অনলাইনে মোবাইল বিক্রি করার আগে অবশ্যই আরো ২বার ভেবে দেখুন!!!

0
343

বিজ্ঞাপন চমকে মজে আপনি কি ওয়েবসাইটে মোবাইল বিক্রি করার পরিকল্পনা করছেন? উত্তর যদি ‘হ্যাঁ’ হয়, তাহলে দুই বার ভাবুন। যে মোবাইল থেকে ই-কমার্স সাইটে লগ-ইন করে যন্ত্রটি বিক্রি করতে চাইছেন, আপনার সেই স্মার্টফোন কতটা সুরক্ষিত? আদৌ সুরক্ষিত তো? তা না হলে কিন্তু আপনার সেই স্মার্টফোনের যাবতীয় গোপন তথ্য পাচার হয়ে চলে যেতে পারে হ্যাকারের হাতে।

আঁতকে উঠছেন তো? ওঠারই কথা। মুহূর্মুহূ অফারের প্রভাবে সাইটে মোবাইল বিক্রি অথবা মোবাইল বিনিময়ের মতো ঘটনা এখন এক প্রকার দৈনন্দিন জীবনের অঙ্গ। সেক্ষেত্রে আপনার মোবাইলের ‘সিকিওর ডিজিটাল কার্ড’ বা এসডি কার্ডটি যদি ভাইরাস-প্রোটেকটেড না হয়, তাহলেই সমস্যা। যে ওয়েবসাইটে আপনি মোবাইলটি বিক্রি করছেন, সেটিই যদি হ্যাকারদের ‘টার্গেট’ হয়ে থাকে, তাহলে সমূহ বিপদ। আপনার অজান্তেই ওই ওয়েবসাইট থেকে মোবাইলের একের পর এক গোপন তথ্য পাচার হয়ে যাবে হ্যাকারদের মুঠোয়।

শনিবার বিশ্ব টেলিকমিউনিকেশন দিবসের প্রাক্কালে কলকাতায় সাইবার সচেতনতা ও হ্যাকিং-বিরোধী একটি অনুষ্ঠানে এ কথা বললেন এথিক্যাল হ্যাকার সন্দীপ সেনগুপ্ত। ‘ইন্ডিয়ান স্কুল অফ এথিক্যাল হ্যাকিং’ (আইএসওইএইচ) এর সহ প্রতিষ্ঠাতা তথা অধিকর্তা সন্দীপের সতর্কবার্তা, ডেস্কটপ বা ল্যাপলট নয়, আগামী দিনে হ্যাকারদের একমাত্র টার্গেট স্মার্টফোন।আর বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট যেভাবে অ্যাপ নির্ভর হয়ে যাচ্ছে, তাতে মোবাইল ছাড়া সেই সব সাইট ব্যবহার করাই সম্ভব নয়। সেক্ষেত্রে তাই ওই মোবাইলের সুরক্ষাই সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ।

অনলাইন শপিং বা ই-কর্মাসের জনপ্রিয়তা ও চাহিদা যেভাবে উত্তরোত্তর বাড়ছে, তাতে গ্রাহকদের আরও সতর্ক হওয়া প্রয়োজন বলেই মত সাইবার বিশেষজ্ঞদের। অনলাইন ব্যাঙ্ক-জালিয়াতির মতো ই-কমার্স প্রতারণা যে কোন মুহূর্তে অগুনতি গ্রাহকের উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠতে পারে। অনলাইন শপিং বা মোবাইলের বিল জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে ‘ওয়ালেট’ ব্যবহার করে প্রতারণার ঘটনা ঘটেছে এই শহরেও।

‘পাবলিক রিলেশনস সোসাইটি অফ ইন্ডিয়া (পিআরএসআই): কলকাতা চ্যাপ্টার’ও আইএসওইএইচ এর যৌথ উদ্যোগে এদিন প্রকাশিত হয় একটি হ্যান্ডবুক ‘ইনফরমেশন সিকিওরিটি হ্যান্ডবুক, ২০১৫’। ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, মোবাইল, ওয়েবসাইট নিরাপদ রাখার ‘টিপস’ দেওয়া হয়েছে ওই হ্যান্ডবুকে। ‘ন্যাসকম’ এর রিজিওনাল হেড (ইস্ট) নিরুপম চৌধুরীর কথায়, এই বই তথ্যপ্রযুক্তির ক্ষেত্রে যেন একটি ফার্স্ট এইড বক্স। ১২ পাতার এই বইটিকে এক কথায় লাইফ সেভিং ড্রাগও বলা চলে।’

আইএসওইএইচ এর আরকে প্রতিষ্ঠাতা আবির আতর্থি বলেন, কোন গ্যাজেট কতটা অরক্ষিত, তা জানার পাশাপাশি অবশ্যই জানা উচিত কী ভাবে সেইসব যন্ত্র নিরাপদ রাখা যায়। বিভিন্ন অ্যান্টি-ভাইরাসের কথাও উল্লেখও করেন তিনি। সেই সাথে আপাত দৃষ্টিতে কোন কোন অ্যান্টি ভাইরাস কতটা বিলুপ্তির পথে, সে সম্পর্কেও সচেতন করেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ