পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

0
496

পোষ্ট এর হেডলাইন টা পরার সাথে মনে হচ্ছে আমাদের দেশ মনেহয় সবার প্রথমে থাকবে না? আমরা যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করি তাদের সবার মধ্যে একটি হতাশা কাজ করে। সেটি আর কিছু নয় আমাদের ইন্টারনেট স্পীড। এখনো আমাদের দেশের প্রায় সকলেই তাদের নেট স্পীড নিয়ে খুশি না। যারা স্মার্টফোন ব্যবহার করে তাদের ক্ষেত্রে তো এটি সব থেকে বেশি বিরক্তিকর। যদি মনেকরি ইউটিউবে কোন ভিডিও দেখব তবে সেটি বাফারিং করতেই জান বের করে দেয় দেখা তো দূরে থাক। তবে যারা ব্রডব্যান্ড লাইন চালান বা ঢাকাতে থাকেন তাদের বিষয় আলাদা। যারা মনে করেন যে আমাদের দেশের নেট স্পীড সবার থেকে কম তাদের ভুল ভাঙ্গানোর জন্নে আজকের এই পোষ্ট।

এমন অনেক উন্নত দেশ আছে যাদের এভারেজ নেট স্পীড আমাদের থেকেও কম। এবং সব থেকে মজার ব্যপার হল আজকে আপনাদের সাথে যে ১০টি দেশের পরিচয় করিয়ে দিবো সেখানে আমাদের বাংলাদেশের কোন নাম গন্ধও নেই। তবে চলুন আর দেরি না করে জেনে নেয়া যাক সেই দেশ গুলার কথা যারা আমাদের থেকেও নিচে অবস্থান করছে। (বাস্তবতার প্রেক্ষাপটে আমার কিন্তু বিশ্বাস হয়না বাদবাকি আপনারা বলেন)।

#১০ মালায়সিয়া-

মালায়সিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

তালিকার ১০ নম্বরে আছে আমাদের পরিচিত মুখ “মালায়সিয়া” আমরা কিন্তু সবাই এই দেশকে বেশ উন্নত বলে জানি তবে তাদের নেট স্পীডের এই দূর অবস্থা কেন? আমিও ঠিক জানিনা তবে পরিসংখ্যান কিন্তু এই কথায় বলে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী এই দেশের ১৬% মানুষ এভারেজে মাত্র ২৫৬কেবিপিস গতিতে ইন্টারনেট কানেকশন চালায়।

 #০৯ কাজাকাস্থান-

কাজাকাস্থান পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

অন্যতম ধীর গতির ইন্টারনেট ব্যবহারকারির তালিকায় ৯ নাম্বারে আছে এই দেশটি। তাঁরা শুরু করে ২০০১ সালের দিকে আর এই প্রান্তিকে এসে তাদের খুব বেশি উন্নতি হয়নি। কাজাকাস্থানের এভারেজে ১৬% মানুষ ২৫৬ কেবিপিএস এর নিচের গতিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করে। যা সব থেকে কমের কাতারে পরে।

 #০৮ ইন্দোনেশিয়া-

ইন্দোনেশিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

ইন্দোনেশিয়া তাদের ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করে ১৯৮৩ সালের দিকে। সর্বনিম্ন গতির দিক থেকে তাদের অবস্থান আছে ৮ নাম্বারে। এই দেশের শতকরা ১৯ ভাগ মানুষ সর্বনিম্ন স্পীড ২৫৬ কেবিপিএস লাইন ব্যবহার করে। তাঁরা গত কয়েক বছর ধরে চেষ্টা করে আসছে তাদের গতি বারাতে এবং মোটামুটি ১৩% সফল ও হয়েছেন।

#০৭ সিরিয়া-

সিরিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

এই দেশ তাদের ইন্টারনেট সেবা দিতে শুরু করে ২০০৩ সালের দিকে। তবে তাদের এখনো পর্যন্ত খুব বেশি উন্নতি হয়নি কারন এখনো পর্যন্ত এদেশের শতকরা ১৯ ভাগ মানুষ সর্বনিম্ন গতিতে নেট ব্রাউজ করে যেটি মাত্র ২৫৬ কেবিপিএস।

 #০৬ বলিভিয়া-

বলিভিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

বলিভিয়া তাদের ইন্টারনেট সেবা দিতে শুরু করে ২০০০ সালের দিকে। এই দেশটি মূলত দক্ষিন আমেরিকার পাশে পড়েছে। দেশটি আমেরিকার পাশে পরার সত্ত্বেও তাদের ইন্টারনেট স্পীড ভয়াবহ কম। এই দেশের শতকরা ২৫ ভাগ মানুষ সর্বনিম্ন ২৫৬ কেবিপিএস লাইন চালায়।

#০৫ ইন্ডিয়া-

ইন্ডিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

ইন্ডিয়া যতই বিজ্ঞাপনে ভাব দেখাক যে তাদের ইন্টারনেট স্পীড গুলির মতো বাস্তবে কিন্তু সেটা না। তাঁরা সর্বনিম্ন গতির তালিকায় ৫ নাম্বারে অবস্থান করছে। ইন্ডিয়া তাদের ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করে ১৯৯৫ সালের দিকে আর বর্তমানে তাদের প্রায় ২৭% মানুষ সর্বনিম্ন গতির ব্যবহার করছে। যেটি নিতান্তয় খুব একটা ভালো না।

#০৪ ইরান-

ইরান পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

ইরান তাদের ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করে ১৯৯৩ সালে। দুর্বল গতির দিক দিয়ে তাদের অবস্থান দুর্ভাগ্য জনক ভাবে ৪ নাম্বারে আছে। তাদের মোট ইন্টারনেট ব্যবহার কারির মধ্যে প্রায় ৩০% মানুষ সর্বনিম্ন গতির ইন্টারনেট ব্যবহার করে।

 #০৩ নাইজেরিয়া-

নাইজেরিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

নাইজেরিয়া আফ্রিকার পাশে অবস্থিত একটি দেশ। দেশটি তাদের ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করে ১৯৯৫ সালের দিকে। কম গতির দিক দিয়ে তাঁরা আছে তালিকার ৩ নাম্বারে। এখনো তাদের মোট ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর মধ্যে প্রায় ৩১% মানুষ সর্বনিম্ন গতির ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করে।

 #০২ নেপাল-

নেপাল পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

নেপাল আছে তালিকার ২ নাম্বারে। এদের ইন্টারনেটের অবস্থা সত্যি অনেক করুন। তাঁরা শুরু করে ১৯৯৪ সালের দিকে আর এখনো তাদের মোট ব্যবহার কারির শতকরা ৩২ ভাগ মানুষ সর্বনিম্ন গতির ইন্টারনেট ব্যবহার করে। গত কয়েক বছরের প্রচেষ্টার ফলে তাঁরা তাদের অবস্থান মাত্র ৪% উন্নতি সাধন করতে পেরেছে।

 #০১ লিবিয়া-

লিবিয়া পৃথিবীর সর্বনিম্ন ১০টি দেশ যাদের ইন্টারনেট স্পীড অন্যান্য সবার থেকে কম !

সবথেকে দুর্ভাগা বলা যেতে পারে যুদ্ধহত দেশ লিবিয়া কে। জদিও তাঁরা তাদের ইন্টারনেট সেবা দেয়া শুরু করেছিলো ২০০০ সালের দিকে। এতদিন পার হবার পরেও তাঁরা তাদের সেবার মান ভালো করতে পারেনি। এই দেশের শতকরা প্রায় ৫২% মানুষ সর্বনিম্ন গতির ইন্টারনেট ব্যবহার করে। যেটি কিনা মাত্র ২৫৬ কেবিপিএস।

উপসংহার-

পরিশেষে আমি এতটুকুই বলবো যে আমাদের দেশ তাদের থেকে অনুন্নত হওয়া সত্ত্বেও তাদের থেকে এগিয়ে আছি। কিছুদিন আগে ৩জি সার্ভিস চালু হবার পরে তো আমাদের স্পীড এখন গুলি, এখানে উল্লেখ যে আমি ৭ এমবিপিএস এর লাইন চালাই তার কথাটা বল্লাম আরকি। তবে আমার দেখা মতে এখন বাংলাদেশের ইন্টারনেট স্পীড সত্যি আগের থেকে অনেক অনেক ভালো।

লিখাটি সর্বপ্রথম বিজ্ঞান প্রযুক্তি ব্লগে পোষ্ট করা হয়েছে সময় পেলে ঘুরে আসতে পারেন। 

LEAVE A REPLY

one × four =