বাংলাদেশে এপ্রিল ২০১৫ তে আসছে বিনা পয়সার ইন্টারনেট

0
587

দেশে বিনা খরচের ইন্টারনেট (জিরো ইন্টারনেট) আসছে। যে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে কোনও পয়সা খরচ হবে না। অ্যাপ বা সরাসরি দু’ভাবেই এই ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে। দেশে এ সুবিধা চালু করতে যাচ্ছে ফেসবুকের ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্প।

এরইমধ্যে প্রকল্পের কাজ অনেক দূর এগিয়েছে। মার্চ-এপ্রিল নাগাদ এ প্রকল্প চালু হতে পারে বলে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। এ প্রকল্প চালু হলে দেশে তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক সেবাগুলো বিনা ইন্টারনেট খরচে ব্যবহার করা যাবে। ফেসবুকের (ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্পের) একটি টিম এই মুহূর্তে বাংলাদেশে রয়েছে। এছাড়া ঢাকায় রয়েছেন ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্পের দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সমন্বয়কারী দিপ্তি গোরে। বিষয়টি তদারকি করছেন তিনি।

পয়সার ইন্টারনেট বাংলাদেশে এপ্রিল ২০১৫ তে আসছে বিনা পয়সার ইন্টারনেট

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, ওই টিমটি এরইমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্প, ২০টি এনজিও, দুটি জাতীয় দৈনিক, মোবাইলফোন অপারেটরসহ আরও কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কথা বলেছে। এর মধ্যে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানই বিনামূল্যে ইন্টারনেট সেবা চালুর ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বিনা পয়সার ইন্টারনেট সেবা চালুর বিষয়ে তাদেরও ইতিবাচক মনোভাব রয়েছে। ‘সরকার বিষয়টিতে রাজি’ হয়েছেন বলে জানিয়েছেন দিপ্তি গোরে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের পলিসি অ্যাডভাইজার আনীর চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমরা ফেসবুকের সঙ্গে কাজ শুরু করেছি। প্রাথমিকভাবে আমাদের ৬টি পোর্টাল নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। ওই ৬টি পোর্টাল যেন মোবাইলে সহজে দেখা যায় সেজন্য কাজ শুরু হয়েছে।’

জানা গেছে ৬টি পোর্টালের মধ্যে রয়েছে জাতীয় তথ্য বাতায়ন, সার্ভিস পোর্টাল, ন্যাশনাল ফর্মস পোর্টাল ইত্যাদি। এ ধরনের সাইটে (মোবাইল উপযোগী) বেশি ছবি থাকতে পারবে না, জাভা স্ক্রিপ্ট ব্যবহার করা যাবে না এমন অনেক শর্ত থাকে। আনীর চৌধুরী জানান, এসব কাজ শেষ হলে ইন্টারনেট ডট ওআরজির মাধ্যমে ওই ৬টি পোর্টাল মোবাইল ব্যবহারকারীরা বিনা খরচে ব্যবহার করতে পারবেন।

আনীর চৌধুরী আরও বলেন, যারা এ ধরনের সেবা দেবে সেই মোবাইলফোন অপারেটর এবং ওয়াইম্যাক্স সেবা দাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে ফেসবুক র্কর্তৃপক্ষ যোগাযোগ করছেন। সবাই ইতিবাচক সাড়া দেবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সূত্র আরও জানায়, মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে রবি ফেসবুকের প্রস্তাবে রাজি হয়েছে। অন্যদিকে গ্রামীণফোন জিরো উইকিপিডিয়ার ঘোষণা দিয়েছে। গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দিয়েছে, এর গ্রাহকরা উইকিমিডিয়ার সব মোবাইলসাইট কোনও ডাটা চার্জ (ইন্টারনেট খরচ) ছাড়াই ব্যবহার করতে পারবে।

এদিকে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির সাবেক এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, জিরো উইকিপিডিয়া করার জন্য দেশে এর কনটেন্টগুলো হোস্ট করলে মোবাইল অপারেটরের ওভারহেড (অতিরিক্ত ব্যয়) অনেক কমে আসবে। কনটেন্ট প্রোভাইডার মানে গুগল, ফেসবুক অনেক আগে থেকেই তাদের কনটেন্ট ‘সাবসিডাইজ’ করে আসছে।

ইন্টারনেট ডট ওআরজি অ্যাপ এবং সরাসরি দু’ভাবেই ব্যবহার করা যাবে। অ্যাপ বা সরাসরি (ইন্টারনেট ডট ওআরজিতে লগ-ইন করে) সংশ্লিষ্ট সাইটে প্রবেশ করলে সেই সাইটের বাণিজ্যিক বিষয়-আশয় (বিজ্ঞাপন) দেখা যাবে না। তবে তথ্য সম্পর্কিত সব কিছুই দেখা যাবে।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্প সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে একটি নীতিগত সিদ্ধান্তে উপনীত হয় যে, কেউ যদি ইন্টারনেট ডট ওআরজিতে লগ-ইন করে চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠানের সেবাভোগ করে, তাহলে তার কোনও ইন্টারনেট চার্জ লাগবে না। ধরা যাক, কেউ ইন্টারনেট ডট ওআরজিতে লগইন করে বিবিসি বাংলার সাইটে ঢুকলেন। এতে করে তিনি যতক্ষণ ওই সাইটে থাকবেন, নিউজ পড়বেন, ছবি দেখবেন তার জন্য কোনও ডাটা খরচ হবে না (ইন্টারনেট চার্জ কাটা যাবে না)। তবে এর আগে অবশ্যই ইন্টারনেট ডট ওআরজির সঙ্গে বিবিসি বাংলার একটি চুক্তি হতে হবে। ইন্টারনেট ডট ওআরজিতে সরাসরি না ঢুকে কেউ যদি এর অ্যাপের মাধ্যমে এটি ব্যবহার করতে চান তিনিও বিনা খরচে তা ব্যবহার করতে পারবেন।

এদিকে দেশের চার মোবাইলফোন অপারেটরের ‘জিরো ফেসবুক’ (http://0.facebook.com) সেবা চালু রয়েছে। এজন্য ফেসবুক ও মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে চুক্তিও হয়েছে। গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, এয়ারটেল ও রবি জিরো ফেসবুক সেবা দিলেও ব্রাউজার চয়েসের দিক থেকে গ্রামীণফোন জিরো ফেসবুক কিছুটা বেশি সুবিধা দিয়ে থাকে বলে মন্তব্য করেছেন একাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারী।

প্রসঙ্গত, ফেসবুকের ইন্টারনেট ডট ওআরজি প্রকল্প ফেসবুকের প্রসারে নেমেছে। এই সংস্থা ফেসবুককে আরও জনপ্রিয় করতে মোবাইলফোনের গ্রাহকদের ফেসবুক ব্যবহার করতে দেবে বিনামূল্যে। আর এ কাজে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিচ্ছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। এরই মধ্যে আফ্রিকার একাধিক ‌‌ দেশে এই সেবা চালু ক‌‌‌রেছে ফেসবুক।

সম্প্রতি দেশে অনুষ্ঠিত ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে যোগ দিতে এসেছিলেন ফেসবুকের এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের পরিচালক আঁখি দাশ। তিনি ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে বিভিন্ন পর্বে অংশ নিয়ে, সরকারের সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলোর সঙ্গে আলোচনাসহ দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করে দেশে ইন্টারনেট ডট ওআরজি সেবা চালুর বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দিয়ে গেছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here