ফেসবুকে শক্তিশালী ম্যালওয়্যার ঘুরছে টা জানেন? সাবধান থাকুন

0
435

বাংলাদেশসহ বিশ্বের দেশে দেশে ফেসবুক প্রোফাইলে শক্তিশালী ম্যালওয়্যার আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এইচটিটিপিএস সিকিউরিটি চালু থাকা শর্তেও এ ম্যালওয়্যার কোন অনুমতি ছাড়াই ফেসবুক লগআউট করে পুনরায় লগইন করতে দিচ্ছে। যা ফেসবুকের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বলে মনে করছেন বাংলাদেশ গ্রে হ্যাট হ্যাকারসের প্রতিষ্ঠাতা এডমিন রোটেটিং রটোর। এদিকে সাইবার ৭১-এর প্রধান নির্বাহী তাঞ্জিম আল ফাহিম বলছেন, এ সমস্যায় আক্রান্তদের তাৎক্ষণিক ফেসবুক পাসওয়ার্ড পরিবর্তন এবং মোবাইল এসএমএস নোটিফিকেশন চালু করা উচিৎ। এদিকে এ ধরণের সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ গত ২০ মে থেকে বিনামূল্যে অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার ডাউনলোডের সুবিধা দিতে শুরু করেছে। এ সংক্রান্ত সব তথ্য পাওয়া যাবে ফেসবুকের (এখানে দেখুন) সিকিউরিটি অফিসিয়াল সাইটে।

চলতি সপ্তাহে দেশের কয়েকজন আইটি সাংবাদিক এ সমস্যায় আক্রান্ত হন। তারা জানিয়েছেন, প্রথমে ফেসবুক ইনবক্সে hahaha লিখে একটি .cab জীপ ফাইল আসে। ফাইলটি নামিয়ে ওপেন করা মাত্রই ফেসবুক লগআউট হয়ে যাচ্ছে। একই সাথে সম্পূর্ণ পিসিও হ্যাং হয়ে যাচ্ছে। পিসি রিস্টার্ট দেয়ার পরেও তা আগের মত সচল হচ্ছে না। এরপরেই দেখা যাচ্ছে ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত ব্যাক্তির ফেসবুক প্রোফাইল থেকে তাদের ফেসবুক বন্ধুদের ম্যাসেজ বক্সে একই ধরণের ম্যাসেজ অটো চলে যাচ্ছে। হ্যাকাররা এর মাধ্যমে আক্রান্ত ব্যাক্তির একাউন্ট থেকে তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে বলে বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

এ সমস্যা শুধু বাংলাদেশে নয়; সারা বিশ্বেই নানান উপায়ে সংগঠিত হচ্ছে। নতুন ধরনের এই ম্যালওয়্যার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হাতিয়ে নিচ্ছে বলেই সম্প্রতি ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সতর্ক করেছে মাইক্রোসফট। ম্যালওয়্যারটি গুগল ক্রোম এক্সটেনশন ও ফায়ারফক্স ব্রাউজারের অ্যাড-অনের আদলে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের সব তথ্য হাতিয়ে নিতে সক্ষম। এক খবরে জানিয়েছে প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট সিনেট। মাইক্রোসফটের বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, প্রথমে এ ম্যালওয়্যারটি শনাক্ত করা হয়েছে ব্রাজিলে। ‘ট্রোজান: জেএস/ফেবিপোস’ ম্যালওয়ারটি ছদ্মবেশে বিশ্বের অন্যান্য দেশেও ছড়িয়ে পড়ছে। ম্যালওয়্যারটি সাধারণ ব্রাউজার এক্সটেনশনের মতো স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপডেট হতে থাকে। একবার ডাউনলোড হয়ে গেলে এটি আক্রান্ত কম্পিউটার থেকে ব্যবহূত ফেসবুক তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করতে থাকে। আক্রান্ত কম্পিউটার থেকে ফেসবুকে লগ ইন করা হলে ম্যালওয়্যারটি কনফিগারেশন ফাইল ডাউনলোড করে এবং ব্রাউজার এক্সটেশনকে বিভিন্ন কাজের নির্দেশনা পাঠাতে পারে। ম্যালওয়্যারটি ব্যবহারকারীর অগোচরে বিভিন্ন পেজে লাইক, শেয়ার, পোস্ট, কোনো গ্রুপে যোগ দেওয়া, চ্যাট করার মতো কাজগুলোও করে যেতে সক্ষম। মাইক্রোসফটের গবেষকেরা নতুন এ ট্রোজানটি সম্পর্কে সতর্ক থাকতে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের পরামর্শ দিয়েছেন।

facebook, ফেসবুক, ফেইসবুক, ফেসবুক খবর, ফেসবুকের টিপস, ফেসবুক টিপস ফেসবুকে শক্তিশালী ম্যালওয়্যার ঘুরছে টা জানেন? সাবধান থাকুনএদিকে ক্রমবর্ধমান ম্যালওয়্যারের আক্রমণ থেকে ব্যবহারকারীদের ডিভাইস ও তথ্যের সুরক্ষা প্রদানে ফেসবুক বিনামূল্যে অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার ডাউনলোডের সুবিধা প্রদান করতে শুরু করেছে। গত ২০ মে এক বিবৃতিতে ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তা প্রদানে ফেসবুক অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার নিয়ে যৌথভাবে কাজ করছে বলে জানানো হয়। ফেসবুকের এ অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার গ্রাহকরা সরাসরি ডাউনলোড করতে পারবেন কম্পিউটার নিরাপত্তা-সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান এফ-সিকিউর এবং ট্রেন্ড মাইক্রোর ক্লাউডভিত্তিক অনলাইন স্টোর থেকে।

এজন্য ফেসবুক ব্যবহারকারীদের কোনো মূল্য পরিশোধ করতে হবে না। এ সেবার মাধ্যমে কোনো ব্যবহারকারীর ডিভাইস ক্ষতিকারক ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হলে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংশ্লিষ্ট ব্যবহারকারীকে অবহিত করবে। এছাড়া ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত ব্যবহারকারীকে এফ-সিকিউর থেকে অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার অথবা ট্রেন্ড মাইক্রো থেকে হাউজকল অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার সফটওয়্যার ডাউনলোডের জন্য পরামর্শ দেবে। প্রতিষ্ঠানটির এ বিনামূল্যের সেবার মাধ্যমে ব্যবহারকারী ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা শতভাগ নিশ্চিত করতে পারবে বলেও উল্লেখ করা হয় বিবৃতিতে।

এ বিষয়ে ফেসবুকের সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার চেতান গোওদা জানান, প্রতিষ্ঠানটির মূল লক্ষ্য হলো বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারীদের সঠিক প্রযুক্তি ব্যবহারের নির্দেশনা দেয়া, যাতে বিভিন্ন ধরনের শক্তিশালী ম্যালওয়্যারের প্রভাব থেকে সংশ্লিষ্ট ব্যবহারকারীরা তাদের ডিভাইসকে নিরাপদ রাখতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ