কে বেশি স্মার্ট? স্মার্টফোন নাকি আগেরকালের বোকা মোবাইল ফোন

0
404

স্মার্টফোনের জয় জয়কার সারা বিশ্বে। প্রতিনিয়ত নতুন সব স্মার্টফোন আসছে বাজারে। মানুষ সেগুলো লুফে নিচ্ছে। অথচ কথা বলার জন্যই এ ফোন উদ্ভাবন করেছিল উদ্ভাবকরা। বর্তমানে স্মার্টফোনের স্মার্টনেসের কাছে বোকাফোনগুলো বড্ড বোকার মতো। কিন্তু একটি তুলনামূলক পার্থক্য করলে প্রশ্ন উঠতে পারে, কে বেশি স্মার্ট; স্মার্টফোন নাকি আগেরকালের বোকা মোবাইল ফোন।

ফোন কে বেশি স্মার্ট? স্মার্টফোন নাকি আগেরকালের বোকা মোবাইল ফোন

ধরা যাক, একটা পুরনো মোবাইল ফোনের ব্যাটারির চার্জ থাকে তিন থেকে চার দিন। অন্যদিকে স্মার্টফোনের চার্জ থাকে মাত্র তিন থেকে চার ঘণ্টা। শক্তি-সামর্থ্যের দিক থেকে কে বেশি শক্তিশালী! একটি মোবাইল ফোন তিনতালা থেকে ফেলে দিলেও সেটি অক্ষত থাকবে। অন্যদিকে দুই ফুট উপর থেকে যদি হাত থেকে পরে যায় কি অবস্থা হবে স্মার্টফোনের! পুরনো মোবাইল ফোনগুলোর ভেতর প্রয়োজনীয় যাবতীয় প্রোটেকশন দেয়া থাকে। অথচ স্মার্টফোনে অ্যাডঅন দরকার হয়।

 
বোকাফোনে সফটওয়্যার আপডেট লাগে না, অথচ স্মার্টফোনে বলাচলে সপ্তাহে অন্তত একবার সফটওয়্যার আপডেট দিতে হয়। ছবিতে দেখানো বোকাফোনগুলো এখনও চলছে। আর স্মার্টফোনগুলো বড়জোর এক থেকে দুই বছর চলে। মোবাইল ফোনের সবচেয়ে কার্যকারিতার দিকটি হলো, এসএমএস লেখার সময় এতে সেকেন্ড সর্বোচ্চ নয় অক্ষর টাইপ করা যায়। অন্যদিকে অটোকারেক্ট অপশনের যন্ত্রণায় টাইপিং হয়ে যায় অনেক ধীর। তাহলে স্মার্টফোন বেশি স্মার্ট নাকি বোকাফোন।

একটি উত্তর ত্যাগ