মানব সভ্যতা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবে – প্রতি সেকেন্ড ৯ মাইল বেগে ধেয়ে আসা এক গ্রহাণুর

0
579

পৃথিবীর বুক থেকে মানব সভ্যতা কি সম্পূর্ণ মুছে যেতে বসেছে! পৃথিবীর দিকে প্রতি সেকেন্ড ৯ মাইল বেগে ধেয়ে আসা এক গ্রহাণুর ‘হানায়’মানব সভ্যতা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবে। এমন আশঙ্কার কথাই শোনালেন বিজ্ঞানীরা। যদিও এই গ্রহাণুর পৃথিবীর বুকে আছড়ে পড়ার সম্ভাব্য দিন ১৬ মার্চ, ২৮৮০ সালে। মানে আজ থেকে প্রায় ৮৬৬ বছর পর পৃথিবী ধ্বংস হয়ে যেতে বসবে।

মানব সভ্যতা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবে - প্রতি সেকেন্ড ৯ মাইল বেগে ধেয়ে আসা এক গ্রহাণুর মানব সভ্যতা পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে যাবে - প্রতি সেকেন্ড ৯ মাইল বেগে ধেয়ে আসা এক গ্রহাণুর

২৮৮০ সালে ‘১৯৫০ ডিএ’ নামের এই গ্রহাণু পৃথিবীর বুকে আছড়ে প়ডার পর বিশ্বের আবহাওয়ায় আমুল পরিবর্তন ঘটবে। ভয়াবহ সুনামী দেখা যাবে, পৃথিবীর সব প্রান্তে শুরু হবে বড় বড় ঝড়। ওই গ্রহাণুতে থাকবে ৪৪ হাজার ৮০০ মেগাটনের বিস্ফোরক পদার্থ বিশেষ।

১৯৯৮ সালে মুক্তি পাওয়া সিনেমা ‘আর্মাগেডন’-এ ঠিক যেমন ঘটেছিল অনেকটাই তেমনই নাকি ঘটবে ১৬ মার্চ,২৮৮০ সালে।

যদিও বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন ধরনের গ্রহাণুর পৃথিবীতে আছড়ে পড়ার সম্ভাবনা ৩০০ ভাগের মধ্যে একভাগ। তবুও পৃথিবী ধ্বংসের এই সামান্য সুযোগটাও রাখতে রাজি নন বিজ্ঞানীরা। তাই এই দৈত্য গ্রহাণুকে ধ্বংস করার কাজ শুরু করে দিতে চলেছেন বিজ্ঞানীরা।

একটি উত্তর ত্যাগ