ফাংশন শিখুন সহজভাবে পি এইচ পিতে

0
395

আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন? আল্লাহর রহমতে ভালো আছেন অবশ্যই। আমরা কমবেশী সবাই পিএইচপি সম্পর্কে জানি। আসলে পিএইপি কি? এটা কিভাবে কাজ করে? ইত্যাদি হাজারো প্রশ্ন। আমার আজকের এই পোষ্টটা সম্পূর্ণ নতুনদের জন্য। আমরা আমার ফাংশন নিয়ে আলোচনা করবো। পিএইচ পি তে ফাংশন আমার কাছে কঠিন লাগতো । আমি চেষ্টা করে দেখি কতটা সহজ করে বুঝাতে পারি সবাইকে।

ফাংশন কি ?

ফাংশন হছে কিছু স্টেটমেন্ট এর সমষ্টি যেখানে আপনি অনেক গুলো কাজ করার নির্দেশ দিতে পারবেন এবং প্রয়োজন অনুযায়ী শুধুমাত্র সেই ফাংশন  টাকে কল করে পুরো কাজ তা করে নিতে পারবেন। যতবার ইছা। বিভিন্ন প্রোগ্রামের বিল্টইন ফাংশন সমূহ একজন প্রোগ্রামার শুধুমাত্র সরাসরি কল করেই ব্যবহার করতে পারেন, এতে করে প্রোগ্রামিং অনেক সহজ হয়ে এসেছে। আমরা খুব সহজেই অল্প সময়ের মধ্যেই এই সকল বিল্ট ইন ফাংশন সমূহের কার্যকারীতা এবং ব্যবহার পদ্ধতি জেনে দক্ষ প্রোগ্রামার হয়ে উঠতে পারছি। এছাড়া একজন দক্ষ প্রোগ্রামার এর বিশেষ বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পায় প্রোগ্রামের মধ্যে প্রয়োজনীয় ইউজার ডিফাইন্ড ফাংশন তৈরি এবং তার সঠিক প্রয়োগের উপর। ধরুন আপনাকে সপ্তাহে প্রতিদিন কোননা কোন ১০ টি কাজ করতে হবে কিন্তু প্রতিদিন  ক্যালেন্ডার এর পাতাই ১০ টি করে কাজের নাম লিখলে ভাল লাগবে না। তখন আপনি কাজ গুলোর নাম অন্য জায়গায় লিখলেন এবং তার একটা নাম দিলেন। আপনি “কাজ”নামে একটা ফাংশন করলেন এই কাজের ভিতর ১০ টা কাজ রাখলেন এখন “পড়া” নামে আরেকটা ফাংশন করলেন যার ভিতর কখন কখন পড়বেন তা লিখলেন। এখন এত গুলা কাজ তো ক্যালেন্ডারের ছোট্ট ঘরে লিখা জাবেনা তাইনা ? এখন আপনি যেদিন যেদিন এই রুটিন মানতে চান ওই দিন কেলেন্ডারের ঘরে “কাজ” এবং “পড়া” লিখলেই বুঝবেন আজকের রুটিন কি। কত্ত সহজ না!!!

ফাংশন লিখার নিয়ম ১ :

function sokal()

{

echo “বই পড়া”;

echo “</br>”;

echo ” ঘুরতে যাওয়া”;

echo “</br>”;

echo ” আড্ডা দেওয়া”;

echo “</br>”;

echo “ কম্পিউটারে গেমস খেলা”;

}

আমরা এখানে সকাল নামে একটা ফংশন করেছি । লক্ষ্য করুন ফাংশন লিখার নিয়ম হছে প্রথমে function কথাটা লিখতে হবে তারপর আপনি যে নামে ফাংশন করবেন তার নাম লিখতে হবে আর এই নাম ধরেই তাকে ডাকতে হবে । এরপর প্রথম বন্ধনি দিতে হবে এরপর দিতীয় বন্ধনির ভিতর আপনি কি কি করতে চান তা দিতে হবে।

ধরুন আপনার আগামীকাল অনেক কাজ সকালে ৫ টা কাজ বিকালে ৩ টা কাজ রাতে ২ টা মিটিং তাই সব কাজের শিডুইল আজ ক্যালেন্ডারে লিখতে যেয়ে জাগা হছে না !!! আবার অন্য জায়গায় লিখলেও তা ভুলে যাবার সম্ভাবনা আছে। তখন আপনার কাজ গুলো একটা খাতাই ফংশনের আকারে লিখলেন আর নাম দিলেন “সকাল” এভাবে বিকাল এবং রাত নামে ফংশন করলেন এবং ফাংশন গুলোর নাম কেলেন্ডারে লিখলেন ।

এখন ক্যালেন্ডারে দুপুর কিংবা বিকাল অথবা রাত কথাটা দেখলেই আপনার খাতার কথা মনে পরবে আর আপনি খাতা দেখে কাজ গুলো দেখে নিতে পারবেন ফলে ক্যালেন্ডারে জায়ইগার অভাব ও হলনা আবার শিডুইল টাও মিস হলনা । আবার একই কাজ অন্য দিন থাকলে ওইদিন শুধু ক্যালেন্ডারে ফাংশন এর নাম লিখলেই হয়ে গেল মানে কোন ঝামেলা নাই। আপনার কাজ কে অনেক সহজ এবং ছোট করে দিয়েছে । এভাবে ক্যালেন্ডারে যে ফাংশন লিখছেন তার মানে কিন্তু আপনি ফাংশনকে কল করছেন

ফাংশন কে কল করার নিওমঃ

যে ফাংশন কে কল করবেন তার নাম লিখতে হবে তারপর প্রথম বন্ধনি দিতে হবে। ধরুন আমরা সকাল ফাংশন টাকে কল করব, সকাল ফাংশন টাকে কল করার জন্য আমাদের লিখতে হবে :

sokal();

উপরের লাইন লিখলে আমরা আউটপুট দেখতে পাব :

বই পড়া

ঘুরতে যাওয়া

আড্ডা দেওয়া

কম্পিউটারে গেমস খেলা

একটা জিনিস লক্ষ্য করুন ব্রাউজারে এ যা কিছু দেখাছে তার সবটাই কিন্তু ফাংশন এর ভিতর দেওয়া আছে । অথ্াৎ আপনি যখন কোন ফাংশন কে কল করবেন তখন সেই ফাংশন এর ভিতর যা যা করতে বলবেন সে তাই করবে । এখানে sokal(); ফাংশন টার ভিতর দেওয়া ছিল রান্না করা, কলেজ যাওয়া, আড্ডা দেওয়া, কম্পিউটারে গেমস খেলা ফলে sokal ফাংশন টাকে কল করলে ওই কাজ গুলো দেখাছে । আপনি অন্য যেকোন কাজ দিতে পারেন যেমন কন্ডিশনাল কাজ,লুপ এর কাজ ,ফরম ভ্যালিডেশন ইত্তাদি । এটাতে সুবিধা হয় আপনার কাজ দেখতে সুন্দর লাগে এবং কাজের পরিমান অনেক কমে যাই । ভালো প্রগ্রাম্মার হতে গেলে ফাংশন এর কোন বিকল্প নাই সেটা যেকোন প্রোগ্রামিং ভাষা হতে পারে ।

এভাবে যতবার যতযায়গাই sokal(); লিখব ততবার সকাল নামে ফাংশন টা কাজ করবে।

ফংশন লিখার নিয়ম ২ :

function jogKora($value1,$value2)

{

$result = $value1 + $value2;

return $result;

}

এখানে আমরা যুক্তি গুলো নিয়ে কাজ করব । এখানে return নামে নতুন একটা বিষয় যুক্ত হয়েছে। $result = $value1 + $value2; এর মাধ্যমে ভ্যালু ১ এবং ভ্যালু ২ কে যোগ করা হয়েছে এবং যোগফল $result এ সংরখন করা হয়েছে । এখন return $result; এর মাধমে $result এর মান $value1,$value2 কে রিপ্লেস করবে। লিখার নিওম জানা হল এবার সহজ করে বুঝার চেস্টা করি ।

মনে করুন আমরা ৫ এবং ১০ এর যোগ করব jogKora এই ফাংশনের মাধমে। তাই আমাদের jogKora ফাংশন টাকে কল করতে হবে । কল করতে লিখতে হবে:

echo jogKora(5,10);

এখন ব্রাউজার এ যোগফল দেখাবে ১৫ ।

  • function jogKora($value1,$value2) এর মাধ্যমে তৈরিকৃত ফাংশনের নাম jogKora দেয়া হয়েছে , ($value1,$value2) দ্বারা ফাংশনের দুটি আরগুমেন্ট নির্দেশ করা হয়েছে।
  • $result = $value1 + $value2; এর মাধ্যমে আরগুমেন্ট হিসেবে গৃহীত ভেরিয়েবল দুটিকে যোগ করে $result ভেরিয়েবলের মান হিসেবে সংরক্ষণ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
  • return $result; এর মাধ্যমে $result ভেরিয়েবলের ভ্যালু রিটার্ন করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
  • echo jogKora (5,10); এর মাধ্যমে দুটি আর্গুমেন্ট 5 এবং 10 ইনপুট করে jogKora() ফাংশনটিকে কল করা হয়েছে। ফলে ব্রাউজারে 5+10=15 অর্থাৎ 15 প্রদর্শিত হবে। যা $result ভেরিয়েবল এর রিটার্ন ভ্যলু।

আপনি এই ফাংশন ব্যবহার করে প্রোগ্রাম কে ছোট এবং সুন্দর করতে পারবেন ফলে আপনার কোড বুঝতে সহজ হবে ।

কোন সমস্যা হলে জানাবেন। আজ প্রথম পিএইচপি নিয়ে লিখলাম ভুল হলে ক্ষমা করবেন । ভাল লাগলে জানাবেন আবার নতুন কিছু দেওয়ার চেস্টা করব। ফেসবুকঃ বিডি টেকনোলোজি ট্রিক্স

একটি উত্তর ত্যাগ