ইন্টারনেট থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে চাচ্ছেন?তাহলে ৫টি টিপস

0
430

ইন্টারনেট থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে চাচ্ছেন অথচ বুঝতে পারছেন না কি করবেন। ইন্টারনেট ব্যবহার একেবারে বন্ধ করা এত সহজ নয় তবে সহজ কিছু নিয়ম অনুসরণ করলেই অতিরিক্ত ইন্টারনেট ব্রাওজিং থেকে নিজেকে দূরে রাখতে পারবেন।

নিচে ইন্টারনেট থেকে নিজেকে দূরে রাখার ৫ টি উপায় দেয়া হল:

১) ডিলিট অথবা ডি-একটিভেট করে দিন আপনার শপিং, সামাজিক নেটওয়ার্ক, এবং ওয়েব সার্ভিস অ্যাকাউন্ট

সামাজিক নেটওয়ার্কের মধ্যে ফেসবুক, টুইটার, গুগল প্লাস, এবং লিঙ্কডইনের মত সাইট অন্তর্ভুক্ত। অ্যামাজন, গ্যাপ ডট কম, মেসিস ডট কম এবং অন্যদের সংরক্ষিত তথ্য শপিং অ্যাকাউন্টের অন্তর্ভুক্ত এবং ওয়েব সার্ভিসের অন্তর্ভুক্ত ক্লাউড অ্যাকাউন্ট যেমন ড্রপবক্স এবং ওয়ান ড্রাইভ।

এইসব অ্যাকাউন্ট বন্ধ করতে অ্যাকাউন্ট সেটিংস এ যান এবং শুধু ডি একটিভেট, রিমুভ, অথবা একাউন্ট বন্ধ করার বিকল্প দেখুন। অ্যাকাউন্টের উপর ভিত্তি করে এটি সিকিউরিটি, প্রাইভেসি বা অনুরূপ কিছুর অধীন খুঁজে পেতে পারেন।

২) তথ্য সংগ্রহের সাইট থেকে নিজেকে দূরে রাখুন

কিছু কিছু সাইট আছে যেমনঃ স্পোকিও, ক্রাঞ্ছবেজ, পিওপেল ফাইন্ডার ইত্যাদি যারা পণ্যদ্রব্য বিক্রি্র জন্য আপনার তথ্য সংগ্রহ করে।

প্রতিটি সাইট থেকে নিজের নাম পৃথক ভাবে মুছে ফেলার জন্য প্রতিটি সাইটে নিজের নাম অনুসন্ধান করতে পারেন এবং পৃথকভাবে আপনার নাম মুছে ফেলতে পারেন। সমস্যা হল, প্রতিটি সাইট থেকে নাম মুছে ফেলার প্রক্রিয়া ভিন্ন এবং কখনও কখনও ফ্যাক্স পাঠানো কিংবা এবং লিখিত বিষয়াবলী জড়িত থাকে।

এটা করতে একটি সহজ উপায় হল Abine.comDeleteMe এর মত একটি সেবা ব্যবহার করা। এক বছরের সদস্যপদের জন্য প্রায় ১৩০ ডলার খরচ হবে। এটি এমনকি আপনার নাম এই সাইটগুলোতে পুনরায় যোগ করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করতে কয়েক মাস অন্তর অন্তর আবার চেক করব।

থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে 2 ইন্টারনেট থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে চাচ্ছেন?তাহলে ৫টি টিপস

৩) ওয়েবসাইট থেকে আপনার তথ্য মুছে ফেলুন

আপনি যদি একটি পুরানো ফোরাম পোস্ট অথবা একটি পুরানো বিব্রতকর ব্লগ অপসারণ করতে চান তাহলে, আপনাকে পৃথকভাবে ঐ সাইটের ওয়েবমাস্টারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে অথবা আপনি এবাউট আস বা কন্টাক্ট পেজ দেখতে পারেন কিংবা www.whois.com সাইটে গিয়ে আপনি যোগাযোগ করতে ইচ্ছুক ব্যক্তিকে খুঁজে বের করুন।

দুর্ভাগ্যবশত, ব্যক্তিগত ওয়েবসাইট অপারেটর আপনার পোস্ট মুছে ফেলার জন্য কোন বাধ্যবাধকতা অধীনে থাকেনা। তাই তাদের সাথে যোগাযোগ করা হলে কেন পোস্টটি মুছে ফেলতে চান ভদ্র ও পরিষ্কার ভাষায় বুঝিয়ে দিতে হবে। যদি তারা রাজি না হয় তবে চার নাম্বার উপায়টি অবলম্বন করতে পারেন।

৪) মুছে ফেলুন সার্চ ইঞ্জিন ফলাফল যা আপনার সম্বন্ধে তথ্য জানায়

এই ধরনের কিছু সাইট হচ্ছে বিং, ইয়াহু এবং গুগল। যদিও নির্দিষ্ট ইউআরএল গুলো মুছে ফেলতে গুগলের ইউআরএল রিমুভার আপনাকে সাহায্য করবে।

থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে 3 ইন্টারনেট থেকে নিজেকে দূরে রাখাতে চাচ্ছেন?তাহলে ৫টি টিপস

যেমন কেউ যদি সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর অথবা একটি ব্যাংক একাউন্ট নম্বরের মতো সংবেদনশীল তথ্য পোস্ট করে এবং ঐ সাইটের ওয়েবমাস্টার এটি রিমুভ না করে তাহলে আপনি সার্চ ইঞ্জিন কোম্পানিটির সাথে অনুসন্ধান ফলাফল সরানোর জন্য যোগাযোগ করতে পারেন।

৫) এবং শেষ ধাপে মুছে ফেলুন আপনার ইমেইল একাউন্ট

এই পদক্ষেপ ইমেইল একাউন্টের ধরনের উপর নির্ভর করে নিতে হবে। আপনি আপনার অ্যাকাউন্টে সাইন ইন করুন এবং তারপর অ্যাকাউন্ট মুছে ফেলতে অথবা বন্ধ করতে বিকল্প খুঁজে বের করুন। কিছু কিছু অ্যাকাউন্ট একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য খোলা থাকবে ফলে আপনি যদি চান তবে তা পুনরায় সক্রিয় করতে পারবেন। তবে পূর্ববর্তী প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে একটি ইমেইল এড্রেস লাগবে তাই এটিই আপনার শেষ ইমেইল এড্রেস নিশ্চিত করা প্রয়োজন।

একটা জিনিস মনে রাখবেন এই প্রক্রিয়া এক দিনের মধ্যে সম্পন্ন করা সম্ভব বলে আশা করবেন না এবং আপনাকে বুঝতে হবে কিছু কিছু বিষয় স্থায়ীভাবে ইন্টারনেট থেকে মুছে ফেলা সম্ভব নয়।

একটি উত্তর ত্যাগ