গুগল এবার খেলনা তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে

0
286

শিশুদের নানা খেলনায় থাকবে ইন্টারনেট সংযোগ। আর সেগুলো ঘরে ব্যবহার্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তির (স্মার্ট) জিনিসপত্র নিয়ন্ত্রণ করবে। বিখ্যাত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুগল এ ধরনের খেলনা তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে। এ লক্ষ্যে তারা খেলনাগুলো তৈরির বিশেষ অধিকার বা প্যাটেন্ট নিবন্ধন করিয়েছে তিন বছরের জন্য।

 এবার খেলনা তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে গুগল এবার খেলনা তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছে

কেমন হবে এসব খেলনা? গুগল কর্তৃপক্ষ বলছে, এগুলো ঘরে উপস্থিত ব্যক্তির খেয়াল রাখবে। পাশাপাশি ইন্টারনেটযুক্ত অন্যান্য যোগাযোগযন্ত্রের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখবে। আর এসব খেলনা দেখতে অনেকটা খরগোশ ও ভালুকের পুতুলের মতো। তাদের কোনোটির কানে মাইক্রোফোন, চোখে ক্যামেরা, মুখে স্পিকার এবং ঘাড়ে মোটর লাগানো থাকবে।

খেলনা পুতুল হলেও এরা অনেক দায়িত্ব পালন করবে। যেমন: মানুষের কথা শুনবে, চোখে চোখ রাখবে এবং আগে থেকে রেকর্ড করা কথাবার্তা বলে সাড়া দেবে। পুতুলগুলো ব্লুটুথ, ওয়াইফাই ও একই ধরনের অন্যান্য প্রযুক্তির সাহায্যে তারবিহীন যোগাযোগ বজায় রাখবে কম্পিউটার, স্মার্টফোন ও অন্যান্য যন্ত্রের সঙ্গে। শিশুদের ফরমাশ অনুযায়ী তারা বিভিন্ন গান বাজিয়ে শোনাবে অথবা ভিডিও বা চলচ্চিত্র চালিয়ে দেখাতে পারবে। মোট কথা, এসব খেলনা কাজ করবে বুদ্ধিমান দূরনিয়ন্ত্রিত যন্ত্র বা রিমোট কন্ট্রোলের মতো। ঘরোয়া বিনোদন ও স্বয়ংক্রিয় সঙ্গীর ভূমিকা নেবে গুগলের এসব পুতুল। এরা ঘরের বিভিন্ন তথ্য ইন্টারনেট ও তারবিহীন অন্যান্য প্রযুক্তির মাধ্যমে তথ্য দূরের কম্পিউটারে পাঠাতে পারবে।

গুগল এ পর্যন্ত যত প্যাটেন্ট করিয়েছে, সেগুলোর মধ্যে এসব খেলনার প্যাটেন্টটি সবচেয়ে রোমাঞ্চকর বলে মনে করেন কেউ কেউ। আবার ঘরে এ ধরনের ‘জীবন্ত’ খেলনার উপস্থিতিতে ব্যক্তিগত গোপনীয়তার লঙ্ঘন হতে পারে বলে উদ্বেগও রয়েছে কারও কারও মনে। তবে গুগল জানিয়েছে, তাদের এ প্রকল্প এখনো শুরুর পর্যায়ে রয়েছে। কেবল প্যাটেন্ট করা হয়েছে। বাড়ি বাড়ি এসব খেলনা ছড়িয়ে দেওয়া বা বিক্রি করার ব্যাপারে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ