স্বাভাবিক করে নিন আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের গতি

0
464

বেশ কিছুদিন ব্যবহারের পর যে কোনো অ্যান্ড্রয়েড ফোন ও ট্যাবের গতি ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে। গতি কমা ছাড়াও অন্যান্য কমান্ড নিতে দীর্ঘ সময় নিয়ে থাকে। ডিভাইসের ভেতরে বিভিন্ন ফাইল জমে যাওয়ায় এমনটি হয়। নিচের পদক্ষেপগুলো নিয়ে স্বাভাবিক করে নিন আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের গতি-

ডিভাইসের গতি স্বাভাবিক করে নিন আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের গতি

ডেভেলপার অপশন চালু করুন : ডিভাইসের গতি বাড়াতে প্রথমে ডিভাইসের ডেভেলপার অপশন চালু করুন। এজন্য ফোনের সেটিংস অপশন থেকে অ্যাবাউট ফোনে যেতে হবে। সেখান থেকে ফোনের বিল্ড নম্বরে বারকয়েক চাপ দিতে হবে। তাহলেই ফোনের ডেভেলপার অপশন চালু হবে। এরপর বাকি কাজগুলো ধাপে ধাপে করলেই ফোনের গতি স্বাভাবিক হয়ে আসবে।

অ্যানিমেশন ঠিক করুন : ডিভাইসের গতি কমে যাওয়ার অন্যতম কারণ ফোনের অ্যানিমেশন। অতিরিক্ত অ্যানিমেশন ফোনের গতি কমিয়ে দেয়। ভালো হয় অ্যানিমেশন বন্ধ করে দিলে। এটা করার জন্য সেটিংস থেকে ডেভেলপার অপশনে ঢুকতে হবে। সেখান থেকে উইন্ডো অ্যানিমেশন স্কেল খুঁজে বের করে তা কমিয়ে দিতে হবে।

ব্রাউজার ক্যাশ পরিষ্কার করুন : অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ব্রাউজার ক্যাশ ধীরে ধীরে ফোনের গতি কমিয়ে দেয়। ফোনের গতি স্বাভাবিক রাখতে ব্রাউজারের ক্যাশ পরিষ্কার করতে হবে। ব্রাউজারের সেটিংস অপশনে ক্লিয়ার ক্যাশ অপশন থেকে সবকিছু মুছে ফেলতে হবে।

অপ্রয়োজনীয় অ্যাপস আনইন্সটল ও অকার্যকর করুন : অনেক অ্যাপস থাকে যেগুলো আমাদের প্রয়োজন পড়ে না। এসব কিন্তু ঠিকই ফোনের র‌্যাম দখল করে গতি কমিয়ে ফেলে। তাই এসব অ্যাপসকে আনইন্সটল কিংবা অকার্যকর করে দিতে হবে।

অ্যাপসের ক্যাশ ডিলিট করুন : ডিভাইসের বেসিক সেটিংস থেকে এ কাজটি করতে হবে। তবে এঙ্পার্ট না হলে কাজটি একটু শক্ত হবে। এজন্য অ্যান্ড্রয়েড অ্যাসিসট্যান্ট ব্যবহার করতে পারেন।

অ্যাপস আপডেট রাখুন : অ্যাপসগুলো আপডেট না রাখলে ফোনের গতি মন্থর হওয়ার কারণ হতে পারে এ অ্যাপসগুলো। এজন্য কোনো অ্যাপসের নতুন আপডেট এলে সে অ্যাপসটি আপডেট করার অনুমতি চাইবে। আপনার কাজ হবে অনুমতি দিয়ে দেয়া। এতে অবশ্য কিছু ইন্টারনেট ডাটা খরচ করতে হবে।

অপ্রয়োজনীয় উইজেট ডিলিট করুন : অপ্রয়োজনীয় উইজেট ও পেজগুলোও ডিলিট করতে হবে। কারণ এগুলো প্রয়োজন ছাড়াই মেমোরি দখল করে রাখে।

নতুন লঞ্চার ইন্সটল করুন : গুগল প্লে-স্টোরে অসংখ্য লঞ্চার পাওয়া যাবে। সেগুলোর মধ্যে রেটিং দেখে পছন্দমতো একটি ইন্সটল করুন। ডিভাইসের স্টক লঞ্চারের থেকে এসব লঞ্চারে তুলনামূলক বেশি গতি পাবেন। গতি বাড়ানো ছাড়া এটি দিয়ে ফোনকে নিজের মতো সাজাতে পারবেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 + 2 =