কাঠ দিয়ে তৈরি হলো কম্পিউটার চিপ

0
320

প্রযুক্তির উত্কর্ষের এই যুগে এসে আর কেবল প্রযুক্তিগত উত্কর্ষের দিকে মনোযোগী নয় প্রযুক্তিবিশ্ব। এর সাথে সাথে তারা পরিবেশবান্ধব এবং ব্যয়সাশ্রয়ী প্রযুক্তির দিকেও এখন মনোযোগী হয়ে উঠছে। তারই নতুন এক প্রমাণ দিল যুক্তরাষ্ট্রের ১৭ জন গবেষকদের একটি দল। তাদের হাত ধরে এবার কম্পিউটার চিপ তৈরি হয়েছে কাঠ থেকে। প্রচলিত অর্ধ-পরিবাহী বা সেমিকন্ডাক্টরের বদলে কাঠ দিয়ে তৈরি হওয়ায় এই চিপ অনেক বেশি পরিবেশবান্ধব হিসেবে বিবেচিত হবে বলে জানিয়েছেন এর নির্মাতা গবেষক দল। সেইসাথে এটি তৈরির ব্যয়ও হবে প্রচলিত পদ্ধতিতে তৈরি চিপের তুলনায় অনেক কম।

 দিয়ে তৈরি হলো কম্পিউটার চিপ কাঠ দিয়ে তৈরি হলো কম্পিউটার চিপ

ন্যাচার কমিউনিকেশন্স জার্নালে সম্প্রতি এই গবেষণার প্রবন্ধ প্রকাশ করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের উইনকনসিন-ম্যাডিসন বিশ্ববিদ্যালয় এবং যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের গবেষকরা জড়িত ছিলেন এই গবেষণায়। প্রকাশিত গবেষণা-প্রবন্ধে বলা হয়েছে, সাধারণ কম্পিউটার চিপের ভিত্তি স্তর বা সাবস্ট্রেট হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে সেলুলোজের একটি উপাদান। সেলুলোজের সবচেয়ে পরিচিত ব্যবহার হলো কাগজ। এই সেলুলোজ থেকে গবেষকরা তৈরি করেছেন সেলুলোজ ন্যানোফ্রাইবিল (সিএনএফ) নামের একটি উপাদান। এটি নমনীয় এবং স্বচ্ছ একটি বস্তু যা একইসাথে কঠিনও। আর কম্পিউটার চিপ হিসেবে ব্যবহার করার উপযোগী প্রয়োজনীয় বৈদ্যুতিক ধর্মও রয়েছে এতে।

সিএনএফের ওপরে এক ধরনের কৃত্রিম পলিমারের কোটিং ব্যবহার করে গবেষকরা একে ব্যবহারের উপযোগী করে তুলেছেন। এতে এর উপরিতল যেমন মসৃণ হয়ে উঠেছে, তেমনি তাপে এর প্রসারণও ঘটবে না। কোটিংয়ের পর সিএনএফ সাবস্ট্রেটের ওপর গ্যালিয়াম আর্সেনাইডের অ্যাকটিভ সেমিকন্ডাক্টর লেয়ার তৈরি করতে করতে সমর্থ হয়েছেন গবেষকরা। গ্যালিয়াম আর্সেনাইডের অ্যাকটিভ লেয়ার সমৃদ্ধ চিপগুলো বর্তমানে মোবাইল, ট্যাবলেট পিসির মতো ডিভাইসে প্রচুর পরিমাণে ব্যবহূত হয়ে থাকে। প্রচলিত পদ্ধতিতে বিভিন্ন ধরনের সেমিকন্ডাক্টর চিপে অ্যাকটিভ সেমিকন্ডাক্টর লেয়ার যে উপাদানে তৈরি হয়, সাবস্ট্রেটটিও একই উপাদানেই তৈরি হয়। কিন্তু সিএনএফ ব্যবহার করা হলে কেবল অ্যাকটিভ সেমিকন্ডাক্টর লেয়ারটি তৈরি হবে কাঙ্ক্ষিত সেমিকন্ডাক্টরে। এতে করে মূল চিপটির বেশিরভাগ অংশটিই তৈরি হবে পরিবেশবান্ধব সিএনএফে।

গবেষকরা বলছেন, এতে করে এটি গ্রিন টেকনোলজি বা পরিবেশবান্ধব প্রযুক্তির একটি অনন্য উদাহরণ হয়ে উঠবে। সিএনএফ বায়োডিগ্রেডেবল হওয়ার কারণে ছত্রাক এবং বাতাসের আর্দ্রতার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রিত উপায়ে সিএনএফকে পূর্ণাঙ্গভাবে বিয়োজ্য করা সম্ভব হবে প্রকৃতিতে। ফলে এটি থেকে পরিবেশের কোনো ক্ষতিও হবে না। আবার মূল সাবস্ট্রেটটি সিএনএফ দিয়ে তৈরি হওয়ার কারণে মূল সেমিকন্ডাক্টর উপাদানের ব্যবহার ৯৯ শতাংশ পর্যন্ত কমানো সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। আর চিপ তৈরির খরচ অ্যাপ্লিকেশনের ওপর নির্ভরশীল হলেও সাধারণভাবেই এই খরচ নেমে আসবে মাত্র কয়েক শতাংশে। ফলে সব দিক থেকেই কাঠ থেকে তৈরি এই কম্পিউটার চিপ প্রযুক্তিবিশ্বে নতুন এক দিগন্তের সূচনা করতে সমর্থ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন গবেষকরা।

একটি উত্তর ত্যাগ