ইংরেজি শেখার কিছু দারুন টিপস………

0
613

ইংরেজি ভাষা ভীতি দূর করার পদ্ধতি । তাই এখানে সঙ্গতকারনেই ইংরেজি ভাষা আমাদের দ্বিতীয় পছন্দ ।  এবং সাধারণত আমরা দৈনন্দিন রুটিন কাজ করার জন্য আমাদের স্থানীয় ভাষা ব্যবহার করে কথা বলতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি ।

তাছাড়া  স্কুলে এবং বাড়িতে আমরা সবসময় ইংরেজি ভাষা এড়ানোর চেষ্টা করি। এটাও সত্য যে, আমরা খোলা পরিবেশে ইংরেজি বলতে লজ্জা বোধ করি।  এখানে যারা এ লেভেল, ও লেভেল থেকে এসেছেন তাদের কথা আলাদা । আমি তাদের সঙ্গে শেয়ার করছি যারা আমার মতো চেষ্টা করে ইংরেজি শিখতে চান।

অ-ইংরেজি পরিবেশে বাস কারার দরুন; ইংরেজিতে আমাদের কমান্ড নাই। কিন্তু নিজের ইংরেজির মান  উন্নত করতে মনের মধ্যে একটি ইচ্ছা আছে।  আছে না?

ইংরেজির মান উন্নত করা দরকার কেন?

–      চাকুরীর ইন্তারভিউতে নিজেকে প্রমান করতে।

–      অদেস্কে তাৎখনিক কভার লেটার লেখার যোগ্যতা লাভ করতে।

–      প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সুফল লাভ করতে।

–      আরও অন্যান্য ।

যদিও আমাদের ইচ্ছা আছে।  কিন্তু আমরা আস্থার অভাব বোধ করি ।

এখানে আমি ইংরেজি শিখতে নিজে যে সব করি; আপনাদের তা থেকে কিছু টিপস জানাতে চাই; আপনারা  ইচ্ছা করলে শেয়ার করতে পারেন।

ইংরেজি শেখার বই কিনুন! মাফ করবেন, পণ্য কিনুন লিখতে লিখতে আমার ‘কিনুন’ টা একটু বেশি  আসে।

–      নিকটস্থ বুক   স্টল-এ ইংরেজি বই দেখুন ।

–      দারকারি বইটি কিনুন!

–      বাড়িতে  ইংরেজি  ব্যাকরণ অনুশীলন করুন।

–      ইংরেজি সংবাদপত্র পাঠ করুন ।

–      শব্দভান্ডার এবং বানানের জন্য ভোকাবুলারি বই কিনুন!

–      অনুশীলন করুন।

–      দরকারী অভিধান, সিডি / ভিসিডি সংগ্রহ করুন।

এছাড়া বই-এর জ্ঞান ছাড়াও আমি বিশেষভাবে বলবো ঃ

–      ইংরেজি সংবাদ চ্যানেল  দেখুন।

–      পড়ুন ইংরেজি নিবন্ধ (বেশি হয়ে গেল কি?) ।

–      অবশ্যই ইংরেজি সিনেমা দেখতে পারেন ।

–      আরো বেশি জানতে, যারা ​​জানে তাঁদের থেকে সাহায্য এবং টিপস নিন ।

–      অবশ্যই অবশ্যই দ্বিধা পরিত্যাগ করুন ।

যে শব্দ বা বাক্য আপনি বুঝতে না পারেন তা নোট করুন । তারপর অভিধান থেকে শব্দ, গ্রামার থেকে বাক্য খুঁজে নিন। কোচিং এর ধারেকাছে জাবেন না । হেল্প ইউরসেলফ ।

এছাড়াও আপনি ইন্টারনেট এর সাহায্যতো নিতেই পারেন।

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার হয় এমন শব্দগুলো মুখস্থ করার চেষ্টা করুন । প্রতিদিন দশ থেকে পনের টি নতুন শব্দ  শিখুন।

বন্ধু বা বান্ধবিকে কল করুন এবং তাদের সাঙ্গে ‘দরকারি কথাগুলো’ (!) ইংরেজিতে বলুন । নিজেদের মধ্যে  ইংরেজিতে দৈনিক কথোপকথন শুরু করুন।

বিষয়টি সিরিয়াসলি নিন । চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিন ।  আপনি সফল হবেন।আর একটি কথা আমার অভিজ্ঞতা থেকে বলছি কখন হার মানবেন না তা সে যেই বিপদ আসুখ না কেন।

এই হলো আপনার ইংরেজি ভাষাতে দক্ষতা অর্জনের কয়েকটি সাধারণ টিপস ।

কে বলতে পারে, আপনার নেক্সট জবটি হতে পারে একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট এর!

ভালো লাগলে কমেন্ট করতে ভুলবেন না।

 

একটি উত্তর ত্যাগ