সাইবার অপরাধের শাস্তি মৃত্যুদন্ড!

0
345

যুক্তরাজ্য সরকার গুরুতর সাইবার অপরাধের শাস্তি মৃত্যুদন্ড করার পরিকল্পনা করছে। রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ সরকারের রুপরেখা অনুযায়ী প্রশাসনকে সাইবার অপরাধের জন্য কঠিন আইন প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছেন। দ্য টেলিগ্রাফ এ খবর জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গুরুতর সাইবার অপরাধের কারণে যদি কারও মৃত্যু হয় বা রোগ-বালাই ছড়ায় অথবা জাতীয় নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়ে তাহলে অপরাধীর শাস্তি মৃত্যুদন্ড হতে পারে।

ডেইলি মেইলের আরেক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিদেশি রাষ্ট্রের পারমানবিক ও রাসায়নিক হামলার হুমকি রোধকল্পে যুক্তরাজ্য সরকার এ ধরণের শাস্তির বিধান করছে।

সাইবার অপরাধের শাস্তি মৃত্যুদন্ড! সাইবার অপরাধের শাস্তি মৃত্যুদন্ড!

যদিও বিশ্লেষকরা মন্তব্য করছেন, এই ধরণের আইন করা হলে তা পুরনো আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হবে এবং নিরাপত্তা বিষয়ক গবেষনায় নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে। তবে একজন বিশ্লেষক গার্ডিয়ানকে বলেছেন, এই আইনটি চালু হলে সাধারণ মানুষ সাইবার অপরাধীর হাত থেকে রেহাই পাবে এবং সাইবার ঝুঁকিপূর্ণ অঞ্চলগুলো চিহ্নিত করা সহজ হবে।

ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার জালিয়াতি ও অপব্যবহার আইনে অপরাধীর যাবৎজীবন কারাদন্ড ঘোষনা করা হয়েছে। সম্প্রতি তাদের এই আইনটি কড়া সমালোচনার মুখে পড়ে।

তবে এই প্রস্তাবটি ১৯৯০ সালে গঠিত কম্পিউটার অপব্যবহার আইনকে ঢেলে সাজাবে বলে মনে করছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

একটি উত্তর ত্যাগ