আপনার জরুরী এবং কাজের সমস্ত ডকুমেন্ট ব্যাকআপ করার সহজ উপায়

0
393
আমরা সারাক্ষণই চিৎকার করে পরামর্শ দিয়ে চলেছি ব্যাকআপ করুন, ব্যাকআপ করুন আর ব্যাকআপ করুন। আর সেটা শুনে আপনি একবার করে ইউএসবি স্টোরেজ আর এক্সটারনাল হার্ড-ড্রাইভগুলোর দামের উপর দৃষ্টি নিক্ষেপ করে কাঁচুমাচু মুখে সটকে পরছেন! কিন্তু ব্যাপারটা কি ঠিক হচ্ছে? একবার ভাবুন আপনার পিসিতে কত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যইতো রয়েছে যা যে কোন মুহূর্তে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।
 
 আজকাল কিন্তু এক্সটারনাল হার্ড-ড্রাইভ না কিনলেও চলে, আসলে এ ধরণের হার্ড-ড্রাইভগুলোও কিন্তু আপনার ব্যাকআপ যে সুরক্ষিত অবস্থায় রাখবে তার নিশ্চয়তা দিতে পারেনা। এক্সটারনাল হার্ড-ড্রাইভ নষ্ট হয়ে যেতে পারে হঠাৎ করেই, যে কোন বৈদ্যুতিক গোলযোগেও এর ক্ষতি হতে পারে যার ফলে নষ্ট হয়ে যেতে আপনার মূল্যবান তথ্যগুলো। তবে আপনি যদি ন্যাস (NAS) ব্যবহার করতে পারেন তাহলে আলাদা কথা, কিন্তু সেগুলোর মূল্য আরো বেশি। আজকাল এ ছাড়াও আরেকটি পদ্ধতিতে আমরা ডাটা ব্যাকআপ করতে পারি- অনলাইনে। ঠিক যেভাবে আপনি আপনার মূল্যবান ছবিগুলোকে পিকাসা অথবা ফ্লিকারের মাধ্যমে সংরক্ষণ করতে পারেন ঠিক সেভাবে আপনার ডকুমেন্টগুলোকে সংরক্ষণ করতে পারেন ড্রপবক্স সেবা ব্যবহার করে।
 
ডকুমেন্ট সংরক্ষণ করার সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে এর জন্য আপনার প্রয়োজন পরে না টেরাবাইট স্টোরেজের। এর জন্য আসলে ইউএসবি ড্রাইভও কেনার প্রয়োজন পরে না। ড্রপবক্সে অ্যাকাউন্ট খুললেই পাচ্ছেন ফ্রি ২ গিগাবাইট স্থান। সেখানে সংরক্ষণ করতে পারেন আপনার সমস্ত অফিসিয়াল ডকুমেন্টগুলোকে। এছাড়া আপনি পাচ্ছেন যে কোন মেশিন থেকে আপনার ডকুমেন্টগুলোতে অ্যাক্সেস করার সুবিধা। ব্যবহার করতে পারেন ড্রপবক্স ফোল্ডার সিঙ্ক বৈশিষ্ট্য, যার মাধ্যমে আপনার পিসির কয়েকটি ফোল্ডারের উপর নজর রাখবে এবং এই সকল ফোল্ডারে নতুন কোন ফাইল সংযুক্ত হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে তা আপলোড হয়ে যাবে আপনার ড্রপবক্স অ্যাকাউন্টে। এই ধরণের সুবিধা আপনি ড্রপবক্স ছাড়াও পাবেন মাইক্রোসফটের স্কাই ড্রাইভ থেকে।

LEAVE A REPLY

13 − one =