এখনই ডটকমে কম্পিউটার সোর্সের পণ্য

1
313

ঘরে বসেই বিশ্বসেরা ব্র্যান্ডের প্রযুক্তি পণ্য ও আন্তর্জাতিক মানের সেবা দিতে ভার্চুয়াল শপ চালু করছে প্রযুক্তি পণ্য ও সেবা পরিবেশক কম্পিউটার সোর্স। দেশের অন্যতম ই-কমার্সসাইট এখনই ডট কমের সঙ্গে সম্মিলিতভাবে ভাষার মাস ১ ফেব্রুয়ারি থেকে চালু হবে এই সেবা। সোমবার বাংলাদেশে কম্পিউটার সমিতি ইনোভেশন সেন্টারে আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। এ সময় কম্পিউটার সোর্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এএইচএম মাহফুজুল আরিফ এবং এখনই ডট কম প্রধান নির্বাহী শামীম আহসান উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের সামনে একটি দ্বিপাক্ষিক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

এখনই ডটকমে থাকবে কম্পিউটার সোর্সের পণ্য এখনই ডটকমে কম্পিউটার সোর্সের পণ্য

অনুষ্ঠানে কম্পিউটার সোর্স ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহফুজুল আরিফ বলেন, ‘দেশের বিকাশমান ই-ব্যবসায় খাতকে বিকশিত করার স্বার্থে ই-কমার্স পোর্টাল এখনই ডট কমের সঙ্গী হয়ে এই ভার্চুয়াল শপটি চালু করতে যাচ্ছে। আমাদের বিশ্বাস, ক্রেতাদের প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি পণ্য ও সেবা তাদের হাতে পৌঁছে দেয়ার এই উদ্যোগ প্রকৃত অর্থেই ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ রূপকল্পকে আরো একধাপ এগিয়ে নেবে। অনলাইনে কেনাকাটায় মানুষের মধ্যে আস্থা তৈরিতে মাইলফলক হিসেবে কাজ করবে। বিসিএস অনুমোদিত পূর্ণাঙ্গ ওয়ারেন্টিসহ নির্ঝঞ্ঝাটভাবে প্রযুক্তি পণ্যও সেবা উপোভোগ করতে পারবেন।’

তিনি বলেন, ‘কৌশলগত চুক্তির ফলে এখন থেকে এখনই ডট কম থেকেই খুচরা মূল্যে কম্পিউটার সোর্স পরিবেশিত ব্র্যান্ডের অরিজিনাল ল্যাপটপ থেকে শুরু করে এন্টিভাইরাস প্রতিটি পণ্যই কিনতে পারবেন ক্রেতারা। কম্পিউটার সোর্সের ওয়েব থেকেও এখনই ডট কমের মাধ্যমে অর্ডার দেয়া যাবে। একইসঙ্গে দেশজুড়ে ৩৬টি কম্পিউটার সোর্স সার্ভিস টাচ পয়েন্টের মাধ্যমে সেবা নিতে পারবেন। অনলাইনে প্রয়োজনী কনফিগারেশন উল্লেখ করে ঘরে বসেই ক্লোন পিসি ছাড়াও অন্যান্য পণ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।’

অনুষ্ঠানে এখনই ডট কম প্রধান নির্বাহী শামীম আহসান বলেন, ‘ই-কমার্স হবে ভবিষ্যৎ ব্যাবসা ও বাণিজ্যের সর্ববৃহৎ কৌশল ও পন্থা। এই অংশীদারিত্ব বাংলাদেশের অনলাইন কেনাকাটার ধারণাকে আরো সুদৃঢ় ও শক্তিশালী করবে এবং ক্রেতারা অনলাইনে কোন ঝামেলা ছাড়াই তাদের পছন্দনীয় ইলেকট্রনিক পণ্য একই ওয়ারেন্টিসহ অর্ডার করতে পারবে যা তারা কাছের মার্কেট বা শপিং মলেই পেয়ে থাকতো।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই অংশীদারিত্ব দেশজুড়ে ক্রেতাদের দোরগোড়ায় ইলেক্ট্রনিক পণ্য সহজে ও সুবিধাজনক সময়ে পৌঁছে দিতে সহায়তা করবে যার ফলে বাংলাদেশে একটি তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক প্রজন্ম তৈরি করতে অবদান রাখবে।’

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × two =