চীনে গুগলের সকল সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে

0
319

বিভিন্ন দেশে ওয়েব সেন্সরশীপের শিকার হয়ে গুগল সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে চীনে। আবারও চীনে গুগলের সকল সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বেইজিংয়ের তিয়ানানমেন স্কয়ারে ১৯৮৯ সালে চীনা কর্তৃপক্ষ ও অবাধ তথ্যপ্রবাহ সরবরাহকারীদের মধ্যে সংগঠিত যুদ্ধের আগামী সপ্তাহে ২৫তম বার্ষিকী পালন হবে। আর এই বিষয়টিকে সামনে রেখে দেশটিতে গুগলের সব সেবা বন্ধ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়াচডগ।

গ্রেটফায়ার ডটঅর্গের দেওয়া তথ্যমতে, গুগলের সার্চ ইঞ্জিন, জিমেইল এবং অন্যান্য সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যদিও গুগলের সেবা বন্ধ করার বিষয়ে দেশটি নিশ্চিত করেনি, কিন্তু অধিকাংশ চীনা ব্যবহারকারী গত সপ্তাহ থেকে গুগলের সেবা ব্যবহার করতে পারছেন না।

গুগলের সঙ্গে অনেক বছর ধরে চীনের এই সম্পর্কের অবনতি চলছিলো। ২০১২ সালে একবার গুগল বন্ধ করেছিলো চীন। কিন্তু সমালোচনার সম্মুখীন হয় চীন সরকার। এরপর গুগল হংকংয়ে তাদের সেবাকে অগ্রসর করার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে এটি চীনা ব্যবহারকারীদের জন্য খোলা ছিলো। সে কারণে মাত্র ১২ ঘন্টার জন্য সেবা বন্ধ থাকার পর আবারও গুগলের সেবা চালু করা হয়।

বিদেশি বিভিন্ন ওয়েব সেবা বন্ধ করার ঘটনা চীনে এই প্রথম নয়। সেখানে ফেইসবুক, টুইটার এবং গুগলের প্রতিষ্ঠান ইউটিউবও বন্ধ করে দেওয়া হয়।

ওয়াচডগ জানিয়েছে, আমরা জানিনা যে গুগলের সেবা স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে নাকি কিছু দিনের জন্য স্থগিত করা হয়েছে। কিন্তু গত চারদিন ধরে গুগলকে বন্ধ রাখা হয়েছে এবং পরবর্তী কোন সিদ্ধান্ত না নেওয়া পর্যন্ত এটি চলবে।

গুগলের একজন মুখপাত্র বলেন, আমরা গভীরভাবে পরীক্ষা করে দেখেছি আমাদের দিক থেকে কোনও সমস্যা নেই। তবে গুগলের রিপোর্ট অনুযায়ী, শুক্রবার থেকে চীনের ব্যবহারকারীদের উপস্থিতি ব্যাপকহারে কমেছে, যা প্রমান করে সেদেশে গুগলের সেবা বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ