ল্যাপটপ এবং কম্পিউটার এর এরর ম্যাসেজ গুলো কেন দেখায়? কিভাবে সমাধান করবেন? পর্ব ৩

0
273

প্রতিদিনের এরর

সাধারণ ফিক্স : প্রতিদিনের অনেক এরর ফিক্স করা যায় উইন্ডোজ বিল্ট-ইন ডায়াগনস্টিক এবং ট্রাবলশুটিং টুল ব্যবহার করে অথবা মাইক্রোসফট ফিক্স ইট সলিউশন সেন্টার ওয়েবসাইট থেকে।

মনে রাখা দরকার, সব অস্বাভাবিক মেসেজই এরর নয়। যেমন, উইন্ডোজ ফায়ারওয়াল অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে খুব সহজেই আমাদের কাজ সম্পন্ন করতে পারি। তবে যদি কোনো প্রোগ্রামের দরকার হয় ইন্টারনেট সংযোগের, তাহলে এক মেসেজ আবির্ভূত হবে এবং জানতে চাইবে আপনি এটি ব্লক করবেন কি না।

যদি প্রোগ্রামটি এ মুহূর্তে ইনস্টল করা হয়েছে বা চালু করা হয়েছে, তাহলে এটি জেনুইন রিকোয়েস্ট হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। সুতরাং আপনার উচিত হবে Allow access (বা এক্সপির ক্ষেত্রে Unblock)-এ ক্লিক করা। তবে সব সময় ডায়ালগ বক্সে উল্লেখ করা নাম ভালো করে চেক করা উচিত।

অনলাইন এরর

ওয়েব ব্রাউজার হলো এরর মেসেজের জন্য এক চমৎকার সোর্স বা উৎস। বেশিরভাগ ব্যবহারকারীই মুখোমুখি হন ‘Internet Explorer cannot display the web page’ এই এরর মেসেজের।

এ সমস্যা সমাধানকল্পে প্রথমে কয়েকটি ভিন্ন ভিন্ন ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন। যদি সবক্ষেত্রেই একই ফেল্যুর মেসেজ আবির্ভূত হয় তাহলে পিসি এবং রাউটার রিস্টার্ট করে দেখুন। এরপরও যদি ফেল হয়, তাহলে ইথারনেট ক্যাবল চেক করে দেখুন, যা পিসিকে রাউটারের সাথে যুক্ত করেছে আর নোটবুকের ক্ষেত্রে ওয়াইফাই সুইচকে ডাবল চেক করে দেখুন অন আছে কি না।

উইন্ডোজের বিল্ট-ইন ডায়াগনস্টিক টুল আগের মতো করে ইন্টারনেট কানেকশনের অনেক সমস্যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে সমাধান করতে পারে। আরো সহজ উপায় হলো ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার অ্যাড্রেসবারে সার্চ টার্ম টাইপ করলে এই এররের কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে। ওয়েব সার্চ করার জন্য ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার উইন্ডোতে টেক্সট টাইপ করুন।

যদি ওয়েবসাইট সক্রিয় থাকে, তবে যে পেজে এন্টার করার চেষ্টা করছেন তা অপসারণ করা হলে বা ভুল ওয়েব অ্যাড্রেস এন্টার করলে ওয়েবসাইট এবং ব্রাউজারের ওপর নির্ভর আপনি ‘Page not found’, ‘File not found’, বা The page could not be found’, ‘HTTP 404 Not found’ ইত্যাদি ধরনের মেসেজ ব্রাউজারের টাইটেলবারে বা ট্যাবে দেখতে পাবেন।

প্রোগ্রাম ইনস্টলেশন বা হার্ডওয়্যার আপগ্রেড করার পর এরর মেসেজ

যদি সিস্টেম সেটিং পরিবর্তন করার পর বা নতুন হার্ডওয়্যার বা সফটওয়্যার ইনস্টল করার পরপরই এরর মেসেজ আবির্ভূত হতে শুরু করে, তাহলে এ সমস্যার সমাধানের জন্য প্রথমে ইনস্টল করা নতুন সফটওয়্যার বা হার্ডওয়্যারকে আনইনস্টল করে দেখুন সমস্যার সমাধান হয়েছে কি না।

কী করণে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে, তা নিশ্চিত করে বুঝতে যদি না পারেন তাহলে চেষ্টা করে দেখতে পারেন System Restore টুল দিয়ে। কেননা এই টুল পার্সোনাল ডকুমেন্টের কোনো ক্ষতি বা ড্যামেজ না করে আনডু করতে পারে যেকোনো পরিবর্তনকে।

রিস্টোর পয়েন্ট স্বয়ংক্রিয়ভাবে মাঝেমধ্যে তৈরি হয়। যখন কোনো প্রোগ্রাম ড্রাইভার ইনস্টল করা হয় বা অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কিছু পরিবর্তন করা হয়, সেক্ষেত্রে ভালো হয় কোনোকিছু ইনস্টল করার আগে বা কোনো সেটিং পরিবর্তন করার আগে রিস্টোর পয়েন্ট তৈরি করে নেয়া।

এক্সপিতে Start>All Programs >Accessories-এ ক্লিক করুন। এরপর System Tools-এ ক্লিক করে System Restore-এ ক্লিক করুন। সিস্টেম রিস্টোর চালু হওয়ার পর ‘Create a new restore point’ রেডিও বাটন সিলেক্ট করে Next-এ ক্লিক করে প্রম্পট অনুসরণ করুন।

উইন্ডোজ ৭ ও ভিস্তায় উইন্ডোজ কী ও R চাপুন। এরপর কমান্ড বক্সে Sysdm.cpl টাইপ করে এন্টার চাপুন। এরপর System Protection ট্যাবে ক্লিক করে Create বাটনে ক্লিক করুন এবঙ পরবর্তী ইনস্ট্রাকশন অনুসরণ করে চালুন।

একটি উত্তর ত্যাগ