অ্যান্ড্রয়েড এর হোয়াটসঅ্যাপ ব্যাবহার করুন কম্পিউটারে

1
613

বিশ্বব্যাপী ব্যাপক জনপ্রিয় ‘হোয়াটসঅ্যাপ’ এর একটি বড় সমস্যা হলো, একমাত্র মোবাইল ফোনে এটি ব্যবহার করা যায়। কাজেই যখন মোবাইল বন্ধ এবং আপনি ডেস্কটপে বসে রয়েছেন, তখন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারছেন না।  বেশ কিছু কারণে কম্পিউটারে হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারের প্রয়োজন রয়েছে। অফিসে কাজের সময় যদি মোবাইল বের করে হোয়াটসঅ্যাপে কাজ করতে হয়, তবে তা বিশাল ঝামেলার ব্যাপার। তাই উইন্ডোজ এক্সপি, ভিস্তা, উইন্ডোজ ৮ অথবা উইন্ডোজ ৮.১ এ এই অ্যাপটি চালানো খুবই জরুরি।

এখানে জেনে নিতে পারেন হোয়াটসঅ্যাপকে কীভাবে কম্পিউটারেও ব্যবহার করা যায়। যেহেতু অ্যাপটি অ্যান্ড্রয়েড এপিকে ফাইল, কাজেই এই পদ্ধতিতে কম্পিউটারে বহু এপিকে ফাইল ব্যবহার করতে পারবেন।

# এ কাজের জন্য আপনার একটি অ্যান্ড্রয়েড এমুলেটর অ্যাপ প্রয়োজন হবে। উদাহরণ হিসাবে বলা যায়, ব্লুস্ট্যাকস অ্যাপ প্লেয়ার যা ইতিমধ্যে পরীক্ষা করা হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ এর অ্যাকাউন্টটি যাচাই করতে একটি মোবাইলও লাগবে।

# ব্লুস্ট্যাকস অ্যাপ প্লেয়ার কম্পিউটারে ডাউনলোড করে নিন।

# ইনস্টল করতে এর সেটআপ ফাইল চালু করুন। ইনস্টলেশন চলাকালে ব্লুস্ট্যাকস স্টোর অ্যাকসেস এবং অ্যাপ নোটিফিকেশন জানতে চাইবে। দুটোকেই আনচেক করতে পারেন।

# কয়েক মিনিট লাগবে, ইনস্টলেশন শেষ হতে দিন। ইনস্টলেশনের শেষ পর্যায়ে ব্লুস্ট্যাকস পুরো পর্দাজুড়ে চলে আসবে। এখন এর ডানে ওপরের ডায়াগোনাল লাইনে যে আইকনগুলো রয়েছে, সেখান থেকে রান ইট ইন উইন্ডোড মুড ক্লিক করুন। এটি করলে পরের কয়েকটি কাজ সহজ হবে।

# ব্লুস্ট্যাকস অ্যাপ প্লেয়ার রানিং এড়িয়ে যান। এবার ব্রাউজারে গিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ এর এপিকে ফাইলটি ডাউনলোড করুন।

# হোয়াটসঅ্যাপের এপিকে ফাইলটিতে দুটো ক্লিক করুন। ব্লুস্ট্যাকস অ্যাপ প্লেয়ারে হোয়াটসঅ্যাপ অটোমেটিকভাবে ইনস্টল হবে।

# যে কয়টি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ কম্পিউটারে নামিয়েছেন তাদের তালিকা দেখতে পাবেন ব্লুস্ট্যাকস-এ। সেখান থেকে হোয়াটঅ্যাপ চালু করুন।

# সেখানে আপনার ফোন নম্বর দিন এবং ভেরিফাই বোতামে ক্লিক করুন।

# এবার ৫ মিনিট অপেক্ষায় থাকুন। হোয়াটসঅ্যাপ চালু হওয়ার চেষ্টা করবে এবং তা ব্যর্থ হবে, আবার এসএমএস অটোমেটিক ভেরিফাই করবে।

# আরো ৫ মিনিট পর হোয়াটসঅ্যাপ আপনার ভয়েস ভেরিফিকেশনের অপশন দেবে। ‘কল মি’ ক্লিক করুন।

# আপনি একটি ফোন কল পাবেন। এটি রিসিভ করুন এবং সেখানে ভেরিফিকেশন কোডটি একটি কণ্ঠে বলতে শুনবেন।

# ব্লুস্ট্যাকস এ যে হোয়াটসঅ্যাপ চলছে, তাতে কণ্ঠে শোনা ভেরিফিকেশন কোডটি দিন।

# এই পদ্ধতিতে চালু করা হোয়াটসঅ্যাপ এ আপনার অন্যান্য যোগাযোগ তালিকা দেখতে পারবেন না। তবে যেখান থেকে মেসেজ আসবে সেগুলোর জবাব দিতে পারবেন।

# ডানপাশে ওপরের দিকে যে তিনটি ডট চিহ্ন রয়েছে সেখান থেকে কন্ট্যাক্টস এ গিয়ে একটি একটি করে যোগাযোগ সংযোগ করতে পারেন। এভাবে সেভ করা তালিকা শুধু এই কম্পিউটারেই দেখতে পারবেন। অন্য কোথাও নয়।

# মোবাইলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যে সব গ্রুপের সদস্য হয়েছেন তাদেরও দেখতে পারবেন না এখানে। সে ক্ষেত্রে ওই গ্রুপের অ্যাডমিনকে অনুরোধ করতে হবে আপনাকে আবার অ্যাড করার জন্য।

এখন থেকে হোয়াটসঅ্যাপ আপনি কম্পিউটারেও চালাতে পারবেন। কিন্তু যদি মোবাইল ও কম্পিউটারে একসঙ্গে এটি চালাতে চান, তবে তা সম্ভব নয়। কারণ, যেকোনো একটি যন্ত্রে এটি চালাতে পারবেন। যখন কম্পিউটারে ব্যবহার করবেন, তখন মোবাইল হোয়াটসঅ্যাপ থেকে কোনো মেসেজ পাবে না। আরেকটি সমস্যা হলো, সঙ্গে সঙ্গে একটি যন্ত্র থেকে অন্যটিতে যাওয়া যাবে না। দুটো ভেরিফিকেশন মাঝখানে হোয়াটসঅ্যাপ ২০ মিনিট সময় ব্যয় করে। আবার, একই দিনে প্রতিটি ভেরিফিকেশনের ক্ষেত্রে এই সময় ক্রমান্বয়ে বাড়তে থাকে। এ বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

1 মন্তব্য

  1. যেই সফটওয়্যার এর নাম বললেন তার একটা ডাউনলোড লিংক দিলে ভালো হত

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

four × three =