নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

2
569

নিত্যনতুন ইউনিক আইডিয়া আর সহজলভ্যতা অ্যান্ড্রয়েডকে দিয়েছে স্মার্টফোনের রাজত্ব। এই ইউনিক এবং চমৎকার অপারেটিং সিস্টেমটি অনেকেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে ব্যবহার করতে চায়। কিন্তু মজার বিষয়টি হলো গুগল এখন পর্যন্ত পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারের কোন সংস্করণ এখনো আনেনি।ওএস সেটআপ নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

 

তো এমন অবস্থায় কি করবেন? আপনার জন্য সুসংবাদ আজ আমরা আপনাকে দেখাবো কিভাবে আপনার পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ডয়েড ইন্সটল নয় বুট করবেন। অ্যান্ড্রয়েড ওএসটি পিসি কিংবা ল্যাপটপে ব্যবহারের জন্য অনেক সফটওয়্যার রয়েছে তারমধ্যে সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় হলো BlueStacks। কিন্তু আপনার জন্য একটি তথ্য এটি আপনার ডিফল্ট উইন্ডোজ ওএস এর ভেতর আলাদা একটি সফটওয়্যার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। অ্যান্ড্রয়েডের পুরো নিখাদ স্বাদ আপনি এখান থেকে পাবেন না। তার উপর এটি আপনার পিসিকে কিছুটা স্লো করে দিবে যা আপনার জন্য বিরক্তির কারণ হবে।

আরেকটি পদ্ধতি রয়েছে তা হলো VirtualBox পদ্ধতি। কিন্তু আমি বলবো আপনি যদি আপনার কোন বন্ধু থেকে এই পদ্ধতির কথা শুনে থাকেন তবে তা ত্যাগ করুন। সাধারণ উইন্ডোজ কনফিগারেশনে একে এটি অনেক ঝামেলার আর দ্বিতীয়ত একেবারেই বিরক্তিকর। এখান পর্যন্ত এসে আপনি নিশ্চয়ই হতাশ হয়ে গিয়েছেন। তবে চলুন দেখে নেওয়া যাক কিভাবে পিসি কিংবা ল্যাপটপে আপনি অ্যান্ড্রয়েড বুট দিবেন। এই পদ্ধতিতে আপনি যেভাবে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন সেভাবে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করতে পারবেন। এটি পিসি কিংবা ল্যাপটপে প্রাইমারি অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে ব্যবহার করা যাবে।ওএস সেটআপ 2 নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

 

এই পদ্ধতির সেটআপের জন্য আপনার যা যা লাগবে তা হলোঃ
[ক] একটি অ্যান্ড্রয়েড ওএস আইএসও ফাইল
[খ] একটি ডিস্ক বার্নিং সফটওয়্যার। যদি ইউএসবি থেকে সেটআপ দিতে চান তবে একটি ইউএসবি বুটেবল সফটওয়্যার।
[গ] একটি ব্ল্যাঙ্ক ডিভিডি [ যদি না আপনি ইউএসবি সেটআপ দিতে চান ]

১. প্রথমেই আপনি অ্যান্ড্রয়েডের যে সংস্করণটি সেটআপ দিতে চাচ্ছেন তার একটি আইএসও ফাইল নামিয়ে নিন। Android-x86 একটি জনপ্রিয় প্রজেক্ট যারা অ্যান্ড্রয়েডের বিভিন্ন সংস্করণের আইএসও ফাইল সরবরাহ করে থাকে। এখান থেকে আপনি একেবারে পুরাতন সংস্করণ ১.৬ ডোনাট থেকে শুরু করে নতুন সংস্করণ ৪.৪ কিটক্যাট পর্যন্ত পাবেন। আইএসও ফাইল ডাউনলোড করতে প্রবেশ করুন Android-x86ওএস সেটআপ 3 নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

 

২. এবার আপনার পছন্দের আইএসও ফাইলটি নামানোর পর এতে রাইট ক্লিক করুন। তারপর Burn disc image অপশনটি সিলেক্ট করুন। এটি উইন্ডোজের ডিফল্ট Disk image burner প্রোগ্রামটি চালু করবে। এবার আপনার blank DVDটি ডিভিডিপ্লেয়ারে প্রবেশ করান। এবার আইএসও ফাইলটিকে ডিভিডিতে কপি করে নিন। ব্যস হয়ে গেল বুটেবল ডিভিডি। তাছাড়া ইন্টারনেটে কিছু disk burning software পাওয়া যায়। তারমধ্যে একটি হলো ashampoo

এটি দিয়েও আপনি বুটেবল ডিভিডি তৈরি করতে পারবেন। কিন্তু আপনি যদি পেনড্রাইভকে বুটেবল করে সেটআপ দিতে চান তবে কিছু থার্ডপার্টি সফটওয়্যার ব্যবহার করতে হবে। ইন্টারনেটে পেনড্রাইভকে বুটেবল করার অনেক সফটওয়্যার পাবেন। তারমধ্যে একটি হলো rufus। এটি একদম ছোট একটি সফটওয়্যার মাত্র ৬১৬ কেবি। এটি ডাউনলোড করে নিন। এবার সাধারণ সফটওয়্যারের মতো পিসিতে রান করান। আপনার ডাউনলোডকৃত আইএসও ফাইল এবং পেনড্রাইভের ড্রাইভটি সিলেক্ট করে দিন। কিছুক্ষণ পর দেখবেন আপনার পেনড্রাইভটি বুটেবল পেনড্রাইভ হয়ে যাবে।

৩. বুটেবল ডিভিডি বা পেনড্রাইভ তৈরি হয়ে গেলে এবার শুরু হবে মূল কাজ। ডিভিডি বা পেনড্রাইভটি সংযোগ দিয়ে আপনার পিসি বা ল্যাপটপকে রিস্টার্ট দিন। সাধারণত F12 দিয়ে বুটমেন্যু সিলেক্ট করা হয়। বুটমেন্যু সিলেক্ট করে বুট অপশনটি নিচের চিত্রের মতো হবে। আপনি যদি অ্যান্ড্রয়েড ওএসকে আপনার পেনড্রাইভ বা ডিভিডিতে বুট করতে চান তবে প্রথম অপশনটি বেঁছে নিন আর যদি আপনার হার্ডডিস্কেই সাধারণ উইন্ডোজ ওএস এর মতো সেটআপ দিতে চান তবে সিলেক্ট করুন একেবারে নিচের অপশনটি।ওএস সেটআপ 4 নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

৪. এবার সেটআপের সাধারণ নিয়মানুসারে সেটআপ দিন। বাকি কাজটুকু আপনার পিসি বা ল্যাপটপ নিজে নিজেই করবে। আপনি শুধু বসে অপেক্ষা করবেন। কিছুক্ষণ পর আপনার পিসিতে অ্যান্ড্রয়েড সেটআপ হয়ে যাবে। এরপর আপনার গুগল আইডি দিয়ে এটি চালু করুন। ব্যস এবার ইচ্ছে মতো ব্যবহার করুন অ্যান্ড্রয়েড ওএস।ওএস সেটআপ 5 নিজে নিজেই পিসি কিংবা ল্যাপটপে অ্যান্ড্রয়েড ওএস সেটআপ করুন (টিউটোরিয়াল)

এই পদ্ধতিতে আপনি চাইলে আপনার পিসি কিংবা ল্যাপটপে ডুয়েল বুট হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ওএস ব্যবহার করতে পারেন। অর্থাৎ উইন্ডোজ এর পাশাপাশি অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করতে পারবেন। পিসি কিংবা ল্যাপটপের স্টার্টআপে সিলেক্ট করে দিবেন আপনি কোনটি চাচ্ছেন অ্যান্ড্রয়েড নাকি উইন্ডোজ।

 

সতর্কবার্তা:

বিনা অনুমতিতে দি ঢাকা টাইমস্‌ – এর কন্টেন্ট ব্যবহার আইনগত অপরাধ, যে কোন ধরনের কপি-পেস্ট কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, এবং কপিরাইট আইনে বিচার যোগ্য!

2 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ