স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট পিসির ব্যাটারির ব্যবহার, ব্যাটারি চার্জিং এবং এই সংক্রান্ত কিছু টিপস

0
322

ল্যাপটপ বা স্মার্টফোন চার্জ হওয়ার সময় ফেটে যাওয়া কিংবা এসব ডিভাইস থেকে বিদ্যুতায়িত হওয়ার ঘটনার কথা প্রায়শই আমরা পড়ে থাকি বিভিন্ন সংবাদপত্রে। এর অনেকগুলোই বিচ্ছিন্ন দুর্ঘটনা হলেও কিছু কিছু ঘটনা মূলত ঘটে থাকে সতর্কতার অভাবে। স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট পিসির ব্যাটারির ব্যবহার, ব্যাটারি চার্জিং এবং এই সংক্রান্ত কিছু বিষয়ে প্রয়োজনীয় সতর্কতা অনেক ধরনের দুর্ঘটনা থেকেই রক্ষা করবে আপনাকে। এই লেখায় তেমন কিছু প্রয়োজনীয় সতর্কতার কথা তুলে ধরা হয়েছে।

 বা ট্যাবলেট পিসির ব্যাটারির ব্যবহার স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট পিসির ব্যাটারির ব্যবহার, ব্যাটারি চার্জিং এবং এই সংক্রান্ত কিছু টিপস

আলাদা ডিভাইসে আলাদা চার্জার

স্মার্টফোন এবং ট্যাবলেট পিসির ক্ষেত্রে একই চার্জার অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করবেন না। এমনকি একই চার্জার অ্যাডাপ্টার সব স্মার্টফোনেও ব্যবহার করা ঠিক নয়। কারণ প্রতিটি ডিভাইসের পাওয়ার রেটিং আলাদা হতে পারে। ফলে বেশি রেটিংয়ের পাওয়ার অ্যাডাপ্টার কম রেটিংয়ের ডিভাইসে ব্যবহূত হলে তা ডিভাইসের জন্য ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই আলাদা আলাদা ডিভাইস চার্জিংয়ের জন্য আলাদা আলাদা পাওয়ার অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করুন।

চার্জে দিয়ে ফেলে রাখবেন না

স্মার্টফোন, ট্যাবলেট পিসি কিংবা ল্যাপটপ—কোনো ডিভাইসকেই চার্জিংয়ে দিয়ে রাতভর ফেলে রাখবেন না। কেবল রাত নয়, যেকোনো সময়েই আসলে দীর্ঘ সময় ধরে ডিভাইস চার্জিংয়ে রাখা নিরাপদ নয়। এতে করে ব্যাটারিতে বাড়তি তাপমাত্রা তৈরি হতে পারে এবং তা ব্যাটারির স্থায়ীত্বের ক্ষেত্রেও নেতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারে। তাই ডিভাইসকে চার্জিংয়ে রেখে দীর্ঘ সময় ফেলে রাখবেন না। ব্যাটারি পূর্ণ চার্জ হয়ে গেলে চার্জিং বন্ধ রাখুন।

প্রয়োজনে ব্যাটারি বদলান

কোনো ব্যাটারিই সারাজীবন ধরে চলবে না। নানা কারণে ব্যাটারির আয়ুষ্কাল প্রত্যাশিত আয়ুষ্কালের চাইতেও কম হতে পারে। তাই সময়মতো ব্যাটারি বদলে ফেলাটাই ভালো। যদি দেখেন যে ব্যাটারির চার্জ একটু বেশিই দ্রুত ফুরিয়ে যাচ্ছে, সেক্ষেত্রে ব্যাটারি ফুলে উঠেছে কি না, তা পরীক্ষা করুন। অনেক সময় খালি চোখেই স্পষ্ট দেখতে পারবেন যে ব্যাটারি মাঝ বরাবর ফুলে উঠেছে। খালি চোখে না দেখা গেলে ব্যাটারি খুলে কোনো সমতলে রাখুন। এরপর ব্যাটারিকে ঘুরানোর চেষ্টা করুন। ব্যাটারি মুক্তভাবে ঘুরতে থাকলে নিশ্চিত হয়ে যান যে ব্যাটারি বদলানোর সময় এসেছে।

নন-ব্র্যান্ড ব্যাটারিকে না বলুন

ব্যাটারি বদলানোর ক্ষেত্রে স্মার্টফোন বা ট্যাবলেট পিসির অনুমোদিত বিক্রেতা বা সার্ভিস সেন্টারের অনুমোদিত মডেলের ব্যাটারি ব্যবহার করুন। মূল ডিভাইস নির্মাতার তৈরি ব্যাটারির দাম একটু বেশি। এর চাইতে অনেক কম দামে বাজারে অনেক নন-ব্র্যান্ড ব্যাটারি পাওয়া গেলেও সেগুলো ব্যবহার করা নিরাপদ নয়। নিরাপত্তার মানের পরীক্ষা এসব ব্যাটারির অনেকগুলোতেই করা হয় না। তাই টাকার দিকে চিন্তা না করে বরং ডিভাইসের নিরাপত্তার দিকে খেয়াল রাখুন।

চার্জিং অবস্থায় কথা বলা নয়

স্মার্টফোন বা ট্যাব পিসি (সিম কার্ড সমর্থিত) চার্জিং অবস্থায় ফোন কল করবেন না বা ফোন কল গ্রহণ করবেন না। চার্জিং এবং ফোন কল—দুই কাজেই তাপ উত্পন্ন হয়। একইসাথে এই দুই কাজ তাই মাত্রাতিরিক্ত তাপ উত্পন্ন করলে তা বিপদের কারণ হতে পারে। তাই চার্জিং অবস্থায় কথা বলবেন না। বিশেষ প্রয়োজনে হেডফোন ব্যবহার করতে পারেন। অন্যাথায় চার্জিং শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন কিংবা চার্জিং থেকে ডিভাইস খুলে নিয়ে কথা বলুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

6 + seventeen =