নেদারল্যান্ড ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযুক্তি ব্যবসার সুযোগ

0
368

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার এন্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) এর উদ্যোগে এবং ঢাকাস্থ নেদারল্যান্ড দূতাবাস ও নেনরোড বিজনেস ইউনির্ভাসিটির সহযোগিতায় ‘নেদারল্যান্ড আইটি কোম্পানীর জন্য যৌথ ব্যবসার সুযোগ’ শীর্ষক এক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বেসিস সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বেসিস সভাপতি শামীম আহসান।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান এবং ঢাকাস্থ নেদারল্যান্ড দূতাবাসের চার্জ দ্যা আফের্য়াস ক্যারেল রিচার। সেমিনারের মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বেসিস- এর পরিচালক ও সাবেক সভাপতি একেএম ফাহিম মাশরুর।
internet, ইন্টারনেট, ইন্টারনেটের খবর, তথ্য প্রজুক্তি, অনলাইন, তথ্য, টেকনোলজি নেদারল্যান্ড ও বাংলাদেশের যৌথ প্রযুক্তি ব্যবসার সুযোগ

প্রধান অতিথি তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক তাঁর বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযেগ প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে সরকারের গৃহিত উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ তুলে ধরেন। বিশেষ করে এ খাতে দেশব্যাপী ইন্টারনেট সংযোগ সহজলভ্য করা এবং হাইটেক পার্ক ও সফ্টওয়্যার টেকনোলটিজ পার্কসহ অবকাঠামোগত উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান। দেশে সম্ভাবনাময় বিপুল সংখ্যক তরুণ জনশক্তিকে কাজে লাগিয়ে আইটি খাতের উন্নয়নে ইতিবাচক অগ্রগতি অর্জন সম্ভব বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব মো. নজরুল ইসলাম খান কালিয়াকৈর হাইটেক পার্কের সম্প্রসারণেল জন্য আরো ১০০ একর জমি বর্ধিত করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন। পর্যায়ক্রমে পার্কেও আয়তন ৫০০ একরে উন্নিত করা হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি আরো বলেন, আইটি শিল্পে ভিয়েতনাম যদি সুদৃঢ় অবস্থান তৈরি করতে পারে তাহলে বাংলাদেশ কেন পারবে না।

বেসিস সভাপতি শামীম আহসান বাংলাদেশের সফটওয়্যার রপ্তানি বার্ষিক ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন খুব একটা কঠিন কাজ নয় উল্লেখ করে বলেন, রপ্তানি প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি ১ মিলিয়ন আইটি প্রফেশনাল তৈরি এবং ১ কোটি করে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে বেসিস। ২০১৮ সালের মধ্যে এসব লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে কাজ করছে বেসিস। এতে বিদেশী বিনিয়োগকারীদের জন্যও একটি বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরি হবে।

সেমিনারে সফররত ১০ ডাচ কোম্পানির প্রতিনিধি, দূতাবাস কর্মকর্তা, বেসিস সদস্যবৃন্দ এবং বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিবৃন্দ অংশ নেন। উল্লেখ, ইউরোপ-বাংলাদেশ টেকনোলজি সামিট-২০১৪ এর অংশ হিসেবে বেসিস আয়োজিত এই সেমিনার ছাড়াও বেসিস মিলনায়তনে দুদিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিটুবি ম্যাচমেকিং বৈঠক। এতে সফররত ১০ ডাচ কোম্পানির প্রতিনিধিরা ছাড়াও বাংলদেশের ৫৪টি আইটি কোম্পানি প্রায় ২০০ বৈঠকে অংশ নিচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ