CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

0
1373
CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

titas sarker

আমি একজন মানুষ। আমার পরিবার আমার আশ্রয়। বন্ধুরা আমার আপনজন। আমাকে পাবেন এই লিংকে
https://www.facebook.com/titas.sarker
CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

নেটওয়ার্ক কি?

একটি কম্পিউটার যখন এক বা একাধিক কম্পিউটারের সাথে সংযুক্ত হয়ে তথ্য আদান প্রদান করে তখন থাকে নেটওর্য়াক বলে।নেটওর্য়াক করার জন্য ন্যূনতম দুটি কম্পিউটার প্রয়োজন।

নেটওয়ার্কের প্রকারভেদ :

নেটওয়ার্কেসাধারণততিনভাগেভাগকরাযায়।

  1. LAN
  2. MAN
  3. WAN
  • Local Area Network (LAN): একই বিল্ডিং এর মাঝে অবস্থিত বিভিন্ন কম্পিউটার নিয়ে গঠিত নেটওয়ার্রকে লোকাল এরিয়ানেটওয়ার্ক বলে।এই নেটওয়ার্ক এর ডাটা ট্রান্সফার গতি ১০এমবিপিএস। এই নেটওয়ার্ক এ ব্যবহিত ডিভাইসগুলো হলো রিপিটার, হাব, নেটওয়ার্ক ইন্টারফেস ইত্যাদি।
  • Metropolitan Area Network (MAN) : একই শহরের মধ্যে অবস্থিত কয়েকটি ল্যানের সমন্বয়ে গঠিত ইন্টারফেস কে বলা হয় মেট্রোপলিটনএরিয়ানেটওয়ার্ক। এ ধরনের নেটওয়ার্ক৫০-৭৫মাইল পর্যন্ত বিস্তৃত হতে পারে। এই নেটওয়ার্কর ডাটা ট্রান্সফার স্পিড গিগাবিট পার সেকেন্ড।এ ধরনের নেটওয়ার্ক এ ব্যবহিত ডিভাইসগুলো হলো রাউটার, সুইজ, মাইক্রোওয়েভ এন্টেনা ইত্যাদি।
  • WAN(Wide Area Network) : দূরবর্তী ল্যানসমূকে নিয়ে গড়ে উঠা নেটওয়ার্ককে ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক বলে।এ ধরনের নেটওয়ার্ক এর ডাটা ট্রান্সফার স্পীড ৫৬কেবিপিএস থেকে ১.৫৪৪এমবিপিএস। ওয়্যানের গতি ধীরে ধীরে পরিবর্তনহচ্ছে। এ ধরনের নেটওয়ার্কে ব্যবহিত ডিভাইসগুলো হলো রাউটার, মডেম, ওয়্যান সুইজ ইত্যাদি।

টপোলজি :

একটি নেটওয়ার্কে কম্পিউটারগুলো কিভাবে সংযুক্ত আছে তার ক্যাটালগকেই টপোলজিবলে। নেটওয়ার্ক ডিজাইনের ক্ষেত্রে টপোলজি বিশেষ ভূমিকা রাখে।টপোলজি বিভিন্ন ধরনের হতে পারে যেমন- বাসটপোলজি, স্টার টপোলজি, রিং টপোলজি,মেশ টপোলজি ইত্যাদি। নীচে বিভিন্ন টপোলজিগুলো দেওয়া হলো:

508px-NetworkTopologies.svg_ CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

নেটওয়ার্কক্যাবল :

এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারের ডাটা পাঠানোর জন্য যে ক্যাবল ব্যবহার করা হয় থাকেই নেটওয়ার্ক ক্যাবল বলে।

নেটওয়ার্কিং করার জন্য বিভিন্ন ধরনের ক্যাবল ব্যবহার করা হয় । যেমন:

  1. কোএক্সিয়াল ক্যাবল
  2. ট্যুইস্টেড পেয়ারক্যাবল
  3. ফাইবারঅপটিক ক্যাবল
  4. প্যাচক্যাবল
  5. ইন্টারনেট ক্রসওভার ক্যাবল
  • কোএক্সিয়ালক্যাবল :

লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্কে কোএক্সিয়াল ক্যাবল ব্যবহার করা হয়। কোএক্সিয়ালক্যাবলবিভিন্নধরনেরহয়েথাকে। যেমন- ৫০ওহম(আরজি-৮, আরজি-১১আরজি-৫৮), ৭৫ওহম(আরজি-৫৯)  এবং ৯৩ওহম(আরজি-৬২)। এ ক্যাবলের দাম অনেক কম। তামার তৈরি বলেই ইএমআই সমস্যা রয়েছে।

500px-Coaxial_cable_cutaway.svg_ CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

  • ট্যুইস্টেডপেয়ারক্যাবল

ট্যুইস্টেড পেয়ার ক্যাবল দুই দরনের হয়ে থাকে।

  1. শিল্ডেড ট্যুইস্টেড পেয়ার ক্যাবল
  2. আনশিল্ডেড ট্যুইস্টেড পেয়ার ক্যাবল
  • শিল্ডেড ট্যুইস্টেডপেয়ার ক্যাবল

শিল্ডেড ট্যুইস্টেড পেয়ার ক্যাবলে প্রতিটি ট্যুইস্ট জোড়া থাকে একটি করে শক্ত আচ্ছাদনের ভেতর। ফলে ইলেকট্রিক ইন্টারফের‌্যান্স অনেক কম থাকে।এই ক্যাবলের ডাটা ট্রান্সফার স্পীড ৫০০এমবিপিএস হয়ে থাকে।

STP CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

  • আনশিল্ডেডট্যুইস্টেডপেয়ারক্যাবল

আনশিল্ডেড ট্যুইস্টেড পেয়ার ক্যাবলে পেয়ারের বাইরে অতিরিক্ত কোন শিল্ডিং থাকেনা কেবল বাহিরে একটি প্লাষ্টিকের জেকেট থাকে।এই ক্যাবলের ডাটা ট্রান্সফাররেট ১৬এমবিপিএস।

UTP_cable CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

  • ফাইবারঅপটিকক্যাবল

এই ক্যাবলে তামার তারের চেয়ে কাচকে মিডিয়া হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে ইলেকট্রো ম্যাগনেটিক ইন্টারফের‌্যান্স নেই।এই ক্যাবলের ডাটা ট্রান্সমিসন স্পীড অনেক বেশী। ফাইবার অপটিক ক্যাবল দুই ধরনের হয়ে থাকে। সিঙ্গল মোড ফাইবার এন্ড মাল্টি মোড ফাইবার। এই প্রধান অসুবিধা হলো দাম অনেক বেশী এবং ইনস্টল করা কঠিন।

SinglemodeOpticalFibre CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

রিপিটার:

রিপিটার হলো এমন একটি ডিভাইস যা সিগন্যালকে এমপ্লিফাই করার জন্য ব্যবহার করা হয়।১৮৫ মিটার দূরত্ব অতিক্রম করার আগেই আপনি একটি রিপিটার ব্যবহার করে সেই সিগন্যালকে এমপ্লিফাই করে দিলে সেটি আরো১৮৫মিটার অতিক্রম করতে পারে। এটি কাজ করে ওএসআইমডেল এর ফিজিক্যাল লেয়ারে।

Repeater CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

হাব

হাব হলো একাধিক পোর্ট বিশিষ্ট রিপিটার। এটি কাজ করে ইলেকট্রিক সিগন্যাল নিয়ে। নেটওয়ার্ক এড্রেস কিংবা নেটওয়ার্ক এডাপ্টারের ম্যাক এড্রস নিয়ে হাবের মাথা ব্যাথা নেই। এটিও কাজ করে ওএসআইমডেল এর ফিজিক্যাল লেয়ারে।

HUB CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

ব্রিজ

ব্রিজ এমন একটি ডিভাইস যা একাধিক নেটওয়ার্ক সেগমেন্টকে যুক্ত করে থাকে। এটি প্রতিটি সেগমেন্ট বিভিন্ন ডিভাইসের হিসেব রাখার জন্য ব্রিজিং টেবিল তৈরি করে।ইহা ওএসআই মডেল এর ডাটালিংক লেয়ারে কাজ করে।

bridge CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

সুইজ

সুইজ হলো একাধিক পোর্টবিশিষ্ট ব্রিজ। ইহা প্রতিটি নোডের ম্যাক এড্রেস এর তালিকা সংরক্ষন করে। ইহা ওএসআই মডেল এর ডাটালিংক লেয়ারে কাজ করে।

switch CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

রাউটার

এক নেটওয়ার্ক থেকে আরেক নেটওয়ার্কে ডাটা পাঠানোর পদ্ধতিকে বলা হয় রাউটিং। আর রাউটিং এর জন্য ব্যবহুত ডিভাইস হলো রাউটার।ইহা ওএসআই মডেল এর নেটওয়ার্ক লেয়ারে কাজ করে।

router CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

গেটওয়ে

বিভিন্ন ধরনের নেটওয়ার্ক সমূহকে যুক্ত করার জন্য ব্যবহিত ডিভাইসটি হলো গেটওয়ে। ইহা প্রটোকলকে ট্রান্সলেশন করে থাকে।ইহা ওএসআই মডেল এর ৭লেয়ারেই কাজ করে।

network_config CCNA Bangla tutorial-02 : নেটওয়ার্ক পরিচিতি

 

আজকের মতো এখানেই শেষ করছি। সবার জন্য শুভ কামনা 

 

একটি উত্তর ত্যাগ