মাথা বড় হলেই কি মস্তিষ্কের পরিমাণ বেড়ে যাবে বা বুদ্ধিমান?

0
451

শোনা যায় ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের মাথা শরীরের তুলনায় বড় ছিল। আলবার্ট আইনস্টাইনের মাথাও ছিল তাঁর শরীরের তুলনায় তুলনামূলক বড়। এই কারণে অনেকেই মনে করেন যাঁদের মাথা আকারে বড়, তাঁদের মস্তিষ্কও বড়। আর এই কারণে তাঁদের বুদ্ধিও অন্যদের থেকে বেশি হয়। ব্যাপারটা কিন্তু আদৌ বিজ্ঞানসম্মত নয়।

সাধারণত মানুষের মস্তিষ্কের ওজন হয় ১৪৫০ গ্রাম। মাথা বড় হলেই যে মস্তিষ্কের পরিমাণ বেড়ে যাবে, তা কিন্তু নয়! ব্রেনের গ্রে ম্যাটারের জাইরাই অর্থাত্‍ কোঁচকানো অংশ বেশি থাকলে আই কিউ বেশি হয়। অসুখ বা অন্য কোনো অজ্ঞাত কারণে জাইরাই কমে গেলে বুদ্ধিসুদ্ধি লোপ পেতে থাকে।

মস্তিষ্কের পরিমাণ বেড়ে যাবে মাথা বড় হলেই কি মস্তিষ্কের পরিমাণ বেড়ে যাবে বা বুদ্ধিমান?

তবে বড় মাথাতে যে জাইরাই বেশি থাকে তা কিন্তু নয়। বংশগত কারণে কারো কারো মাথা একটু বড় হয়। এদের বুদ্ধি স্বাভাবিক হবারই সম্ভাবনা। তবে অনেক সময় মাথা বড় হতে শুরু করলে অবিলম্বে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া উচিত। হাইড্রোকেফালাস নামে বিশেষ এক ধরনের অসুখে মস্তিষ্কে পানি জমে গিয়ে মাথা বড় হয়ে যেতে পারে। জন্মগতভাবেও অনেকের এই অসুখ থাকে। এ ক্ষেত্রে মাথা বড় হতে থাকলে এবং ব্যাপারটি অবহেলা করলে বুদ্ধি কমে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এ ছাড়া আলেকজাণ্ডার ডিজিজ, ক্যানভাস ডিজিজ, ম্যালিগন্যান্ট ব্রেন টিউমার ইত্যাদি কিছু রোগের কারণেও অনেক সময় মাথা বড় হতে পারে। তাই মাথা বড় হলে ‘বুদ্ধি বাড়ছে’ – এই ভেবে আনন্দিত না হয়ে চিকিত্‍সকের পরামর্শ নেওয়াটাই বাঞ্ছনীয়। তবে হাইড্রোকেফালাসে যেমন মাথা বড় হয়ে বুদ্ধি কমে যেতে পারে, তেমনই বিশেষ কয়েক ধরনের বিরল অসুখে মস্তিষ্ক শুকিয়ে গিয়ে মাথা ছোট হয়ে যেতে পারে। একে বলে মাইক্রো কেফালি। এ ক্ষেত্রেও বুদ্ধি কমে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

একটি উত্তর ত্যাগ