আপনার কমপিউটারের নিয়ন্ত্রণ হ্যাকারদের হাতে চলে যেতে পারে তাই দেখুন ব্রাউজার নিরাপদ রাখা কেনো জরুরি

0
510

বর্তমানে ইন্টারনেট এক্সপেস্নারার, মজিলা ফায়ারফক্স, সাফারি ইত্যাদি ওয়েব ব্রাউজার ব্যাপকভাবে ব্যবহার হচ্ছে। যেহেতু ওয়েব ব্রাউজার প্রায়ই ব্যবহার করতে হয়, তাই এটি নিরাপদে কনফিগার করার বিষয়টি খুবই জরুরি। অপারেটিং সিস্টেমের সাথে যে ব্রাউজার আসে, সেখানে প্রায়ই নিরাপত্তার বিষয়টি যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়ে ডিফল্ট হিসেবে ইনস্টল করা থাকে না। ফলে আপনার অজান্তেই কমপিউটারে স্পাইওয়্যার ইনস্টল হয়ে যাচ্ছে, অর্থাৎ আপনার কমপিউটারের নিয়ন্ত্রণ হ্যাকারদের হাতে চলে যেতে পারে।

প্রকৃতপক্ষে একজন ব্যবহারকারী যেসব সফটওয়্যার ব্যবহার করছেন, সেগুলো কমপিউটারের জন্য কতটা নিরাপদ, ব্যবহারের আগে সে বিষয়টি অবশ্যই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে নিতে হবে। সাধারণত বিক্রেতারা কমপিউটারে সফটওয়্যার লোডেড অবস্থায়ই বিক্রি করে থাকেন। আপনার কমপিউটার সরবরাহকারী যেই হোক না কেন, প্রথমেই দেখে নিতে হবে সিস্টেমে ইনস্টল করা সফটওয়্যারগুলো একটি অপরটির সাথে যথার্থভাবে খাপ খাচ্ছে কি না। বাস্তবতা হলো, একজন সাধারণ ব্যবহারকারীর পক্ষে এটি যাচাই করা প্রায় অসম্ভব।

লক্ষ করা যাচ্ছে, ঝুঁকিপূর্ণ ওয়েব ব্রাউজারের কারণে সফটওয়্যার হামলা উত্তরোত্তর বাড়ছে। অসতর্কভাবে ম্যালিসাস ওয়েব সাইটসগুলো ব্রাউজ করার কারণে সফটওয়্যার হামলার ঝুঁকি বাড়ছে। বিভিন্ন কারণে সমস্যাটি গভীর হচ্ছে, তার মধ্যে উলেখযোগ্য হলো :

• অনেক ব্যবহারকারী নিরাপত্তা ঝুঁকির বিষয়টি না ভেবেই কৌতূহলী হয়ে যেকোনো লিঙ্কে ক্লিক করেন।
• ওয়েবসাইট ঠিকানাটি আপনাকে অনাকাঙিক্ষত কোনো সাইটে নিয়ে যেতে পারে।
• অনেক ওয়েব ব্রাউজার বিশেষ কার্যক্রমের সুবিধার বিনিময়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা শিথিল করে থাকে।
• অনেক সময় দেখা যায়, সফটওয়্যারটি কনফিগার করার পর নতুন করে বিভিন্ন ধরনের নিরাপত্তা হুমকির উদ্ভব হয়েছে, যা আগে ছিল না।
• কমপিউটার সিস্টেম এবং সফটওয়্যার প্যাকেজটির সাথে হয়তো নতুন কোনো অতিরিক্ত সফটওয়্যার যুক্ত করা হয়, যা নিরাপত্তা হুমকিযুক্ত।
• থার্ডপার্টি সফটওয়্যারে হয়তো নিরাপত্তার বিষয়ে আপডেটের কোনো ব্যবস্থা থাকে না।
• অনেক নতুন সফটওয়্যার ইনস্টল করার সময় অতিরিক্ত কিছু ফিচার বা সফটওয়্যার ইনস্টল করতে বলে, যা কমপিউটারের নিরাপত্তা ঝুঁকি আরও বাড়িয়ে দেয়।
• অনেক ব্যবহারকারী জানেনই না কীভাবে নিরাপদে ব্রাউজার ইনস্টল করতে হয়।
• অনেক ব্যবহারকারী অতিরিক্ত ফিচারের সুবিধার লোভে ইচ্ছাকৃতভাবে নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য দরকারী ফিচারগুলো এনাবল বা ডিজ্যাবল করেন না।

উপরোলিস্নখিত কারণে হ্যাকারেরা ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে আক্রমণ করে কমপিউটারকে নিরাপত্তাহীন করতে উৎসাহিত হয়ে উঠেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ