বাংলাদেশের প্রথম অ্যাপ ইঞ্জিন "বুনন" এর উদ্বোধন

0
460

২৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ধানমণ্ডির স্টার্ট আপ রেস্টুরেন্টে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অ্যাপ ইঞ্জিন “বুনন” এর উদ্বোধন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের স্বনামধন্য তথ্য প্রযুক্তিবিদ এবং ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. সৈয়দ আখতার হোসেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বুননের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি এবং এর কার্য পদ্ধতি তুলে ধরেন বুননের নির্মাতা দলের প্রধান এবং 143play এর প্রতিষ্ঠাতা মাহমুদুল হাসান। তিনি বলেন, বুনন বাংলাদেশের সর্বপ্রথম অ্যাপ ইঞ্জিন যেখানে কোন রকম বিশেষ টেক দক্ষতা ছাড়াই মানুষ তাদের পছন্দ মত আপ্লিকেশন তৈরি ও ব্যবহার করতে পারবেন। শুধু তাই নয়, এই প্লাটফর্মে তৈরিকৃত আপ্লিকেশনকে তারা নিজেদের নামে পেটেন্ট করতে পারবেন এবং সেখান থেকে আয় ও করতে পারবেন। নিজের ভাবনাকে কাজে রূপান্তরিত করার এই প্রয়াসকে নাম দেয়া হয়েছে “বুনন”।

এক কথায়, বুনন শুধু মানুষের আনন্দের খোরাকিই যোগাবে না, তার পাশাপাশি তাদের মধ্যে মুক্ত ও সৃজনশীল চিন্তার সঞ্চার করবে যা সমাজে লক্ষণীয় পরিবর্তন আনবে। আর বুনন ইঞ্জিনটি পাওয়া যাবে বিডিঅ্যাপস্টোর.কম সাইটে।

বাংলাদেশের প্রথম অ্যাপ ইঞ্জিন "বুনন" এর উদ্বোধন

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ড. সৈয়দ আকতার হোসেন বলেন, আজ এই ইঞ্জিন উন্মোচনের মাধ্যমে বাংলাদেশ তথ্য প্রযুক্তির বিশ্বায়নে নিজেদের অবস্থার তৈরি করতে সক্ষম হল। তিনি এই ইঞ্জিনকে আরো আধুনিকায়ন করার মাধ্যমে একে একটি আন্তর্জাতিক রুপ দেয়ার আহবান জানান এবং একই সাথে অ্যাপ তৈরির ক্ষেত্রে বাংলা ভাষাকে প্রাধান্য দেয়ার অনুরোধ করেন।

বাংলাদেশের আইটি খাতকে এক নতুন মাত্রা দেয়ার যে স্বপ্ন মাহমদুল হাসান দেখেছিলেন সেখান থেকেই বুননের সূচনা। তিনি সব সময় চেয়েছিলেন এদেশের মানুষ প্রযুক্তিকে চিনুক, জানুক এবং নিজের অবস্থা পরিবর্তনে ব্যবহার করুক। তার এই পথচলায় তার সহযোগী আছে বাংলাদেশেরই এক দল তরুণ ডেভেলপার যারা তার দেখা স্বপ্ন ছোঁয়ার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। মাহমুদুল হাসান আগামী ১০ বছরে বুননকে বিশ্বের একটি অন্যতম শক্তিশালী অ্যাপ তৈরির প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তুলতে চান।

একটি উত্তর ত্যাগ