ফেসবুকের বাংলাদেশ অংশের এডমিন প্যানেল বিটিআরসির হাতে চলে আসবে আসছে

0
482

ফেসবুক সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর মধ্যে অন্যতম। আর এর জনপ্রিয়তা বাংলাদেশেও কম নয়। আর তাই বন্ধ নয় বরং ফেসবুকের বাংলাদেশ অংশকে নিয়ন্ত্রণ করবে সরকার। এরই মধ্যে সরকারের পক্ষে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (বিটিআরসি)।

আগামী সপ্তাহের মধ্যে বিটিআরসি ফেসবুক কর্তৃপক্ষের মধ্যে একটি সমাঝোতা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সমাঝোতা হলে ফেসবুকের বাংলাদেশ অংশের এডমিন প্যানেল (নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ) বিটিআরসির হাতে চলে আসবে। এডমিন প্যানেল বিটিআরসির হাতে এলে ফেসবুকের বাংলাদেশ অংশের যে কোনো একাউন্ট বা পেজ বন্ধ করার পাশাপাশি যে কোনো তথ্য সংগ্রহ করার সক্ষমতা লাভ করবে সরকার।

বিটিআরসির সচিব সারওয়ার আলম জানান, এরই মধ্যে আইনগত সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। তাদেরকে ই-মেইলে আনুষ্ঠানিক চিঠি পাঠানো হয়েছে। তাদের জবাবের অপেক্ষায় রয়েছে বিটিআরসি।

সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একটি সূত্র জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের আশ্রয় নিয়ে অনেক দুর্বৃত্ত বাংলাদেশের নিরাপত্তা নষ্ট করতে জঙ্গি ও সহিংসতামূলক কর্মকাণ্ডসহ সাইবার অপরাধ চালিয়ে যাচ্ছে। রামু ও ব্রাক্ষণবাড়িয়াসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ফেসবুকের মাধ্যমে উস্কানি ছড়িয়ে সহিংসতামূলক কর্মকাণ্ড ঘটানো হয়েছে।

সূত্রটি আরো জানায়, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকের মাধ্যমে দেশের নিরাপত্তায় বিঘ্ন ঘটায় সরকারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে ফেসবুক বন্ধ করার কথা ভাবা হয়। কিন্তু পরবর্তীকালে সাধারণের মধ্যে জনপ্রিয়তা এবং ইতিবাচক ব্যবহারের কথা চিন্তা করে সরকার ফেসবুক বন্ধ না করে নিয়ন্ত্রণ করার সিদ্ধান্ত নেয়। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি ফেসবুক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে বাংলাদেশে এডমিন প্যানেল নেওয়ার জন্য যোগাযোগ করেছে।

এদিকে বিটিআরসির ১৭৪ তম নিয়মিত বৈঠকে সংস্থার ভাইস চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আহসান হাবিব খান (অব.) বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে মৌলবাদ ও জঙ্গীবাদী কার্যক্রমের সঙ্গে জড়িতরা উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। বাংলাদেশে ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) তে পর্যাপ্ত এক্সপার্ট না থাকায় সাইবার ক্রাইম পর্যবেক্ষণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আহসান হাবিব খান (অব.) বলেন, বিটিআরসির সঙ্গে ফেসবুক এর কোনো চুক্তিপত্র না থাকার কারণে এবং বাংলাদেশে ফেসবুকের কোনো এ্যডমিন প্যানেল না থাকায় বাংলাদেশ থেকে ফেসবুকের কোনো অ্যাকাউন্ট বা লিঙ্ক বা পেজ বন্ধ করা বা কোনো তথ্য সংগ্রহ করা সম্ভব নয়।

বিটিআরসির ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, ফেসবুক এর সাইটগুলো ডাইনামিক ডোমেইন হওয়ার কারণে বিটিআরসির লাইসেন্স পাওয়া কোনো অপারেটর ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে (আইআইজি) থেকে ফেসবুক এর কোনো নির্দিষ্ট এ্যাকাউন্ট বা লিঙ্ক বা পেজ বন্ধ করতে পারে না। এগুলো বন্ধ করতে গেলে বাংলাদেশে ফেসবুক সম্পূর্ণ ডোমেইন বন্ধ হয়ে যায়। তাই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর সঙ্গে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আইনগত সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এতে সাইবার অপরাধ দমনসহ রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ