নিয়মিত ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করছেন কিন্তু রেঙ্কিং বাড়ছে নাহ? এই টিউনটি দেখুন, হয়তো সমাধান পাবেন।

0
389

backlink1 নিয়মিত ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করছেন কিন্তু রেঙ্কিং বাড়ছে নাহ? এই টিউনটি দেখুন, হয়তো সমাধান পাবেন।

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর কথা তুললেই ব্যাকলিঙ্ক এর কথা বলা হয়। বর্তমানে গুগল মামা সহ অন্যান্য সার্চ ইঞ্জিন গুলো ব্যাকলিঙ্ক এর উপরে কড়া নজর রাখে। আপনি যদি গুগল এর প্রাইভাসি পলিসি পেজ পড়ে থাকেন তাহলে দেখাবেন তারা বলেছে – We don’t care about the quantity (পরিমান), we just care about quality. খাঁটি বাংলা ভাষাই – তারা কোন কিছুর পরিমাণ এর দিকে নজর রাখে নাহ। আপনার ব্যাকলিঙ্ক এর পরিমাণ যত বেশিই হক নাহ কেন, সেই ব্যাকলিঙ্ক গুলো ইউনিক নাহ হলে বা কুয়ালিটি খারাপ হলে তার কোন দাম থাকবে নাহ। উল্টা, আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর ক্ষতি হবে।
উন্নত কুয়ালিটি ব্যাকলিঙ্ক কি ও কি ভাবে পাবেন?
একটা সময় ছিল, অল্পকিছু ব্যাকলিঙ্ক আর কিছু আর্টিকেল থাকলেই পেজ রেঙ্ক ও সার্চ রেঙ্ক বাড়িয়ে দেওয়া যেত। বর্তমানে ঐ সব দিন নাই। আপনাকে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর জন্য রিলেভেন্ত ব্যাকলিঙ্ক (Relevant Backlink) জোগাড় করতে হবে। শুধুতাই নাহ, আপনি আপনার ইচ্ছামতো ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতেও পারবেন নাহ। নেচারাল ভাবে আপনাকে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে হবে।
রিলেভেন্ত ব্যাকলিঙ্ক (Relevant Backlink):
মনে করেন আপনার একটা ব্লগ আছে “Technology Blog”। তাহলে, আপনাকে অন্যসব Technology Blog খুজে বের করতে হবে। আপনি সার্চ করেও বের করতে পারেন অথবা কোড দিয়েও পারেন। কোডটা নিচে দেখুনঃ
“Technology News” site:.gov inurl:blog “post a comment”
উপরে “Technology News” এর জায়গাই আপনার কি ওয়ার্ড দিন। আর নিচের সব গুলোও একই ভাবে পরিবর্তন করুন।
“Technology News”” site:.edu inurl:blog “post a comment”
“Technology News”” “This blog uses premium CommentLuv”
“Technology News”” “Notify me of follow-up comments?”
এবার আপনার সব রিলেভেন্ত ব্লগ গুলো একটা এক্সেল ফাইলে লিস্ট হিসাবে সেভ করুন ও ঐ সব ব্লগ থেকে ব্লগ কমেন্ত, গেস্ত ব্লগ ইত্যাদির মাধমে ব্যাকলিঙ্ক নিন।
নেচারাল ব্যাকলিঙ্ক (Natural Backlink):
যখন আপনি ব্যাকলিঙ্ক এর আশাই যেকোন আবল-তাবল ওয়েবসাইট থেকে বা ব্লগ থেকে ব্যাকলিঙ্ক নিবেন তখন সেটা নেচারাল হবে নাহ। আপনাকে এমন ভাবে ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করতে হবে যেন, সার্চ ইঞ্জিন গুলো ভাবে সব কিছু নেচারালি হচ্ছে। অনেক ব্যাকলিঙ্ক মানে অনেক রেঙ্ক এইটা এখন আর নাই। আপনি প্রতিদিন ৭ থেকে ১০ ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করেন, তাহলে আপনি ভালো রেঙ্কিং পাবেন। তবে, অবশ্যই সকল ব্যাকলিঙ্ক নেচারাল হবে ও রিলেভেন্ত হবে।
একই দিনে, ৭০/৮০টা ব্যাকলিঙ্ক করার চেষ্টা করলে, সার্চ ইঞ্জিন গুলো বুঝবে আপনার সাইট এর কুয়ালিটি খারাপ ও আপনি সেম্প করতেছেন। আপনার ওয়েবসাইট এর রেঙ্কিং তো বাড়বেই নাহ, উল্টা কমে যাবে।
ভালো মানের ব্যাকলিঙ্ক কিভাবে পাবেন?
ভালো মানের ব্যাকলিঙ্ক পেতে হলে আপনাকে ব্লগ কমেন্ত, গেস্ট ব্লগিং, ফোরাম পোস্টিং, ডিরেক্টরি সাবমিশন করতে হবে। মাত্র এই ৪টা জিনিষ ভালোভাবে ব্যাবহার করতে পারলে আপনি ভালো মানের ব্যাকলিঙ্ক পাবেন ও সার্চ রেঙ্কিং বাড়াতে পারবেন। উপরে যেই কোডগুলো দিয়েছি আপনি সেগুলো ব্যাবহার করতে আপনার সব relevant ব্লগ গুলো গুগল ড্রাইভ বা এক্সেল ফাইলে সেভ করুন। এবার প্রতিদিন ৬টা করে ব্লগ কমেন্ত করতে পারেন। ১ দিন পরপর ১টা গেস্ট ব্লজ্ঞিং করতে পারেন ও প্রতিদিন ৩টা ফোরাম পোস্ট করতে পারেন এবং ৩টা ডিরেক্টরি সাবমিশন করতে পারেন।  ব্লগ এর আর্টিকেল কুয়ালিটি ভালো থাকলে, অনপেজ এসইও ভালোভাবে কড়া থাকলে আপনি ভালো রেঙ্কিং পেতে পারেন।
অনেকেই ভাবেন, সোশ্যাল বুকমার্ক ব্যাকলিঙ্ক এর জন্য করা হয়, কিন্তু নাহ। সোশ্যাল বুকমার্ক visibility বাড়াই মাত্র।
অনেকেই ভাবেন, ডিরেক্টরি সাবমিশন এখন আর কাজে লাগে নাহ :D নিয়মিত ব্যাকলিঙ্ক তৈরি করছেন কিন্তু রেঙ্কিং বাড়ছে নাহ? এই টিউনটি দেখুন, হয়তো সমাধান পাবেন। এটা একটা ভুল ধারনা। আপনাকে সব ব্যাকলিঙ্কই relevant করতে হবে। আপনি relevant ডিরেক্টরি গুলোতে সাবমিশন করেন তাহলেই বুঝতে পারবেন।
সবই কি relevant হতে হবে, নাহ হলে হয় নাহ?
কিছুকিছু ক্ষেত্রে, হাই রেঙ্কিং এর জন্য আমরা হাই রেঙ্কিং এর কিছু সাইট থেকে ব্যাকলিঙ্ক নিয়ে থাকি। যেমন নিচে কিছু ওয়েবসাইট দিলাম, আপনি পেজ রেঙ্ক ৯ এর ব্যাকলিঙ্কও পেতে পারেন। এই সব ক্ষেত্রে ব্যাকলিঙ্ক সম্পূর্ণ relevant নাহ হলেও চলে।

  • YouTube.com (PR9)

    • Sign in the YouTube.
    • Visit channel option
    • Edit it and add your website’s name and URL.
    • Save it and you are done.
  • Google+ (PR9)

    • Sign in the Google+.
    • Go to the About Section.
    • Edit it and add your website’s name and URL.
    • Save it and you are done.
  • Mozilla.org (PR9)

    • Sign Up for free Mozilla account.
    • Submit all the details.
    • Activate the account by clicking on the verification link in your email.
    • After activation, log in to your account and edit you profile page.
    • Add a small bio about yourself with your website’s URL.
    • That’s it and you have a dofollow backlink.
  • Adobe.com (PR9)

    • Sign up and create an account with Adobe.
    • Create a profile and enter proper data.
    • Go to Adobe Forums and post a new thread about any original looking problem along with your website’s URL.
  • TED.com (PR8)

    • Sign Up for a free account at TED.
    • Activate the account and then go to your Profile page.
    • Edit the Profile and you will find a section to insert your websites’ name and URL.
    • Enter the keywords and URL and save it.
    • Enjoy the high authority, dofollow backlink to your blog.

আশা করি, আর্টিকেলটা আপনাদের কাছে ভালো লাগবে। এসইও নিয়ে কোন সমস্যা হলে, কোন সাজেশন লাগলে আমাকে ফেসবুকে নক করতে পারেন।

একটি উত্তর ত্যাগ