যে কারনে Blackberry ইউজ করা Must-সিকিউরিটি টিপ।

0
380

আসস্‌লামুয়ালাইকুম, আশা করি সকলে ভালো আছেন। আজকের পোস্টটি জনপ্রিয় ফোন কম্পানি Blackberry কে নিয়ে লেখা। আশা করি ভালো লাগবে।

যে কারনে Blackberry ইউজ করা Must-সিকিউরিটি টিপ।

গত কয়েক বছর ধরে আমাদের দেশে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে Android ফোন, বিশেষ করে তরুণ-তরুণীরা এটি নিয়ে অনেক মেতে উঠেছে। এর পেছনে বিশেষ কারণও রয়েছে, কারণটি মোটামুটি সবার ক্ষেত্রেই এক, আর কারণটি হল এর চমৎকার অ্যাপগুলো। তবে বলে রাখি যে এই Android ফোন ব্যাবহার করা সেইফ নয়, বরং আপনার অ্যাপগুলাই আপনার গোপন তথ্য চুরি করে নিতে পারে।

একটি উদাহরণ দিলে বুঝতে পারবেন বিষয়টি, ধরুন আপনার একটি বেশ ভালো Android OS ওয়ালা ফোন রয়েছে, ধরুন এতে একটি সফটওয়্যার রয়েছে যা আপনার ডায়াল বা রিসিভ করা কল রেকর্ড করতে পারে যেন আপনি পরে সেটি নিজের কাজের সুবিধার জন্য ব্যাবহার করতে পারেন।

কিন্তু একবার ভেবে দেখুন এর অর্থ এইযে আপনার অ্যাপটির ক্ষমতা রয়েছে আপনার আসা-যাওয়া করা কল রেকর্ড করার, যদি আপনার ফোনটি ইন্টারনেটের সাথে কানেক্টেড থাকে তবে ওই অ্যাপ পাবলিশার এর পক্ষে নিজের সারভার থেকে আপনার মোবাইলের ওই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনার মোবাইল থেকে ডায়াল বা রিসিভ করা কলে আড়িপাতা তার কাছে কোন ঘটনাই নয়, সে চাইলেই আপনার কল থেকে গোপন তথ্য জেনে নিতে পারে।

আপ্নি বলতে পারেন, অ্যাপ নির্মাতাদের আর খেয়ে-দেয়ে কোন কাজ নেই,বসে বসে আমার কল শুনবে। হ্যাঁ, আপনি ঠিক বলেছেন, বেশিরভাগ অ্যাপ নির্মাতারা এই ধরনের কাজ করে না। তবে প্লেস্টোরে হাজার হাজার অ্যাপ রয়েছে, তার মধ্যে যদি কেও হ্যাক করার উদ্দেশ্য নিয়েই এরকম একটি অ্যাপ বানায় তাহলে ব্যাপারটা একটু চিন্তার হয়ে যায়।

শুধু যে কল রেকর্ডিং অ্যাপগুলো এইরকম ক্ষমতা রাখে তা নয়, অনেক ভয়েস রেকর্ডার, ওয়েবক্যাম বা এমন কোন অ্যাপ যা আপনার ফোনে বিলট ইন হার্ডওয়্যার এর সাথে সংযোগ তৈরি করতে পারে সেগুলার মাধ্যমেই হ্যাকাররা আপনার তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে।

 Blackberry ব্যাবহারের সুবিধা

এবার আমি বলতে যাচ্ছি Blackberry ব্যাবহারের সুবিধা কি।

অনেকেই এখন বলতে পারেন Blackberry-এর কি এরকম কোন অ্যাপ নেই? উত্তরটা হল হ্যাঁ অবশ্যই আছে।  এখন আপনি ভাবতে পারেন  তাহলে Blackberry ও Android এর মধ্যে পার্থক্য কোথায়?

পার্থক্য হল এদের অপারেটিং সিস্টেমে। Android অপারেটিং সিস্টেমে যেমন তথ্য পাচার করা যায়এতে তা করা যায় না। ব্ল্যাকবেরির অপারেটিং সিস্টেম নিজেই তা ডিজেবল করে দেয় বা তথ্য ছুড়ি থেকে আপনাকে রক্ষা করে। এর এই সুবিধার কারনে অনেক  Hollywood ও Bollywood-এর স্টাররা এমনকি বড় বড় রাজনীতিবিদ্রাও  Blackberry ব্যাবহার করে থাকে। অনেক বড় বড় কোম্পানির মালিক ও ম্যানেজাররাও এটির ওপর ভরসা করে।

তাই যদি আপনি কোন বিজনেস রেলাটেড কাজ করে থাকেন তবে তার জন্য Android এর চেয়ে Blackberry-ই ভালো হবে। তবে সাধারণ যোগাযোগ ও বন্ধুবান্ধবের সাথে আলাপের জন্য অন্যান্য মোবাইল ব্যাবহার করতে পারেন।

আমার একটি ব্লগ রয়েছে, সময় হলে প্লিজ ভিজিট করবেন, অবশ্যই ভালো লাগবে।

“TechTrackNews.blogspot.com”

আরও পড়ুন-“ডাউনলোড করে নিন Big Hero 6 HD উইথ unlimited resume support.”

 

একটি উত্তর ত্যাগ