ডার্ক ওয়েব ( Dark Web ) বা ইন্টারনেট এর কালো জগত

0
515

ডার্ক বা ডিপ  ওয়েব কি :
যে সকল সাইট জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত না, যেগুলোর ক্রিয়েটর বা প্রতিষ্ঠাতা রা চান না সাইট গুলো কেউ সার্চ করে খুজে পাক সেগুলো কেই ডীপ ওয়েব বলে। এটা সাধারন ভাষায়, আরেক টু ভিতরে গেলে বোঝা যায় যে সকল সাইট বা অনলাইন কনটেন্ট কে লুকিয়ে রাখা হয় সার্চ ইঞ্জিন বা আপনার আমার মত সাধারন মানুষ থেকে সেগুলোকেই ডার্ক ওয়েব বলে।

deep-web_247933 ডার্ক ওয়েব ( Dark Web ) বা ইন্টারনেট এর কালো জগত

এখানে কি হয় ?

কি হয় খুজতে যেয়ে তো আমার মাথা নষ্ট হবার যোগার হইলো ভাই। যা কিছুকে রক্ষা করা হয় কপিরাইট দিয়া সবি এখানে পাওয়া যায়। পাওয়া যায় ড্রাগস, আর্মস, এমন কি খুনি !!!!!!! আপনি ভুল শোনেন নাই, আমি ঠিক ই বলছি, একটা বিজ্ঞাপন দেখলাম একজন মুখস পড়া ব্যক্তি, হাতে একটা ভয়ানক ছোরা নিয়ে ছবি দিয়ে রাখছে, ক্যাপশন ” I Can Kill Anyone For Money” ।  আরেক বিজ্ঞাপন দেখলাম ইরাক যুদ্ধে ব্যাবহৃত শটগান ! বিক্রি করতে চাচ্ছে, তাও ওদের ভাষায় Cheap Rate এ !!!!!!!!   নানা রকম হ্যাকিং টিউটোরিয়াল, বিভিন্ন পাইরেটেড টুলস কি নাই।
থামি, আগে বুঝায় বলি ডিপ ওয়েব জিনিষ টা কি।
অনলাইনে যা কিছু আছে তার পরিমান কল্পনা করা আমার ধারনার বাইরে, এর মধ্য কিছু লিখে সার্চ করলে যতগুলো আসবে তা ঘেটে দেখতে গেলেই আমার কবছর লাগবে নিজেও জানি না। বাট মজার বিষয় হলো মোট তথ্য বা ফাইলের শতকরা ১% নাকি আমরা দেখতেছি।  বাকি ৯৯% ই লুকানো অবস্থায় থাকে। এগুলোই ডার্কওয়েবের জিনিষ পত্র আরকি।

 

 

 

এখনো বুঝেন নাই ?

ভাই রে, আপনার খাটের তলায় ইট দেয়া না লোহা দেয়া তা তো আমার জানার কথা না, সেটা তো থাকে ঢাকা, সেটারে দেখতে হলে আমারে বিছানার পর্দা ওঠাতে হবে । তেমনী ধরেন আমেরিকার একটা সাইট আছে, যেটাতে বিমান বাহিনীর বিভিন্ন মিসাইলের তথ্য, কেমনে ব্যাবহার করা হবে, কই ফেলা যাবে, এসব রাখা আছে। আমেরিকান সরকার কি চাবে যে কেউ খুজে পাক সেই তথ্য ? উহু, সেটারে রাখা হবে অন্ধকারে, বা ডার্ক ওয়েবে। বুঝছেন ?

খারাপ দিকঃ

  • বেয়াইনী জিনিষ পত্র অনেক টা খোলাখুলি ভাবেই রাখা এখানে। চিন্তা করতে পারেন অস্ত্র, বোমা বানানোর সিস্টেম, মাদক দ্রব্য সব যদি অনলাইনে কিনেই নিতে পারেন, তাহলে অবস্থা কি ভয়ানক হবে ?
  • খুব সুরক্ষিত তথ্য বা কপিরাইট প্রটেক্টেড অনেক কিছুই এখানে পাওয়া সম্ভব। কম্পানীর কিছু করার নাই, কার নামে মামলা করবে ? এটা ডিপ ওয়েব মামা।
  • ভাইরাসের ঘাটি। এখানে যারা কাজ করেন মোটামুটি সবাই খুব উচু মানের প্রোগামার, সো এদের ক্ষমতা খুবি বেশী। আপনার অজান্তে আর আপনি অসতর্ক থাকা মানে কখন আপনার পুরো কম্পিঊটার তারা নারাচারা করবে আপনি টের ই পাবেন না।
  • ধোকা রাস্তা তো পাইলাম, ঢুকবো কোন এ্যাড্রেস এ ? পরে আমাদের গর্ব “বাংলাদেশ সাইবার আর্মি ” এর এক বড় ভাই কে ফোন দিয়ে জিগেস করলাম, শুরুতে হাসলেন আমার প্রশ্ন শুনে, সাবধান থাকার পরামর্শ দিলেন, পরে জানালেন কিছু তথ্য। ডার্কওয়েবে আমাদের পরিচিত সহজ Fajlami বা Techtunes এর মত নাম গুলো ব্যাবহার করা হয় না, ব্যাবহার করা হয় না .com .net ডোমেইন । এখানের সব যেহেতু লুকিয়ে রাখা, সো আন্দাজ করে কোন সাইটে ঢোকা অসম্ভব অনেক ক্ষেত্রেই। ব্যাবহৃত হয় .onion নামে ডোমেইন, সাইট গুলোর এ্যাড্রেস হয় bnktdbea442afcujasye.onion এরকম । বুঝেন ঠ্যালা !  ( Onion মানে পেয়াজ , পেয়াজের মত অনেক আস্তরনে লুকিয়ে রাখা হয় বলে এমন নাম সম্ভবত )

দরকারী দিকঃ

  • সরকারী গোপন তথ্য রাখতে সাহায্য করে। তবে জুলিয়ান এ্যাসেঞ্জের মত কেউ যদি আপনার পেছনে লাগে তাহলেই হবে কাজ।
  • গোপনীয়তা বজায় রাখতে কোন বিকল্প নাই।
  • ওয়েবসাইট এর পেছনে যারা কাজ করেন, তারা তো জানেন ই সাইটের ব্যাকএ্যান্ড লুকানো রাখা টা কতটা জরুরী।

ভালো দিকঃ

  • চড়ম কিছু পাওয়া যায় মাঝে মাঝে। একটা হেভি seo টুল পাইলাম, এর সম্পর্কে যা যা লেখা আছে, দেখে তো পাগল হই যাবো মনে হচ্ছে।
  • যাদের শেখার আগ্রহ আছে, হ্যাকিং, প্রোগামিং, টিপস,  এ সম্পর্কে অঢেল লেখা, তাও সেরা মানের প্রোগামার দের। আপনাকে সুধু জানতে হবে কই পাওয়া যায়। বাট শুরুতে যে ধাক্কাটা খাইছি, বেশির ভাগ আর্টিকেল স্প্যানিশ ভাষায় লেখা। গুগল ট্রান্সলেটর আছে না আমাদের এখন ?
  • একটা সেকটর যা সম্পর্কে আমরা তেমন কিছুই জানি না, এত বড় যে আমাদের কল্পনার বাইরে।

 

একটি উত্তর ত্যাগ