ফেসবুকের ভবিষ্যৎ

0
259

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক বর্তমানে যেমন আছে ভবিষ্যতেও কি তেমনই থাকবে, নাকি বদলে যাবে তার উত্তর দিয়েছেন এর প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারাবার্গ নিজেই। খবর পিসি ওয়ার্ল্ড

জাকারাবার্গের মতে, ভবিষ্যতে হয়তো আপনি যে চিন্তা করবেন ফেসবুকে সেটিই স্ট্যাটাস হিসেবে হালনাগাদ হয়ে যাবে। এই টেলিপ্যাথিই হতে পারে ফেসবুকের ভবিষ্যত।

মঙ্গলবার ফেসবুকে এক প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে টেলিপ্যাথিকেই ফেসবুকের ভবিষ্যৎ বলে উল্লেখ করেন জাকারবার্গ।

তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি একদিন আমাদের সব চিন্তা-ভাবনা প্রযুক্তির সাহায্যে একে অন্যের কাছে সরাসরি স্থানান্তর করতে পারব। কেউ কোনো কিছু চিন্তা করে সেটি শেয়ার করতে চাইলেই তার বন্ধুরা সে চিন্তাটির তৎক্ষণাৎ অভিজ্ঞতা লাভ করবেন। এ রকমই হবে ভবিষ্যতের যোগাযোগ পদ্ধতি।’

মঙ্গলবারের এই প্রশ্নোত্তর পর্বে শুধু সাধারণ ব্যবহারকারীরাই নন, অংশ নিয়েছিলেন অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিারও। সেই তালিকায় আছেন তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং ও টার্মিনেটর খ্যাত অভিনেতা আরনল্ড শোয়ার্জনেগারসহ অনেকেই।

জাকারবার্গের কাছে স্টিফেন হকিংয়ের প্রশ্ন ছিল, বেঁচে থাকতে বিজ্ঞানের কোনো প্রশ্নের সমাধান দেখে যেতে পারলে বেশি খুশি হবেন তিনি?

উত্তরে জাকারবার্গ বলেন, ‘মানুষ কীভাবে শেখে, কিভাবে দীর্ঘদিন বেঁচে থাকতে পারে ও কীভাবে সব রোগ-শোক দূর করতে পারে সেটিই জানতে চাই। এছাড়াও আমরা কাকে এবং কেন বেশি যত্ন করি, কীভাবে মানুষের সামাজিক সম্পর্ক গড়ে ওঠে এর পেছনে নিশ্চয়ই কোনো গাণিতিক সূত্র আছে কিনা আমার সেটা জানতে কৌতূহল হয়।’

অন্যদিকে জাকারবার্গ কতটা শারীরিক ব্যায়াম করেন সেটি জানতে চান আরনল্ড শোয়ার্জনেগার।

উত্তরে জাকারবার্গ জানান, ‘সপ্তাহে ৩ দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে ব্যায়াম করেন এবং পোষা কুকুরটির সঙ্গে দৌড়ান তিনি।’

একটি উত্তর ত্যাগ