মোবাইল ফোন চার্জ করার আগে ৫টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দেখে নিন

0
570

আমরা প্রায়শ শুনে থাকি- ‘চার্জকালে ফোন ব্যবহার করবেন না’, ‘সারারাত ধরে মোবাইলে চার্জে দিয়ে রাখবেন না’ এবং ‘সম্পূর্ণ শেষ না হলে মোবাইল চার্জে দেবেন না’। বিশেষ করে চার্জকালে বিস্ফোরণের ঘটনায় আপনার মনে হতে পারে এ কথাগুলো ঠিক। এ ধরনের কিছু মিথ প্রচলিত আছে। তবে ব্যাটারি ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম-কানুন যে নেই তা নয়। তাই ব্যবহারের আগে আপনার ফোন চার্জের নিয়মগুলো পড়ে নিন। তা অযথা গুজব ও সন্দেহ থেকে আপনাকে স্বস্তি দেবে। স্যামসাং ও অ্যাপলের মতো বড় প্রতিষ্ঠানসহ বেশির ভাগ ফোনে লিথিয়াম আয়রন ব্যাটারি ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এ সব ব্যাটারির গড় আয়ু ৩ থেকে ৫ বছর। সঠিকভাবে যত্ম নিয়ে ব্যাটারির আয়ু যথাযথভাবে কাজে লাগাতে পারেন।

এবার দেখা যাক প্রতিষ্ঠিত ৫টি মিথের পেছনে কি রয়েছে-

অফ ব্রান্ড চার্জার ব্যাটারিকে ধ্বংস করে : এটা ঠিক যে সস্তা অফ ব্রান্ড ব্যাটারি থেকে আপনি প্রত্যাশামতো সেবা পাবেন না। এটা মোটামুটি ভালোই কাজ করে। এ ছাড়া আছে নকল চার্জার। সব ক্ষেত্রে মনে রাখুন নকল জিনিস এড়িয়ে চলা উচিত। চার্জার এমনিতেই দামি কোনো পণ্য নয়। তাহলে কেন অফ ব্রান্ড বা নকল পণ্য কিনতে যাবেন? এক পরীক্ষায় দেখা গেছে অফ ব্রান্ড ও নকল চার্জার কোনোভাবেই অফিসিয়াল চার্জারের চেয়ে ভালো কাজ করে না।

চার্জকালে ফোন ব্যবহার ঠিক নয় : আপনার ফোন যে কোনো সময় ব্যবহার করতে পারবেন। তবে থার্ড পার্টির বানানো চার্জার ব্যবহারকালে নয়। এ মিথের পেছনে একটি ঘটনা আছে। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে চার্জ করার সময় মা আইলুন নামের এক চাইনিজ ফ্লাইট অ্যাটেনডেন্ট আইফোন-৪ ব্যবহার করছিলেন। তখন ফোনটি বিস্ফোরিত হয়। পরে দেখা গেছে তিনি আইফোনের আসল চার্জার ব্যবহার করছিলেন না। সম্প্রতি এ ধরনের আরেকটি ঘটনা ঘটেছে। তাই বলা যায়, যদি প্রস্তুতকারক অনুমোদিত চার্জার ও ব্যাটারি ব্যবহার করেন তবে ঠিক আছে।

সারারাত চার্জ করলে ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায় : যদি এমনই ভেবে থাকেন তাহলে জেনে রাখুন ফোন আপনার চেয়েও স্মার্ট। ব্যাটারির চার্জ সম্পূর্ণ হলে এতে চার্জের কাজ বন্ধ হয়ে যায়। ব্যাটারি সে সময় ব্যবহৃত হয় না। তার মানে এ নয় যে, আপনি প্রতিদিন সারারাত ধরে ফোন চার্জে দিয়ে রাখবেন। ব্যাটারির জীবনীশক্তি ঠিক রাখতে চাইলে চার্জ ৪০ থেকে ৮০ ভাগের মধ্যে করুন।

কখনও মোবাইল বন্ধ রাখার দরকার নেই : আপনার ফোন একটি মেশিন। তারও বিরতির দরকার আছে। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ হলো ব্যাটারির সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে চাইলে নিয়মিত ফোন বন্ধ রাখুন। বিশেষ করে ঘুমানোর সময় কাজটি করলে আপনারও সুবিধা হয়। এটা সম্ভব না হলে, সপ্তাহে অন্তত একবার কিছু সময়ের জন্য মোবাইল বন্ধ রাখুন। এতে অ্যানড্রয়েড ডিভাইস ভালো থাকে। সামান্য রিবুট ব্যাটারির জীবনশক্তি নবায়ন করে দেয়।

একদম শূন্য অবস্থা থেকে ব্যাটারি চার্জ করা : চার্জ দেওয়া অবস্থায় লিথিয়াম আয়রন ব্যাটারি সবচেয়ে বেশি ভালো থাকে। আপনি যদি নিয়মিত শূন্য অবস্থায় চার্জ করেন, তা ব্যাটারিকে ভারসাম্যহীন করে দেয়। ব্যাটারিতে নির্দিষ্ট পরিমাণ চার্জ সার্কেল থাকে। একবার পুরোপুরি চার্জ শূন্য হলে আরেকটি সার্কেল বা চক্র শুরু হয়। তাই একদম শূন্য অবস্থার জন্য অপেক্ষা করবেন না।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 − 6 =