গুগল আবিস্কারের আগে

0
336

ইন্টারনেটের বদৌলতে তথ্য খুঁজে পাওয়া অতটা কঠিন নয়। যা জানতে চান সেই বিষয়ের ‘কি-ওয়ার্ড’ লিখে গুগলে সার্চ দিন। একটু অপেক্ষা করুন। গুগলের তথ্য ভাণ্ডারে থাকা সব লিংকগুলো আপনাকে দেখাবে। যেটাকে যুতসই মনে হবে সেটার উপর ক্লিক করলেই পেয়ে যাবেন আপনার কাঙ্ক্ষিত তথ্য।

আবিস্কারের আগে গুগল আবিস্কারের আগে

ইন্টারনেট আবিস্কারের আগে তথ্য খোঁজা খুব কঠিন কাজ ছিল। মানুষের কোন কিছু জানার থাকলে হয়তো ঐ বিষয়ের উপর জানা-শোনা ওমন কারো কাছে যেতো। নয়তো লাইব্রেরিতে গিয়ে বই ঘেঁটে তথ্য বের করতো।

যুক্তরাষ্ট্রের ‘নিউ ইয়র্ক পাবলিক লাইব্রেরি’ সম্প্রতি একটি ‘আর্কাইভ কুয়ারি’ প্রকাশ করেছে। ইন্টারনেট ব্যবহারের আগে মানুষ কিভাবে লাইব্রেরিতে এসে তথ্য খুঁজতো সেটা নিয়ে গবেষণা করেছে তারা। কুয়ারিতে দেখা যায়, লাইব্রেরিয়ানের কাছে পাঠক হাতে লিখে প্রশ্ন জমা দিত। এরপর লাইব্রেরিয়ান একটু ভেবে চিন্তে বলে দিতেন কোন বইতে পাওয়া যাবে ঐ প্রশ্নের উত্তর। তবে সব পাঠকই যে সব প্রশ্নের উত্তর জানতে পেরেছেন এমন নয়। তথ্য চেয়ে না পেয়ে অনেককে বিরস বদনে ফিরে যেতে হয়েছে।

কুয়ারি থেকে জানা যায়, ১৯৪৯ সালের ১ জানুয়ারি একজন সুইস উৎপাদনকারী লাইব্রেরিতে এসেও তথ্য পাননি। তার প্রশ্নটা ছিল এমন, ‘মায়েরা তাদের শিশুদের বহনের জন্য কেমন ধরণের ঝুড়ি পছন্দ করেন?’। একই দশা হয়েছিল ১৯৪৪ সালের ২৬ মার্চ। সেদিন এক পাঠক জানতে চেয়েছিলেন, ‘কখন ব্লুবার্ড গান গায়?’ ১৯৫৮ সালের ৬ জুন এক কৌতুহলী পাঠক লাইব্রেরিয়ানের দিকে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়েছিলেন ‘মানুষের মাংসের স্বাদ কেমন?’।

এসব প্রশ্নের উত্তর হয়তো এখনকার দিকে স্কুলে পড়া একটা বাচ্চা ছেলেও গুগলে সার্চ করে জানতে পারবে। কিন্তু ইন্টারনেট আবিস্কারের আগে এসব তথ্য খুঁজে পাওয়া ছিল রীতিমত দুস্কর।

একটি উত্তর ত্যাগ