নাসার টেলিস্কোপে ধরা পড়ল ঈশ্বরের হাত!

0
431

সম্প্রতি নাসার নিউক্লিয়ার স্পেকট্রোস্কোপিক টেলিস্কোপ সারি বা NuSTAR একটি মৃত তারার মধ্যকার শক্তির ছবি প্রকাশ করে গোটা দুনিয়াকে দেখাল এর ক্ষমতার ঝলক। হাতের মতো দেখতে ‘হ্যান্ড অফ গড’ নামের সেই ছবি এখন আলোচনার বিষয়। ‘হ্যান্ড অফ গড’ ১৭,০০০ আলোক বর্ষ দূরের একটি নীহারিকা যা মৃত ও ঘূর্ণায়মান তারা PSR B1509, সংক্ষেপে B1509 দ্বারা সৃষ্ট।

নাসার টেলিস্কোপে ধরা পড়ল ঈশ্বরের হাত! নাসার টেলিস্কোপে ধরা পড়ল ঈশ্বরের হাত!

মৃত তারাটির অবিশিষ্ট অংশের মধ্যে নিউক্লিয়ার এক্সপ্লোসান তৈরি হওয়ার ফলে তৈরি হয়েছিল তীব্র আলোকময় সুপারনোভা। তারাটি প্রকৃতপক্ষে একটি পালসারে পরিণত হয়েছিল। ১৯ কিলোমিটার অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত এই পালসারটি প্রতি সেকেন্ডে সাতবার করে নিজের অক্ষের চারদিকে তীব্র গতিতে ঘুরছিল। এই সময় পালসারটি থেকে প্রচুর আলো, রশ্মি নির্গত হচ্ছিল। তার সঙ্গেই এমন কিছু পদার্থ বা কণা নির্গত হচ্ছিল যা একটি তারার মৃত্যুর সময় নির্গত হয়।

কণাগুলি নিজেদের মধ্যে একটি চৌম্বক ক্ষেত্রে সংঘর্ষে লিপ্ত ছিল। ফলে প্রচুর আলোকজ্বল এক্স রশ্মি তৈরি হয়। এতে এক্স রশ্মির দ্বারা নির্মিত মেঘ তৈরি করে যা দেখতে হাতের মতো। এই হাতের ছবিই উঠে এসেছে NuSTAR-এর ক্যামেরায়। এই ছবি কোনও অপটিক্যাল ইলিউশন কী না সে ব্যাপারেও সন্দিহান নন বিজ্ঞানীরা।

প্রসঙ্গত, ১৯১২ সালের ১৩ জুন মহাকাশে NuSTAR-কে ছাড়া হয়। উদ্দেশ্য ছিল এর মাধ্যমে ব্রহ্মান্ডের উচ্চ শক্তি সম্পন্ন এক্স রশ্মি দর্শন। ছায়াপথ মিল্কিওয়ে ও অনান্য ছায়াপথে মধ্যে এটি ব্ল্যাক হোল, মৃত বা বিস্ফোরিত তারা এবং অনান্য জ্যোতিষ্কের ওপর নজর রাখে NuSTAR।

উত্তর লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × two =