অ্যান্ড্রয়েড রুট কি ? কেন করবেন ও কিভাবে করবেন ।

1
475

সবাইকে নমস্কার ও শুভেচ্ছা জানিয়ে আমার আজকের পোষ্ট শুরু করছি। শিরোনাম দেখে হয়ত আপনি বুঝে গেছেন যে আমি কি নিয়ে বলতে যাচ্ছি । গত ৮ মাস ধরে ফোনটা ব্যবহার করছি কিন্তু কোনদিন রুট করার সাহস পায়নি অবশ্য ৩-৪ মাস আগে একবার রুট করেছিলাম পরে আবার আনরুট করে দেই ওয়ারেন্টি হারানোর ভয়ে। তো ভাবলাম এবার রুটেড ফোনের মজা নেয়া যাক। নেমে পড়লাম মায়াজালে ৫-৬ দিন ধরে রুট করতে নিয়ে নেটে যা তথ্য পেলাম তা আপনাদের মাঝে শেয়ার করছি তাই কোন ভুল হলে ক্ষমা করে দিবেন। ফোনের পুরো মজা নিতে অ্যান্ডরয়েডের জুরি নাই আর সেই মজা কে দ্বিগুন করতে রুট অবশ্যই করা দরকার।

তো এবার আপনি প্রশ্ন করতে পারেন যে ভাই রুট কি?

রুট বলতে এক কথায় আপনার ফোনের অ্যাডমিন অ্যাকসেস পাওয়া।

এবার প্রশ্ন আসে যে আমি কেন রুট করব বা এর সুবিধা কি ?

রুট করলে আপনি অনেক সুবিধা পাবেন। যেমন – আপনার সিস্টেম ফাইল ইডিট করতে পারবেন, ফন্ট চেঞ্জ, বুট অ্যানিম্যাশন চেঞ্জ, ফোনের র্যাম বাড়াতে পারবেন, স্টক রম ব্যাকাপ, কাস্টম রম ইনস্টল, অপ্রয়োজনীয় অ্যাপ ডিলিট করে ফোনের জায়গা ও র্যাম খালি করতে পারবেন, পেইড অ্যাপ ফ্রিতে ব্যাবহার করতে পারবেন, এক কথায় আপনি ফোনের পুরো চেহারাই পাল্টে ফেলতে পারবেন।

এবার অসুবিধা কি কি ?

১/ রুট করলে আপনার ফোনের ওয়ারেন্টি হারাবেন অবশ্য আনরুট করে আবার ওয়ারেন্টি ফিরে আনা যায় “নো টেসশন”।

২/ ফোন ব্রিক হওয়ার সম্বাবনা থাকে তবে স্টক রমের ব্যাকাপ নিয়ে রাখলে ফ্ল্যাশ মেরে ঠিক করা যায়।

৩/ গুগল বা ফোনের ব্রান্ড থেকে কোন আপডেট পাবেন না।

রুট করবেন কিভাবে ?

বি: দ্র: “ফোন রুট করতে গিয়ে কোন প্রকার ক্ষয় ক্ষতির জন্য লেখক বা টেকবেঙ্গল দায়ী থাকবে না যা করবেন নিজ দ্বায়িত্তে করবেন”।

আগে ফোনের Setting–>Security–>Unknown source এ টিক দিয়ে নিন

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × 4 =