আসুন দেখি কেমন হবে ২০১৫ এর ফেসবুক

0
418
আসুন দেখি কেমন হবে ২০১৫ এর ফেসবুক

kafi

বড় একটি কোম্পানিতে ছোট একটি জব করছি :) দেখা হলে বিস্তারিত আড্ডা হবে। ধন্যবাদ
আসুন দেখি কেমন হবে ২০১৫ এর ফেসবুক
সোশ্যাল মিডিয়া হিসেবে ফেসবুক এখন শীর্ষে। ব্যবহারকারীদের এত বেশি অ্যাকটিভ করতে পারেনি অন্য কোনো মিডিয়া। বাণিজ্যেও পিছিয়ে নেই ফেসবুক। ২০১৪ সাল অনেক দিক থেকেই ছিল প্রতিষ্ঠান হিসেবে ফেসবুকের জন্য সফল একটা বছর। ২০১৫ সাল কেমন হবে? এ প্রশ্নের উত্তরটা পেতে ২০১৪ সালে ফিরে দেখাটাই শ্রেয় হবে বলে জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল ডটকম।
২০১৪ সালে একাধিক নতুন প্রকল্প নিয়ে ফেসবুকের কর্মতৎপরতায় একটা ব্যাপার পরিষ্কার, কেবল লাইক আর শেয়ারের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকতে রাজি নন জাকারবার্গ। হালের টক অব দ্য টাউন ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (ভিআর) থেকে শুরু করে বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলের নতুন বাজারের দখলটাও চাই তার।
চলতি বছরে ফেসবুকের মালিকানায় গেছে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। আলোচিত ভিআর স্টার্টআপ অকুলাসও এখন ফেসবুকের নিয়ন্ত্রণে। আর বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দিতে ড্রোন ব্যবহারের পরিকল্পনা শুনে চোখ ছানাবড়া হয়ে গিয়েছিল খোদ প্রযুক্তি জগতের অনেকেরই।
সব মিলিয়ে ২০১৫ সাল ফেসবুকের জন্য হবে মেসেজিং অ্যাপ, ড্রোন আর ভার্চুয়াল রিয়েলিটি প্রযুক্তির বছর। মেসেজিং : চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ফেসবুক জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ কিনে নেয় ১ হাজার ৬শ কোটি ডলারের বিনিময়ে। হোয়াটসঅ্যাপের নিয়মিত ব্যবহারকারীর সংখ্যা এখন ৬০ কোটি। হোয়াটসঅ্যাপ কিনে কেবল ব্যবসায়িক দিক থেকেই লাভবান হয়নি ফেসবুক, বেড়েছে ব্যবহারকারীর সংখ্যাও।
মজার ব্যাপার হচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপের আগে জাকারবার্গের চোখ পড়েছিল ফটো মেসেজিং অ্যাপ স্ন্যাপচ্যাট-এর দিকে। কিন্তু ফেসবুকের তিনশ কোটি ডলারের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিল স্ন্যাপচ্যাট কর্তৃপক্ষ। ফেসবুক, স্ন্যাপচ্যাট আর হোয়াটসঅ্যাপের এই ত্রিভুজ প্রেমকাহিনী অবশ্য ট্র্যাজেডিতে যেয়ে শেষ হয়নি। ব্যবহারকারীদের কাছে নিজেদের জনপ্রিয়তা ধরে রেখেছে স্ন্যাপচ্যাট। ফটো মেসেজিং অ্যাপটিকে টেক্কা দিতে ইনস্টাগ্রামে বোল্ট নামের নতুন ফিচার চালু করেছিল ফেসবুক।
তবে এ ফিচার দিয়েও স্ন্যাপচ্যাট ব্যবহারকারীদের ইনস্টাগ্রামে আগ্রহী করাতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি। তবে জাকারবার্গ যে সহজে হাল ছাড়ছেন না, সেটা নিশ্চিত- জানিয়েছে ম্যাশএবল। ২০১৫ সালেও মেসেজিং অ্যাপের বাজারে স্ন্যাপচ্যাটকে টেক্কা দেয়ার জন্য ফেসবুকের চেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে সাইটটি।
ভার্চুয়াল রিয়েলিটি : শুধু হোয়াটসঅ্যাপ নয়, চলতি বছর ২শ কোটি ডলারের বিনিময়ে আলোচিত ভিআর স্টার্টআপ অকুলাসও কিনে নিয়েছে ফেসবুক। ফেসবুকের এ পদক্ষেপে অনেক প্রযুক্তি বাজার বিশ্লেষকই বিস্ময় প্রকাশ করেন। এ ব্যাপারে ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ জানিয়েছেন, এখনই অকুলাস দিয়ে বাজারে সাফল্য পাওয়ার আশা নেই বরং ভবিষ্যতের সবচেয়ে প্রতিশ্র“তিশীল কম্পিউটিং প্লাটফর্ম হবে অকুলাস, আর তাই প্রতিষ্ঠানটির পেছনে এ বিপুল পরিমাণ বিনিয়োগ।
তবে অকুলাস কেনার পর বিশ্বব্যাপী ডেভেলপারদের সঙ্গে ফেসবুকের সখ্য আরও জোরদার হয়েছে বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল। সেপ্টেম্বর মাসে আয়োজিত অকুলাস কানেক্ট ডেভেলপার্স কনফারেন্স আয়োজন করেছিল ফেসবুক। এই একটি ইভেন্ট থেকে ডেভেলপারদের মধ্যে ফেসবুক যতটা ইতিবাচক ভাবমূর্তি সৃষ্টি করতে পেরেছে তা গত কয়েক বছরে সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল। ইন্টারনেট ড্রোন : ফেসবুক ব্রিটিশ সৌরশক্তিচালিত ড্রোন নির্মাতা অ্যাসেন্টা কেনার পর বাজার বিশ্লেষকদের বিস্ময়টা ছিল আরও বেশি। তবে এ পদক্ষেপের সহজ ব্যাখ্যাও দিয়েছে ফেসবুক।
বিশ্বের ইন্টারনেট সেবাবঞ্চিত অঞ্চলে ড্রোনের মাধ্যমে ওয়্যারলেস ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়ার ইন্টারনেট ডটঅর্গ প্রকল্পের জন্যই অ্যাসেন্টা কিনেছে ফেসবুক। ফেসবুকের কানেক্টিভিটি ল্যাবপ্রধান ইয়েল ম্যাগুয়্যার জানিয়েছেন, ২০১৫ সালেই কানেক্টিভিটি ড্রোন আকাশে ওড়ানোর লক্ষ্য তাদের। এ ছাড়াও ২০১৫ সালে চমকপ্রদ পরিবর্তন দেখা যেতে পারে নিউজ ফিড, সার্চ সিস্টেম ও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনে। সব মিলিয়ে ২০১৫ সাল প্রতিষ্ঠান হিসেবে ফেসবুকের ভবিষ্যৎ নির্ধারণের জন্য যথেষ্ট গুরুত্ব বহন করবে বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল ডটকম।

একটি উত্তর ত্যাগ