বেসিস নির্বাচনে ৯ পদে প্রার্থী ১৩

0
247

আগামী ২৮ জুন অনুষ্ঠিত হবে সফটওয়্যার প্রস্তুত ও রফতানিকারকদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ইনফরমেশন অ্যান্ড সফটওয়্যার সার্ভিসেস (বেসিস) এর ২০১৪-২০১৬ মেয়াদের নির্বাচন। বর্তমান সভাপতি শামীম আহসানের নেতৃত্বে ৯ সদস্যের কার্যনির্বাহী কমিটিতে পূর্ণাঙ্গ প্যানেলের বিপক্ষে নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন আরো চার স্বতন্ত্র প্রার্থী।

সোমবার কাওরানবাজারে বেসিস অফিসে এই ১৩ প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছেন বেসিস নির্বাচন কমিশনার সোনালী ব্যাংক এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তফা রফিকুল ইসলাম ডিউক।
image_83516_0 বেসিস নির্বাচনে ৯ পদে প্রার্থী ১৩

‘ওয়ান বাংলাদেশ’ স্লোগানে নির্বাচনে বেসিস বর্তমান সভাপতি এখনইডটকমের স্বত্ত্বাধিকারী শামীম আহসানের নেতৃত্বে প্যানেলে প্রার্থী হয়েছেন টিম ক্রিয়েটিভ এর সিইও রাসেল টি আহমেদ, বেস্ট বিজনেস বন্ড এমডি লিমিটেডের উত্তম কুমার পল, সিসটেক ডিজিটাল লিমিটেডের সিইও এম রাশেদুল হাসান, টেকনোবিডি ওয়েব সল্যুউশনসের এমডি শাহ ইমরাউল কায়ীশ, অ্যাডভান্স টিআরপির মুস্তাফিজুর রহমান সোহেল, এমসিসি লিমিটেডের আশরাফুল খান, আপডেট সল্যুউশনস লিমিটেডের সামিরা জুবেরী হিমিকা ও ই-সফটের আরিফুল হাসান অপু।

এই প্যানেলের বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দীপন কনসালটেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেডের সাফকাত মতিন, উইন্টেল লিমিটেডের এটিএম মাহবুবুল আলম, মজুমদার আইটি লিমিটেডের সাইদুল ইসলাম মজুমদার এবং ম্যাগনিটো ডিজিটাল লিমিটেডের রিয়াদ হোসেন নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন।

তবে আগামী ৩ জুন পর্যন্ত প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষে চূড়ান্ত প্রার্থীর তালিকা প্রকাশ করবে নির্বাচন কমিশন।

কমিশন সূত্রে জানা গেছে, নির্বাচনের দিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ করা হবে এবং ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

বেসিসের মোট সদস্য ৭১৫ জন হলেও নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন ৩০০ জন। আর ভোটারদের মধ্যে ১৯০ জন সাধারণ সদস্য এবং ১১০ জন সহযোগী সদস্য।

‘ওয়ান বাংলাদেশ’ বাস্তবায়নে নির্বাচনে অংশ নেয়া একমাত্র প্যানেলের প্রধান শামীম আহসান নতুন বার্তা ডটকম-কে বলেছেন, বছরে এক বিলিয়ন ডলার রফতানি, এক মিলিয়ন পেশাদার আইটি জনশক্তি তৈরি, এক কোটি মানুষকে ইন্টারনেট ব্যবহারের আওতায় আনা এবং জিডিপিতে সফটওয়্যার ও আইটি খাত থেকে ১ শতাংশ অবদান রাখার লক্ষ্যে গত দুই বছর ধরে বাংলাদেশের প্রযুক্তি খাতকে বিকশিত করতেই এবারও নির্বাচনে অংশ নিলাম। গত নির্বাচনে তারুণ্যের জয়ের মাধ্যমে বিজয়ী হয়ে আমরা ইতিমধ্যেই বেসিস এর মাধ্যমে দেশের তথ্য-প্রযুক্তি খাতে প্রান্তিক মানুষের সাথে সংশ্লিষ্ট করতে নানা কার্যক্রম চালিয়ে গেছি। এটি সদস্যদের মধ্যে যেমন আস্থার জায়গা তৈরি করেছে, একই ভাবে এই খাতে সংশ্লিষ্টদেরকেও বেশ নাড়া দিয়েছে। আমরা মনে করি, একক ভাবে কিছুই করা যায় না। সম্মিলিত প্রচেষ্টাতেই আসে সফলতা। তাই এবারও আমরাই সফল হবো বলে আশা রাখছি।

একটি উত্তর ত্যাগ