা পে পার ডাউনলোড টাইপ সাইট অনেক আছে। কিন্তু আমার কাছে এটাই বেস্ট মনে হয়েছে তাই এটা নিয়ে লিখছি। তাছাড়া আমি এখান থেকে প্রথমবার পেমেন্ট পাওয়ার পর নিশ্চিত হয়ে আপনাদের জানাচ্ছি। এবং ভবিষ্যতেও ভালো ইনকাম করার ইচ্ছে আছে এই সাইট থেকে। আশা করি বুঝতে পারছেন এই নিশ্চয়তার কারণেই আপনাদের এর সম্পর্কে জানাচ্ছি।

কীভাবে শেয়ার ক্যাশ-এর একাউন্ট পাবো?

যে কেউ ফ্রিতে শেয়ার ক্যাশ-এর মেম্বার হতে পারবেন। শেয়ার ক্যাশ রেজিস্ট্রেশন-এর জন্য এখানে ক্লিক করুন। পরিপূর্ণ তথ্য প্রদান করে রেজিস্ট্রেশন ফরমটি পুরন করুন। তারপর মেম্বার হয়ে যান।

Capture sharecash পে পার ডাউনলোড মাধ্যমে প্রতিদিন আয় করুন ২৫ থেকে ২৫০ ডলার

 

কীভাবে ফাইল আপলোড করবো?

লগিন করার পর বামদিকে এডমিন মেনুগুলো পাবেন। “ফাইলস” মেনুতে ক্লিক করে “আপলোড ফাইলস”-এ যান। “এড” বাটনে ক্লিক করে ফাইল সিলেক্ট করুন তারপর আপলোড-এ ক্লিক করলে আপলোড হতে থাকবে।
এছাড়াও এফটিপি মাধ্যমেও ফাইল আপলোড করা যায়। তবে একটা ব্যাপার মনে রাখবেন- আপনি নিম্নোক্ত ধরণের ফাইল আপলোড এবং প্রমোট করতে পারবেন না। যদি করেন তাহলে আপনার একাউন্ট চিরতরে সাসপেন্ড হয়ে যাবে। আপনি যে ধরণের ফাইল আপলোড করতে পারবেন না সেগুলো হচ্ছে-

  • এডাল্ট-রিলেটেডে ফাইল
  • যেকোনো ধরণের পর্নোগ্রাফি ফাইল
  • কোনো পর্নোগ্রাফি সাইটের পাসওয়ার্ড বা এই টাইপের কিছু
  • নগ্ন ছবি বা অর্ধ-নগ্ন ছবি বা এই টাইপের কিছু
  • সাজেস্টিভ ছবি বা ভিডিও
  • কোনো এডাল্ট বা পর্নোগ্রাফি সাইটের লিংক সমৃদ্ধ ফাইল
  • এবং যেকোনো ধরণের এডাল্ট তা যা-ই হোক!

আপলোডকৃত ফাইলের লিংক

আপনার ফাইলটি আপলোড করার পর ঐ ফাইলের লিংকটি আপনার পেতে হবে মার্কেটিং করার জন্য। সেজন্য “ফাইলস” মেনু থেকে “ম্যানেজ ফাইলস”-এ যান। সেখানে আপনার আপলোডকৃত সবগুলো ফাইলের নাম এবং থাম্বনেইল দেখতে পাবেন। যে ফাইলটার লিংক পেতে চান সেটার উপর মাউসের রাইট বাটন ক্লিক করে “গেট ইনফো”-তে ক্লিক করলে ফাইলের লিংকটি পাবেন। ঐ ফাইলের জন্য ঐ লিংকটা আপনি প্রমোট করবেন। অর্থাৎ ঐ লিংক থেকে ঐ ফাইলটা যতো জন ডাউনলোড করবে ঠিক ততোবার আপনি টাকা পাবেন।

কীভাবে শেয়ার ক্যাশের টাকা পাবেন?

শেয়ার ক্যাশের টাকা একাধিক মাধ্যমে পাওয়া যায়। আমি পেওনিয়ার ব্যবহার করি। মাত্র ২০ ডলার জমা হলেই আপনি পেওনিয়ারে উইথড্র দিতে পারবেন। পেওনিয়ার যদি না থাকে তাহলে আজই বোনাস ২৫ ডলারসহ একটি ফ্রি পেওনিয়ার মাস্টারকার্ড নিন অথবা আপনি পেইজা বা পেপাল এর মাধ্যমেও টাকা পেতে পারেন।

 

সতর্কতা

অবশ্যই নিজের ফাইল নিজে ডাউনলোড করবেন না। আপনি যত চালাকি-ই করুন না কেন শেয়ার ক্যাশ আপনাকে ধরে ফেলতে পারবে এবং আপনার একাউন্ট চিরতরে ব্যান করে দেবে। তবে আপনি আপনার বন্ধুদের লিংক দিতে পারে ডাউনলোড করার জন্য। কিংবা আপনার ফেসবুকে স্ট্যাটাস আকারে দিতে পারেন। টুইটারে প্রমোট করতে পারেন। এরকম অনেক অনেক মাধ্যম আছে। জাস্ট খুঁজে বের করে মার্কেটিং শুরু করুন আর আয় করুন এখন থেকেই।

বেস্ট অব লাক!

animated-thank-you-image-0078 পে পার ডাউনলোড মাধ্যমে প্রতিদিন আয় করুন ২৫ থেকে ২৫০ ডলার

একটি উত্তর ত্যাগ