ডায়নোসর নিয়ে কিছু মজার তথ্য

0
367

আমেরিকার ইউটাহ রাজ্যে নতুন ধরণের এক ডায়নোসরের ফসিল পাওয়া গিয়েছে। অদ্ভূত বিষয় হলো, এদের দেহ ডায়নোসরের মতো হলেও মাথা হচ্ছে গরুর মতো। নতুন প্রজাতির এই ডায়নোসরের নাম দেয়া হয়েছে Nasutoceratops titusi।

ডায়নোসর ডায়নোসর নিয়ে কিছু মজার তথ্য

Nasutoceratops’ দের সাধারণত মাথার সামনের দিকে গরুর শিং এর মতো শিং ছিল। এটা অন্যের উপর আধিপত্য বিস্তারের কাজে ব্যবহৃত হতো। শিং ছাড়াও এই প্রজাতির ডায়নোসরদের মাঝে আরেকটা জিনিসও ছিল চোখে পড়ার মতো। সেটা হলো এদের নাক। যে কারণে এদের বৈজ্ঞানিক নাম দেয়া হয়েছে Nasutoceratops’ যার অর্থ হচ্ছে “বড় নাক বিশিষ্ট শিং যুক্ত মাথা”।

তবে এত বড় নাক এদের তেমন কাজে আসতো বলো মনে হয় না। খুব সম্ভবত বিশাল এই নাকটি ঘ্রাণ সংবেদনশীল ছিল না। কারণ ঘ্রাণের বিষয় মস্তিষ্কের যে অংশ দিয়ে নিয়ন্ত্রিত হয় তার নাম হচ্ছে অলফ্যাক্টরি রিসেপ্টর। Nasutoceratops’ দের ক্ষেত্রে নাক অনেক বড় হলেও অলফ্যাক্টরি রিসেপ্টর থাকতো মস্তিষ্কের কাছে। ফলে এদের ঘ্রাণ নেয়ার ক্ষমতা খুব বেশি কার্যকর ছিল না।

ডায়নোসরের ফসিলটি পাওয়া গিয়েছে Grand Staircase-Escalante National Monument এর কাছে। ৭৬ মিলিয়ন বছর আগে যখন এই প্রজাতির ডায়নোসরগুলো পৃথিবীর বুকে ঘুরে বেড়াতো তখন এই জায়গাটি ছিল এক বিস্তীর্ণ জলাভূমি।

এর আগে ২০০৬ সালে এই জায়গায় গবেষকদল আরো এক প্রজাতির ডায়নোসরের ফসিলের সন্ধান পান। ১৫ ফুট লম্বা ও ২.৫ টন ওজনের সে ফসিল ছিল ceratopsids ফ্যামিলির অন্তর্গত এক তৃণভোজী প্রজাতি।

নতুন এই আবিষ্কার নিয়ে গবেষক দলের প্রধান স্কট সিম্পসন “প্রোসিডিং অব রয়্যাল সোসাইটি বায়োলজিক্যাল সায়েন্স” এ ঘোষণা দেন । গবেষণা নিয়ে বিস্তারিত জানতে নিচের লিঙ্কে যেতে পারেন
http://rspb.royalsocietypublishing.org/content/280/1766/20131186.full?si…

LEAVE A REPLY

four × 3 =