স্মার্টফোনের ব্যাটারি সুরক্ষিত রাখার দুর্দান্ত ১০টি টিপস (অবশ্যই দেখুন কাজে আসবেই)

2
553

. আলোর মাত্রা কমান: মোবাইলের পর্দার আলো কমিয়ে রাখলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি অনেক দিন পর্যন্ত ভাল থাকবে। এর জন্য প্রথমে আপনার মোবাইলের সেটিং অপশনে যান। তারপর আলো কমানোর অপশনে ক্লিক করুন। এমনকি শুধু এক মিনিটেরও কম সময় পর্যন্ত আলো রাখার নির্দেশনা দিন।

২. রেডিওর সুইস বন্ধ রাখুন: অপ্রয়োজনের সময় ফোনের জিপিএস, ব্লুটুথ, এনএফসি ও ওয়াই-ফাই বন্ধ রাখুন। তাহলে আপনার মোবাইলের ব্যাটারি অনেকদিন টিকবে।

৩. নোটিফিকেশন বন্ধ রাখুন: ফোনে ইনকামিং ইমেইল বার্তা (নোটিফিকেশন) বন্ধ রাখুন। তবে আপডেট ইমেইল জানার জন্য পিং সার্ভার চালু রাখা যেতে পারে। এতে করেও ব্যাটারি অনেকদিন ভাল থাকবে।

৪. ওয়াই-ফাই ব্যবহার করুন: ইন্টারনেটে ঢুকতে চাইলে সেলুলারের চেয়ে ওয়াই-ফাই ব্যবহার করাই বেশি ভাল। এতে করে আপনার শখের স্মার্টফোনটির ওপর অতিরিক্ত চাপ পড়বে না। ফলে স্থায়িত্ব বাড়বে ব্যাটারির।

৫. ফোনটি লক করে রাখুন: ব্যবহারের সময় ছাড়া আপনার মোবাইল সবসময় বন্ধ রাখুন। কারণ তাতেও আপনি ফোন ও বার্তা গ্রহণ করতে পারবেন। আর লক না করলে যে কোনো সময় চাপ পড়ে এর বাটন কিংবা পর্দায় সমস্যা দেখা দিতে পারে। ফলে কমে যেতে পারে ব্যাটারির আয়ু ।

৬. অ্যাপসের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন: ভিডিও দেখা কিংবা মাল্টিপ্লেয়ার গেমগুলো বেশি খেললে ফোনের ব্যটারি বেশি দিন দীর্ঘস্থায়ী হয় না। তাই যতটা সম্ভব এগুলোকে এড়িয়ে চলতে হবে। আবার ওয়েবে গান শুনলেও ব্যাটারির ক্ষতি হয়।

৭. অ্যাপ বন্ধের ব্যাপারে নিশ্চিত হোন: কাজের পর এ্যাপগুলো ভালভাবে বন্ধ করে দিন। প্রয়োজন হলে আরও একবার চেক করুন।

৮. সঠিক তাপমাত্রায় ফোন রাখুন:   ফোন কখনই গরম কিংবা ঠান্ডায় রাখবেন না। তাহলে ব্যাটারির উপর এর প্রভাব পড়ে এটি তাড়াতাড়ি নষ্ট হওয়ার সম্ভবনা দেয়া দেয়। তবে ৩২ থেকে ৯৫ ডিগ্রী সেলসিয়াস তাপমাত্রায় রাখলে এটি ভাল কাজ করে।

৯. সফটওয়্যারের সর্বশেষ ভার্সন ব্যবহার করুন: সবসময় লেটেস্ট সব সফটওয়্যার আপডেট করতে হবে। মোবাইলের শক্তি বাড়াতে এটি অবশ্যই অনেক বেশি কার্যকরি। এর জন্য প্রয়োজনে ইউএসবি ক্যাবল এমনকি ওয়াই-ফাই সংযোগও দেয়া যেতে পারে।

১০. অতিরিক্ত ব্যাটারি কাছেই রাখুন: অনেক মোবাইলের সাথেই দুটো করে ব্যাটারি দেওয়া হয়। এর অন্যতম কারণই হল অতিরিক্ত প্রোটেকশন। কাজেই সবসময় দুটো ব্যাটারি থাকলে ভালো হয়। তাহলে প্রয়োজনের সময় আর অসুবিধায় পড়তে হয় না।

2 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ